kalerkantho

শনিবার । ২৫ মে ২০১৯। ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৯ রমজান ১৪৪০

মুখোমুখি প্রতিদিন

কাতারে বেশ ভালো করেছে হাসান

২৩ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কাতারে বেশ ভালো করেছে হাসান

কাতারে এশিয়ান অ্যাথলেটিকস চ্যাম্পিয়নশিপে অংশ নিয়েছেন বাংলাদেশের পাঁচ অ্যাথলেট। ১০০ মিটার ও ৪০০ স্প্রিন্টে গতকালই ট্র্যাকে নেমেছেন তাঁরা। কেউই অবশ্য হিট পেরোতে পারেননি। বিকেএসপির কোচ আব্দুল্লাহেল কাফি কালের কণ্ঠ স্পোর্টসের মুখোমুখি হয়ে মূল্যায়ন করেছেন তাঁদের পারফরম্যান্স

 

কালের কণ্ঠ স্পোর্টস : বাংলাদেশের পাঁচ স্প্রিন্টারই কাল এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের ট্র্যাকে নেমেছেন, আপনার মূল্যায়নে কেমন করলেন তাঁঁরা?

আব্দুল্লাহেল কাফি : মোটামুটি পারফরম্যান্স হয়েছে। জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপের পর মাসখানেক ক্যাম্প করেছে ওরা, তা দিয়েই যতটা পারে চেষ্টা করেছে। হ্যাঁ কেউ একটু ভালো করেছে, আরেকজন একটু খারাপ তেমন তো আছেই।

প্রশ্ন : ভালোর দলে কাকে রাখছেন?

কাফি : অবশ্যই মোহাম্মদ হাসানকে। পুরো আসরেরই সর্বকনিষ্ঠ অ্যাথলেট ও। সেই হিসাবে ১০০ মিটারে ১০.৮৬ দৌড়ানো মোটেও খারাপ নয়। ওর এর আগের টাইমিংই ছিল ১১.১৫। তার মানে এ কয়দিনে ভালো উন্নতিও করেছে সে। আর আন্তর্জাতিক মিটে খুব কমই আমাদের স্প্রিন্টাররা দশের ঘরে দৌড়াতে পেরেছে। মেসবাহ তো কোনো বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপ, অলিম্পিক বা কমনওয়েলথ গেমসেও পারেনি। এশিয়ান ট্র্যাক অ্যান্ড ফিল্ডে অবশ্য দৌড়েছে। তবে এবারের হাসানের টাইমিং বেশ ভালো।

প্রশ্ন : জহির রায়হানের ওপর সবার চোখ ছিল, আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় সে-ই তো এখন আমাদের সবচেয়ে বড় আশা...

কাফি : তা ঠিক, তবে দোহায় জহির নিজের সেরাটা দিতে পারেনি। এর কারণও ছিল। একে তো ওর এইচএসসি পরীক্ষা চলছে এ মুহূর্তে। এর মধ্যেই ও এই মিটটাতে অংশ নিতে গিয়েছে। দুর্ভাগ্য এই সময়ে আবার জ্বরেও পড়েছে সে। তাতে তার সেরা টাইমিংটা আমরা পাইনি কাল। ৪৮.৫১-তে দৌড়েছে ৪০০ মিটার। গত চ্যাম্পিয়নশিপেই যেখানে ৪৬.৮৭-তে দৌড়েছিল ও, আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায়ও ৪৮.০০ ওর সেরা টাইমিং।

প্রশ্ন : সেই হিসাবে ইসমাইল তো হতাশ করেছেন?

কাফি : হ্যাঁ, জাতীয় চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর সে আর পারফরম্যান্সটা ধরে রাখতে পারেনি। সর্বশেষ আন্তঃবাহিনী অ্যাথলেটিকসে তৃতীয় হয়েছে ও। এসএ গেমসের জন্য বিকেএসপিতে ওর অনুশীলনটা ঠিকঠাক হয়নি। মেয়ে দুজন শিরিন ও সোহাগী আক্তারের পারফরম্যান্সও বেশ সাদামাটা।

মন্তব্য