kalerkantho

শুক্রবার । ২৪ মে ২০১৯। ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৮ রমজান ১৪৪০

বললেন কোহলি

আগে দল পরে ব্যাটিং অর্ডার

২০ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিশ্বকাপের দল একরকম ঠিকই ছিল ভারতের। যত আলোচনা একাদশে চার নম্বরে ব্যাট করবেন কে, তা নিয়ে। বিশ্বকাপ দল ঘোষণা হলেও এখনো নিশ্চিত নয় এই পজিশনে ব্যাট করবেন কে? প্রধান নির্বাচক এম এস কে প্রসাদের পছন্দ বিজয় শংকর। লোকেশ রাহুল, কেদার যাদবও আছেন ভাবনায়। অধিনায়ক বিরাট কোহলিও দ্বিধায়। ব্যাটিং, বোলিং, ফিল্ডিং সমানতালে করতে পারেন বলে বিজয় শংকরকে পছন্দ কোহলির। তবে ‘ইন্ডিয়া টুডে’কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে চার নম্বরে তাঁকেই পাঠানোর নিশ্চয়তা দিচ্ছেন না কোহলি, ‘অনেকগুলো সমন্বয় নিয়ে কাজ করেছি আমরা। বিজয় যখন এলো তখন বিকল্প বেড়েছে আরো একটা। ব্যাটিং, বোলিং, ফিল্ডিং তিনটিতেই নির্ভরতার নাম ও। ব্যাটিং করে অসাধারণ। অন্য দলেও এ ধরনের খেলোয়াড় আছে। এটা বিবেচনা করে রাখা হয়েছে বিজয়কে। এখনো কিছু জিনিস চূড়ান্ত করা বাকি। কে কোথায় ব্যাট করবে সিদ্ধান্ত নেব পরে।’

একটা সময় ছন্দ হারিয়ে ফেলেছিলেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। তাঁকে বাদ দিয়ে ঋষভ পান্টকে বিশ্বকাপের জন্য তৈরি করার দাবি জোরালো হতে থাকে ভারতজুড়ে। তবে ঠিক সময়েই ঘুরে দাঁড়িয়েছেন ধোনি। এ বছর চারটি ফিফটিসহ ওয়ানডেতে করেছেন ৩০০-র বেশি রান। টানা তিন ফিফটি করেছিলেন আবার অস্ট্রেলিয়া সফরে। ছন্দ হারানোর সময় ধোনিকে বাড়তি সুযোগ দেওয়া নিয়ে কোহলি জানালেন, ‘একটা সময় আমিও ছন্দ হারিয়ে ফেলেছিলাম। তখন আমার নিজের খেলাটা বোঝার জন্য সময় দিয়েছিল ধোনি। ভারতীয় ক্রিকেটের জন্য ও যা করেছে তাতে সুযোগ দেওয়াটা ধোনির জন্য উপহার নয়, এটা ওর পাওনা।’

৩৮ বছর ছুঁই ছুঁই বয়সেও আইপিএলে অনেক ম্যাচ বের করছেন ‘মিস্টার কুল’। কখনো ব্যাট হাতে ঝড় তুলে তো কখনো স্টাম্পের পেছন থেকে সঠিক নেতৃত্ব দিয়ে। বিশ্বকাপেও ধোনির ঠাণ্ডা মাথার এমন পরামর্শ ভারতের জন্য গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠবে বলে মনে করেন কোহলি, ‘প্রথম বল থেকে ৩০০তম বল পর্যন্ত খেলাটা ভালো বোঝে ধোনি। উইকেটের পেছনে এমন একজন মেধাসম্পন্ন ব্যক্তি পেয়ে নিজেকে ভাগ্যবান মনে করি আমি।’ ২০১১ বিশ্বকাপে ভারত শিরোপা জেতে ধোনির দুর্দান্ত নেতৃত্বে। ফাইনালে তাঁর ঠাণ্ডা মাথার ইনিংসটি পথ দেখায় ভারতকে। সেই ধোনি ক্যারিয়ারের শেষ বিশ্বকাপ খেলতে যাচ্ছেন ৩৪১ ওয়ানডের অভিজ্ঞতা নিয়ে। তাঁর সেরাটা তো কোহলি চাইবেনই। ইন্ডিয়া টুডে

মন্তব্য