kalerkantho


প্রীতি ফুটবল

তিতের কথা ইকার্দির মুখেও

১৫ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০০



তিতের কথা ইকার্দির মুখেও

আগের দিন কথাটি বলেছিলেন ব্রাজিলের কোচ আদেনর বাক্কি তিতে। কাল বললেন আর্জেন্টিনার ফরোয়ার্ড মাউরো ইকার্দি। ‘আর্জেন্টিনা-ব্রাজিলের লড়াই কখনোই প্রীতি ম্যাচ না’—এ কথায় অবশ্য নতুনত্ব বা চমক নেই কোনো। সত্যিই তো, ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা দ্বৈরথ আবার প্রীতি ম্যাচ হয় কিভাবে!

কাল সৌদি আরবের জেদ্দায় আরেক দফায় মুখোমুখি হচ্ছে দল দুটি। এর প্রস্তুতি পর্ব সেরেছে ব্রাজিল ২-০ গোলে সৌদিকে এবং আর্জেন্টিনা ৪-০ গোলে ইরাককে হারিয়ে। তবে দুই পরাশক্তিই নিজেদের সর্বোচ্চটা দিয়ে খেলেনি তাতে। আলবিসেলেস্তেদের ছিল নতুনের ছড়াছড়ি; সেলেসাওদের ছিল ফরমেশন নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা। তবে ‘সুপারক্লাসিকো’তে যে তা হবে না, সেটি ভালোই জানেন তিতে, ‘আর্জেন্টিনা সম্ভাব্য সেরাদের নিয়েই আমাদের মুখোমুখি হবে; আমরাও

তা-ই।’

ব্রাজিলের সেই সম্ভাব্য সেরায় থাকছেন সেরা সবাই। আর্জেন্টিনার তা নয়। সেরাদের সেরা লিওনেল মেসিই তো নেই! জাতীয় দল থেকে অনির্দিষ্টকালের বিশ্রামে রয়েছেন। কবে ফিরবেন, আদৌ ফিরবেন কি না—কেউ জানে না। আর বিশ্বকাপ ব্যর্থতার পর সব মিলিয়েই যে নতুন এক পথচলার শুরু আর্জেন্টিনার, তা-ই বলেছেন ইকার্দি, ‘আমরা এখন নতুন প্রজেক্টে রয়েছি। দলে অনেক নতুন খেলোয়াড় এসেছে। সবাই মিলে আমরা ভবিষ্যতের ভিত্তি তৈরি করছি, যা ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের দল প্রস্তুত হচ্ছে গুরুত্বপূর্ণ কিছুর জন্য। এই চক্রের জন্য যা খুব প্রয়োজন।’

ব্রাজিলের বিপক্ষে আর্জেন্টিনার আক্রমণভাগ সাজানো হতে পারে ইকার্দি, পাউলো দিবালা ও আনহেল কোরেয়াকে নিয়ে। নিজের সুযোগটা কাজে লাগাতে উন্মুখ ইন্টার মিলানের অধিনায়ক ইকার্দি, ‘আমি এখন খুব ভালো আছি। শারীরিক অবস্থা ভালো, পুরো দলের সঙ্গে পূর্ণোদ্যমে অনুশীলন করতে পারছি।’ ব্রাজিলের বিপক্ষে ম্যাচের গুরুত্ব ভালোই জানা তাঁর, ‘এ খেলা ঘিরে সবার প্রবল আগ্রহ থাকে। জাতীয় দলের হয়ে আগের সফরে কলম্বিয়ার মতো দুর্দান্ত দলের বিপক্ষে খেলেছি। কিন্তু ব্রাজিলের বিপক্ষে খেলার তাত্পর্য আরো অনেক বেশি। এটি কোনোভাবেই প্রীতি ম্যাচ না; কখনোই তা হবে না।’

সৌদি আরবের বিপক্ষে খুব সাবলীল ছিল না ব্রাজিল। একটাই ইতিবাচক দিক, বিশ্বকাপের পাঁচ ম্যাচে গোল না পাওয়া গাব্রিয়েল জেসুসের গোলে ফেরা। অধিনায়ক নেইমার তাতে ভীষণ খুশি, ‘গাব্রিয়েলের গোলে পাস দিতে পেরে আমি খুব খুশি। ওকে ঘিরে প্রবল সমালোচনা হয়েছে যা ওর প্রাপ্য না। এটি ওর প্রতি অন্যায় হয়েছে। এ কারণেই গাব্রিয়েলের গোলে আমি ততটাই খুশি হয়েছি, নিজে পাঁচ গোল করলেও যতটা হতাম না।’ বিশ্বকাপের প্রায়শ্চিত্তে ফর্মটা আর্জেন্টিনার বিপক্ষে টেনে নিতে পারেন কি না জেসুস, সেটিই এখন দেখার। এএফপি



মন্তব্য