kalerkantho



নেইমারের মনে দুশ্চিন্তার মেঘ

১৭ মে, ২০১৮ ০০:০০



নেইমারের মনে দুশ্চিন্তার মেঘ

নেইমার বিশ্বকাপে খেলতে পারবেন তো? ব্রাজিলিয়ানদের স্বপ্নে হেক্সা ধরা দেবে তো এবার? গতবার দলের সেরা তারকার ইনজুরিই তো সেই স্বপ্নকে দুঃস্বপ্ন বানিয়ে দিয়েছিল। এবার কী হবে? ভাবতেই অস্বস্তির চোরাকাঁটার খোঁচা ব্রাজিলিয়ানদের মনে। আর এই সময় খোদ নেইমারেরই-বা কী ভাবনা? অবশেষে কাল সমর্থকদের কাছে মনের সেই ভাবনা খুলেই প্রকাশ করেছেন সেলেসাওদের এই স্বপ্নসারথি।

তাঁর কথা, ‘এই সময়ে আমার চেয়ে দুর্ভাবনায় আর কেউ নেই। আমি জানি সবাই আমাকে নিয়ে উদ্বিগ্ন হয়ে আছে। তবে সত্যি বলতে, মাঠে ফেরা নিয়ে আমার চেয়ে বেশি শঙ্কায় নেই আর কেউ।’—ব্রাজিলিয়ান টিভি গ্লোবোতে বলেছেন ২৬ বছর বয়সী এই তারকা। এর আগেও নিজের এই মনোভাব কিছুটা প্রকাশ করেছিলেন তিনি, ‘ইনজুরি থেকে পেশাদার ফুটবলে ফেরার পথটা সব সময়ই জটিল। একটা ভয়, একটা জড়তা কাজ করেই স্বচ্ছন্দে পারফরম করার ক্ষেত্রে।’

এমন কথায় সমর্থকদের ভাবনা কমবে না বৈকি বাড়বেই। তবে এই বিশ্বকাপ ঘিরে নেইমারের স্বপ্নটা তো অনেক বড়। গতবারের স্বপ্নভঙ্গের পর এবার আরেকটি সুযোগ তাঁর সামনে সেই স্বপ্নপূরণের। ব্রাজিলিয়ানরা তাই আশায় বুক বাঁধতেই পারেন সেই লক্ষ্য ছুঁতে সব বাধাই পেরিয়ে যাবেন তিনি। নেইমারের পরের কথাগুলোতে সেই প্রতিশ্রুতিও আছে, ‘এটা খুব কঠিন সময় আমার জন্য। কারণ বিশ্বকাপটা অনেক কাছে। তবু ঈশ্বরকে ধন্যবাদ, আরেকটি সুযোগ পাচ্ছি আমি। বিশ্বকাপ জেতাটা আমার শৈশবের স্বপ্ন। এই কাপটা আমি নিজের করে নিতে চাই। হতে চাই বিশ্বচ্যাম্পিয়ন।’

গত ফেব্রুয়ারিতে ডান পায়ের মেটাটারসালে চোট পান তিনি। তাতে চিড় ধরা পড়ে। যে কারণে অস্ত্রোপচারের টেবিলে যেতে হয়। এরপর চলে পুনর্বাসনপ্রক্রিয়া। গত রবিবারেই প্যারিস সেন্ত জার্মেইয়ের হয়ে প্রথম অনুশীলনে ফিরেছেন তিনি। গত মঙ্গলবার তাঁকে রেখেই ব্রাজিলের ২৩ সদস্যের চূড়ান্ত দল ঘোষণা করেছেন তিতে। ১৪ জুন রাশিয়ায় বিশ্বকাপ উদ্বোধনের আগে ম্যাচ ফিটনেসের জন্য অবশ্য দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার সুযোগ পাবেন তিনি। ৩ জুন লিভারপুলের মাঠে ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে, এর তিন দিন পর ভিয়েনায় অস্ট্রিয়ার বিপক্ষে আরেকটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার সুযোগ রয়েছে নেইমারের সামনে। ১৭ জুন সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে শুরু হচ্ছে ব্রাজিলের হেক্সা জয়ের মিশন। এএফপি



মন্তব্য