kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০২২ । ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

বিশ্বকাপ প্রস্তুতি

আত্মবিশ্বাসের খোঁজে আজ মাঠে নামছে বাংলাদেশ

ক্রীড়া প্রতিবেদক    

৭ অক্টোবর, ২০২২ ০২:৩০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



আত্মবিশ্বাসের খোঁজে আজ মাঠে নামছে বাংলাদেশ

টি-টোয়েন্টিতে সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স যা, তাতে বুক ফুলিয়ে কিছু বলার মতো জায়গায় বাংলাদেশ নেই। তার ওপর আজ থেকে ক্রাইস্টচার্চের হ্যাগলি ওভালে শুরু হতে যাওয়া ত্রিদেশীয় সিরিজে প্রতিপক্ষ যখন গত বিশ্বকাপের ফাইনালিস্ট নিউজিল্যান্ড এবং সেমিফাইনাল খেলা পাকিস্তান, তখন সত্যিকার অর্থেই ‘আন্ডারডগ’ হিসেবে আসরটি শুরু করতে যাচ্ছে সাকিব আল হাসানের দল।

এক হিসেব ব্যাপারটি ইতিবাচকই। এই সংস্করণে যাচ্ছেতাই পারফরম্যান্সের কারণে ক্রিকেটারদের কাছে এবার তেমন কোনো প্রত্যাশাও নেই।

বিজ্ঞাপন

সেটি নেই মানে একেবারে চাপহীন হয়ে খেলতে নামার সুযোগ। সেই চাপ কেউ নিজেদের ওপর নিচ্ছেনও না। ব্যাটিং কোচ জেমি সিডন্সের যেমন এই আসর থেকে চাওয়া একটিই। আর তা হলো, নিউজিল্যান্ড ও পাকিস্তানের মতো দলকে চ্যালেঞ্জ জানানো। এটি পারলেই অস্ট্রেলিয়ায় বিশ্বকাপ খেলতে যাওয়ার আগে আত্মবিশ্বাসের পালে জোর হাওয়া লাগবে বলে মনে করেন তিনি। সবার কথা হুবহু এক না হলেও মূল সুর একই। আজ ত্রিদেশীয় সিরিজের উদ্বোধনী ম্যাচে পাকিস্তানের মুখোমুখি হওয়ার আগে মেহেদী হাসান মিরাজকেও তো জেতা নিয়ে কোনো টুঁ শব্দ করতে শোনা গেল না। বরং এই আসরে তাঁরা বিশ্বকাপের জন্য আত্মবিশ্বাসের খোঁজেই নিজেদের ব্যস্ত রাখবেন বলে জানালেন।  

বাংলাদেশ সময় আজ সকাল ৮টায় (নিউজিল্যান্ড সময় বিকেল ৩টা) শুরু হতে যাওয়া ম্যাচ সামনে রেখে বিসিবির পাঠানো ভিডিও বার্তায় মিরাজ যেন বিশ্বকাপেই চোখ রাখলেন বেশি, ‘বিশ্বকাপের আগে এ রকম ত্রিদেশীয় সিরিজ আমাদের দলকে অনেক উজ্জীবিত করবে। পাকিস্তান বিশ্বকাপে ভালো করেছে, ভালো ক্রিকেট খেলেছে এশিয়া কাপেও এবং নিউজিল্যান্ডের মাটিতে খেলব আমরা। আশা করি, বড় দুটি দলের সঙ্গে আমাদের আত্মবিশ্বাস ভালো থাকবে, যদি আমরা এখানে ভালো ক্রিকেট খেলতে পারি। প্রত্যেক ক্রিকেটারের প্রস্তুতি এখানে গুরুত্বপূর্ণ। যার যার জায়গা থেকে পারফরম করাটা গুরুত্বপূর্ণ। আমরা যদি এখানে ভালো পারফরম করতে পারি, তাহলে বিশ্বকাপে গিয়ে অনেক বেশি ভালো ক্রিকেট খেলতে পারব বলে আশা করছি। ’ 

এই সফরে অবশ্য আরো কিছু চ্যালেঞ্জ আছে বাংলাদেশের। এমনিতেই নিউজিল্যান্ডের কন্ডিশনে মানিয়ে নেওয়ার চ্যালেঞ্জটি থাকে সব সময়ই। এর আগে বেশির ভাগ সময়ই জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারির দিকে নিউজিল্যান্ডে গেছে বাংলাদেশ। এবার এমন সময়ে গেছে, যখন ক্রাইস্টচার্চে হাড়-কাঁপানো শীত। সেই সঙ্গে কিছু কিছু জায়গায় বরফও পড়ছে। বাজে সময়ের মধ্যে থাকা দলের জন্য আবহাওয়াও এবার বেশি প্রতিকূল তাই। যদিও মিরাজের দাবি, এই কন্ডিশনের সঙ্গেও তাঁরা বেশ ভালোভাবেই মানিয়ে নিয়েছেন। গত ২ অক্টোবর ক্রাইস্টচার্চে পৌঁছে যাওয়া দলের অধিনায়ক সাকিবের জন্য অপেক্ষাও ফুরিয়েছে পাকিস্তান ম্যাচের ঠিক আগের দিন। আরো আগেই তাঁর পৌঁছানোর কথা থাকলেও ভিসা ও ফ্লাইট জটিলতায় গতকাল স্থানীয় সময় সন্ধ্যায় এই অলরাউন্ডার দলের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন। তাতে বিশ্বকাপের জন্য আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে নেওয়ার আসরের শুরু থেকেই অধিনায়ককে পাচ্ছে বাংলাদেশ।



সাতদিনের সেরা