kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১ ডিসেম্বর ২০২২ । ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ ।  ৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

ইনস্টাগ্রামেও জনপ্রিয় হয়ে উঠছেন সানজিদা-কৃষ্ণা-রিতুপর্ণারা

ক্রীড়া প্রতিবেদক   

৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ১৬:১০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ইনস্টাগ্রামেও জনপ্রিয় হয়ে উঠছেন সানজিদা-কৃষ্ণা-রিতুপর্ণারা

বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত হয় ফেসবুক। সে তুলনায় পিছিয়ে থাকলেও ধীরে ধীরে ছবি শেয়ারের প্ল্যাটফর্ম ইনস্টাগ্রামের জনপ্রিয়তা বাড়ছে। সেলেব্রিটি থেকে সাধারণ মানুষও এখন ইন্সটাগ্রাম ব্যবহার করেন।  ফেসবুকের মালিকানাধীন অ্যাপটিতে জনপ্রিয় হয়ে উঠছেন সদ্য সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ জয়ী নারী দলের ফুটবলাররাও।

বিজ্ঞাপন

হিমালয়ের দেশ নেপাল থেকে দক্ষিণ এশিয়ার শ্রেষ্ঠত্ব  অর্জন করে দেশে ফিরে প্রশংসায় ভাসছে নারী ফুটবল দল। পাচ্ছে একের পর এক সংবর্ধনা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সাবিনা-সানজিদাদের নিয়ে লেখা হচ্ছে প্রশংসার পোস্ট। ফুটবলাররাও নিজেদের অনুভূতি শেয়ার করছেন ফেসবুক, ইনস্টাগ্রামে। নিজেদের দৈনন্দিন ও ফুটবল মাঠের মুহূর্তগুলো শেয়ার করছেন সমর্থকদের সঙ্গে।

মেয়েদের মধ্যে ইন্সটাগ্রামে সবচেয়ে বেশি ফলোয়ার এখন মিডফিল্ডার রিতুপর্ণা চাকমার। তাকে অনুসরণ করেন প্রায় ২৪ হাজারের বেশি অনুসারী। এরপরের অবস্থানেই আছেন উইঙ্গার সানজিদা আক্তার। তাকে অনুসরণ করেন প্রায় ২৩ হাজার ৪০০ জন। সাফ জয়ের পর ইন্সটাগ্রামে অনুসারী বেড়ে গেছে ফরোয়ার্ড কৃষ্ণা রানী সরকারের। ৩ হাজার থেকে বেড়ে এখন কৃষ্ণার ফলোয়ার ১১ হাজারের বেশি।

ইন্সটাগ্রাম এখন শুধু ব্যক্তিগত বা দৈনন্দিন জীবনের মুহূর্তগুলো অন্যদের সঙ্গে শেয়ার করার জায়গা নয়। ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো, লিওনেল মেসিরা ইনস্টাগ্রামে নিজেদের ছবি পোস্টের পাশাপাশি বিভিন্ন পণ্যের প্রচারণা করে থাকেন। এতে আয় করেন কাড়ি কাড়ি টাকা। কিন্তু এদেশের নারী ফুটবলাররা এখনো তেমন আয়ের উৎস খুঁজে পাননি।

ইন্সটাগ্রামের এই জনপ্রিয়তা বাড়ার ব্যাপারে ফরোয়ার্ড কৃষ্ণা রানী সরকার বলেছেন, 'এখন সব খেলোয়াড়রাই কিন্তু ফেসবুকের পাশাপাশি ইন্সটাগ্রাম, টুইটার ব্যবহার করে থাকে। আমাদের দেশে ইন্সটাগ্রামে জনপ্রিয়তা তেমন নেই তবুও আমাদের অনুসারী বাড়ছে। সাফ জয়ের পর ৩ হাজার থেকে আমার দশ হাজারের উপর ফলোয়ার হয়ে গেছে। ভালোই লাগছে। রোনালদো-মেসিরা তো ইন্সটাগ্রামে পোস্ট করে বিভিন্ন কম্পানি থেকে টাকাও আয় করে; কিন্তু আমাদের দেশে তো আর সে সুযোগ নেই। তবে সুযোগ এলে আমরাও তা কাজে লাগাব। '



সাতদিনের সেরা