kalerkantho

রবিবার । ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ । ১০ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ২৮ সফর ১৪৪৪

রাহুল দ্রাবিড়ও একদিন মারতে গিয়েছিলেন শোয়েবকে!

অনলাইন ডেস্ক   

১৯ আগস্ট, ২০২২ ১৫:২২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রাহুল দ্রাবিড়ও একদিন মারতে গিয়েছিলেন শোয়েবকে!

মাঠ ও মাঠের বাইরে নিপাট ভদ্রলোক হিসেবে পরিচিত রাহুল দ্রাবিড়।   খেলোয়াড়ী জীবন শেষে এখন তিনি ভারতের জাতীয় দলের কোচ, কিন্তু আচরণে কোনো পরিবর্তন আসেনি। সেই রাহুল দ্রাবিড়ও একদিন মেজাজ হারিয়েছিলেন। তেড়ে গিয়েছিলেন পাকিস্তানের সাবেক গতি তারকা শোয়েব আখতারকে মারতে! শান্ত স্বভাবের মানুষ হিসেবে পরিচিই দ্রাবিড়ের এমন আচরণ দেখে হতবাক হয়ে যান শোয়েব।

বিজ্ঞাপন

২০০৪ সালের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচের ঘটনা। যার স্মৃতিচারণ করে শোয়েব বলেছেন, 'ক্রিকেটের জেন্টলম্যানকে প্রথমবার আমি এমন আচরণ করতে দেখেছিলাম। সে ওই ম্যাচে আমার সঙ্গে ঝামেলায় জড়িয়েছিল। আমরা একে অপরের দিকে তেড়ে যাই। এবং সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ি। তার আগে যখন আমি বল করতে দৌড় শুরু করেছিলাম, সংঘর্ষের আগ মুহূর্তে মোহাম্মদ কাইফ সামনে থেকে সরে যায়। আমি তাকে কিছু বলিনি কিন্তু প্রচণ্ড রেগে ছিলাম। '

রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেস আরও বলেছেন, 'সেই রাগ থেকেই আমি কাইফ এবং যুবরাজকে আউট করেছিলাম। আমরা তখন জয়ের কাছাকাছি ছিলাম। তখন দ্রাবিড় হঠাৎ আমার দিকে তেড়ে আসে। প্রচণ্ড উত্তেজিত হয়ে পড়েছিল। আমি তাকে বলেছিলাম, "তুমি এত রেগে যাচ্ছ কেন? জানি সারা বিশ্বের আবহাওয়া বদলে যাচ্ছে, কিন্তু তুমিও লড়াই করতে পারো, এটা ভাবতেই পারছি না!" সত্যিই অসাধারণ ঘটনা ছিল সেটা। '

সেই ম্যাচে আগে ব্যাট করতে নেমে ভারতীয় দল ৪৯.৫ ওভারে মাত্র ২০০ রানে অল-আউট হয়ে গিয়েছিল। সতীর্থদের ব্যর্থতার মাঝে বরাবরের মতোই 'দ্য ওয়াল' রাহুল দ্রাবিড় সর্বোচ্চ ৬৭ রান করেছিলেন। পাকিস্তানের হয়ে ৪ উইকেট নিয়েছিলেন শোয়েব আখতার। খুব বেশি রানের লক্ষ্য না থাকলেও পাকিস্তানকে কিন্তু লড়াই করে ম্যাচ জিততে হয়েছিল। ৪ বল বাকি থাকতে ৩ উইকেটে ম্যাচটি জিতেছিল পাকিস্তান।



সাতদিনের সেরা