kalerkantho

শনিবার । ১ অক্টোবর ২০২২ । ১৬ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

নেইমারকে তাড়াতে গিয়ে এমবাপ্পে এখন একঘরে

অনলাইন ডেস্ক   

১৮ আগস্ট, ২০২২ ২২:০২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নেইমারকে তাড়াতে গিয়ে এমবাপ্পে এখন একঘরে

দুজনের সম্পর্কটা এখন ঠিক যেন এই ছবিটার মতোই। ছবি : গেটি ইমেজেস

বার্সেলোনা থেকে পিএসজিতে যাওয়ার পর কিলিয়ান এমবাপ্পের সঙ্গে কখনোই সদ্ভাব ছিল না ব্রাজিল সুপারস্টার নেইমারের। বলা চলে, এমবাপ্পে তাকে সহ্যই করতে পারেন না।  দলবদলের সর্বশেষ মৌসুম শেষে এমবাপ্পে তো নেইমারকে তাড়াতে উঠেপড়ে লেগেছিলেন। রিয়াল মাদ্রিদে যেতে রাজি হওয়া এমবাপ্পেকে বিশাল অঙ্কের বোনাস এবং দলের ব্যাপারে মাথা ঘামানোর অধিকার দিয়ে ধরে রাখে পিএসজি।

বিজ্ঞাপন

কিন্তু এত ক্ষমতা পেয়েও কাজে লাগাতে পারলেন না ফরাসি বিশ্বকাপজয়ী তারকা।

মঁপেলিয়ের বিপক্ষে নতুন মৌসুমের লিগে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচ ঘিরে পিএসজির অন্দরমহল এখন উত্তপ্ত। ম্যাচটিতে একবার পেনাল্টি নিয়ে ব্যর্থ হন এমবাপ্পে। পরের পেনাল্টিও তিনি নিতে চেয়েছিলেন, কিন্তু নেইমার নিজেই শট নিয়ে গোল করেন। এতে নাকি বেজায় চটে গেছেন এমবাপ্পে।  তাকে দেওয়া ক্ষমতা কাজে লাগিয়েই নাকি নেইমারকে পিএসজি থেকে বিদায় করতে চেয়েছিলেন! কিন্তু সেই চেষ্টা ব্যর্থই হয়েছে। বরং নেইমারসহ সবার কাছে পরিষ্কার হয়ে গেছে যে, এমবাপ্পে কী করতে চেয়েছিলেন! এতে নাকি পিএসজির খেলোয়াড়দের বেশির ভাগই ক্ষুব্ধ।

ওই ম্যাচ শেষে নেইমারের এক ভক্ত এমবাপ্পের সমালোচনা করে টুইট করেছিলেন। যাতে নিজে ভেরিফায়েড অ্যাকাউন্ট থেকে লাইক দিয়ে নেইমার বুঝিয়ে দেন যে, তিনি সব জানেন। আসলে চুক্তি অনুযায়ী মাঠের নেতৃত্বও এমবাপ্পের হাতে দিয়েছিল পিএসজি। মানে পেনাল্টি থেকে শুরু করে মাঠের সব সিদ্ধান্ত নাকি এমবাপ্পেই নেবেন। যা মেসি-নেইমার-রামোসদের জন্য অসম্মানের। ফরাসি সংবাদমাধ্যম ‘লা পারিসিয়ান’ বলছে, ঠিক এ কারণেই এমবাপ্পের এত ক্ষমতা মানতে পারছেন না পিএসজি খেলোয়াড়দের একটি বড় অংশ। তাই দলের ভেতর এমবাপ্পে এখন প্রায় নিঃসঙ্গ, একঘরে! এখন শুধু পরবর্তী নাটক দেখার অপেক্ষা।



সাতদিনের সেরা