kalerkantho

সোমবার । ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ । ১১ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ২৯ সফর ১৪৪৪

‘সামনে এশিয়া কাপ, কিন্তু টি-টোয়েন্টিতে আমরা ভালো দল না’

অনলাইন ডেস্ক   

১৮ আগস্ট, ২০২২ ১৯:২৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



‘সামনে এশিয়া কাপ, কিন্তু টি-টোয়েন্টিতে আমরা ভালো দল না’

ছবি : মীর ফরিদ

চলতি মাসের ২৭ তারিখ থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাতে বসতে যাচ্ছে এশিয়া কাপের আসর। আরো আগেই সাকিব আল হাসানকে অধিনায়ক করে দল ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ। সেই দলে মাত্র দুজন ওপেনার। সাকিব-মুশফিক-সাব্বিরদেরকেও ওপেনিংয়ে দেখা যেতে পারে! এতে কি বদলাবে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে টাইগারদের পারফরম্যান্সের চিত্র? বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন অবশ্য এতটা আশা করছেন না।

বিজ্ঞাপন

তবে তিনি দলের মানসিকতায় আমূল পরিবর্তন আনার কথা বললেন।

ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটে বাংলাদেশ খুবই দুর্বল। দলে নেই কোনো হার্ডহিটার। আজ বৃহস্পতিবার মিরপুর শের-ই-বাংলায় পাপন এসব স্বীকার করে নিয়ে বলেন, ‘সামনে এশিয়া কাপ। আমাদের সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হলো, টি-টোয়েন্টিতে আমরা ভালো দল না। কে প্রতিপক্ষ সেটা বড় কথা না; আমাদের দলটা আসলে অত শক্তিশালী না। এসব বিষয়ে আলোচনা করেছি। একটা সিদ্ধান্ত নিয়েছি যে, আমরা সব চিন্তাধারা মাইন্ডসেট সব কিছু হঠাৎ করে বদলে দিতে চাচ্ছি এই এশিয়া কাপ থেকে। পরে আমরা দেখতে চাচ্ছি নতুন করে ফ্রেশ স্টার্ট করা যায় কি না। ’

কয়েক মাস ধরেই বাংলাদেশ দলে চলছে চোটের হানা। চোটের কারণে এই মুহূর্তে নেই লিটন কুমার দাস এবং নুরুল হাসান সোহান। এটাকে বড় চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখছেন পাপন, ‘আমাদের জন্য সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হলো, টি-টোয়েন্টিতে যার প্রথম পছন্দ হিসেবে দলে থাকত; আপনাদের (সাংবাদিক) যদি দল বানাতে বলি আপনারাও লিটন দাস আর তামিমকে রাখতেন ওপেনিংয়ে। এই দুজনই নাই। এটা বড় চ্যালেঞ্জ। আবার মিডল অর্ডারের শেষে ফিনিশিংয়ের জন্য কাউকে পছন্দ করতে বললে চলে আসত সোহানের নাম। এই ক্রিকেটাররাই এখন নাই। ’

ছয় দলের এশিয়া কাপ অবশ্যই বড় একটা প্রতিযোগিতা। পাপনের মতে, বিশ্বকাপের পরই এশিয়া কাপের স্থান। এবার দলে পরিবর্তন আনলেও নাটকীয় কোনো সাফল্যের আশা করছেন না পাপন, ‘এশিয়া কাপ কিন্তু হালকা কিছু নয়, বিশ্বকাপের পরই এইটা। গত বিশ্বকাপের পারফরম্যান্স তো খুবই খারাপ ছিল। হঠাৎ করে এটা থেকে বের হতে পারব কিনা জানি না, তবে আমাদের মাথায় যদি চিন্তাধারাটা যদি ও রকম থাকে―আমরা উন্নতি করতে চাই, তাহলে সম্ভব। যদি এশিয়া কাপ থেকেই শুরু না করি, তাহলে বিশ্বকাপে গিয়ে অবস্থা আরো খারাপ হবে। তাই আমরা একটা আমূল পরিবর্তন আনার চেষ্টা করছি। ’



সাতদিনের সেরা