kalerkantho

মঙ্গলবার । ৪ অক্টোবর ২০২২ । ১৯ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

আগামী আসরে আরো তারকাশূন্য হয়ে যাবে বিপিএল

অনলাইন ডেস্ক   

১৪ আগস্ট, ২০২২ ১৯:৫০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আগামী আসরে আরো তারকাশূন্য হয়ে যাবে বিপিএল

বিশ্বজুড়ে এখন টি-টোয়েন্টি ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগের রমরমা চলছে। আইপিএল, বিগ ব্যাশ, পিএসএলর মতো বড় লিগগুলো তো আছেই, সেইসঙ্গে জন্ম হচ্ছে নতুন নতুন লিগের। বাংলাদেশ প্রিমিরার লিগের (বিপিএল) জন্য জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারিতে উইন্ডো রাখা হয়েছে। কিন্তু একই সময় আরব আমিরাত এবং দক্ষিণ আফ্রিকায় দুটি টি-টোয়েন্টি লিগ শুরু হতে যাচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

যার ফলে বিপিএল তারকাশূন্য হওয়ার উপক্রম হয়েছে।

ক্রিকইনফোর এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আগামী বিপিএল থেকে পরবর্তী তিন বছরের জন্য অংশগ্রহণকারী ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর সঙ্গে তিন বছরের চুক্তি করতে চায় বিসিবি। এতে দল গঠন ও ক্রিকেটার তৈরির কাজ ভালোভাবে করা যাবে। ২৮ আগস্ট পর্যন্ত আগ্রহী ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর নাম জমা দেওয়ার সময়সীমা বেঁধে দেওয়া হয়েছে। শুধু চুক্তি করলেই তো হবে না, লিগ জাঁকজমক ও প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ করে তুলতে আন্তর্জাতিক তারকাদের প্রয়োজন।

এমনিতেই বিপিএলে বড় আন্তর্জাতিক তারকাদের খুব একটা দেখা যায় না। নতুন দুটি লিগ চালু হওয়ায় সংকট আরো বাড়বে। তবে বিসিবির ক্রিকেট অপারেশনস কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস মনে করেন, বড় তারকারাও বিপিএলে আসবে। তিনি বলেন, ‘শিডিউল নিয়ে এই জটিলতায় শুধু আমরাই না, অন্য সদস্য দেশগুলোও ভুগছে। আমাদের দুই-তিনজন গুরুত্বপূর্ণ ক্রিকেটার আমাদের ঘরোয়া লিগে খেলবে। তবে আমি কারো নাম উল্লেখ করতে চাই না, যারা সাধারণত বিদেশি লিগে খেলে থাকেন, তারা এই লিগ মিস করবে। তবে আমরা আশা করি, বিদেশি খেলোয়াড়েরা আমাদের লিগে খেলতে আসবে। ’

সর্বশেষ বিপিএলে ফাফ ডুপ্লেসিস, মঈন আলী, সুনিল নারাইন, ডিজে ব্র্যাভো, আন্দ্রে ফ্লেচার, আন্দ্রে রাসেল, মুজিব উর রহমানদের মতো তারকারা বিপিএলে খেলেছেন। এদের মাঝে প্রায় সবাই আসন্ন বিপিএলে খেলবেন না। তারা দক্ষিণ আফ্রিকা এবং আরব আমিরাতের লিগে ইতিমধ্যে নিশ্চিত হয়ে গেছেন। এ ছাড়া ডিসেম্বর থেকে ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত উইন্ডো পাওয়া বিগ ব্যাশে খেলবেন রশিদ খান, অ্যালেক্স হেলস, রিলি রুশোরা। এমনকি দেশের বড় তারকাদের সামনেও এসব বিদেশি লিগে খেলার হাতছানি আছে। সে ক্ষেত্রে অবশ্য অনাপত্তিপত্রের (এনওসি) বাধ্যবাধকতার কথা স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন জালাল ইউনুস।



সাতদিনের সেরা