kalerkantho

সোমবার । ১৫ আগস্ট ২০২২ । ৩১ শ্রাবণ ১৪২৯ । ১৬ মহররম ১৪৪৪

ভালো খেলার সঙ্গে দর্শকদের 'আনন্দ' উপহার দিতে চায় মেয়েরা

ক্রীড়া প্রতিবেদক   

২৫ জুন, ২০২২ ১৮:৩৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভালো খেলার সঙ্গে দর্শকদের 'আনন্দ' উপহার দিতে চায় মেয়েরা

ছবি : মীর ফরিদ

মালয়েশিয়ার বিপক্ষে ৬-০ গোলের জয় আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে দিয়েছে বাংলাদেশের মেয়েদের। সাবিনা-কৃষ্ণারাও ভাবেননি তাঁরা এত বড় জয় পাবেন। কমলাপুরে ফুটবল পায়ে সুরভি ছড়িয়ে এখন দ্বিতীয় ম্যাচে আরো ভালো পারফরম্যান্স উপহার দিতে চায় গোলাম রব্বানী ছোটনের দল।

আগামীকাল রবিবার কমলাপুর বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহি মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে মালয়েশিয়ার মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ নারী ফুটবল দল।

বিজ্ঞাপন

সন্ধ্যা ৬টায় শুরু হবে ম্যাচটি।  

গত বৃহস্পতিবার প্রথম প্রীতি ম্যাচে র‍্যাংকিংয়ে ৬১ ধাপ এগিয়ে থাকা মালয়েশিয়াকে দাঁড়াতেই দেননি সাবিনারা। শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত ছন্দময় ফুটবল খেলে প্রতিপক্ষকে কোণঠাসা করে রাখে ছোটনের দল। মেয়েদের এমন দাপুটে পারফরম্যান্স ও একের পর এক গোল দেখে মুখে হাসি নিয়ে ফিরেছে গ্যালারিতে থাকা সমর্থকরা। দ্বিতীয় ম্যাচেও তাই ভালো খেলা ও সমর্থকদের আনন্দ উপহার দিতে চায় মেয়েরা।  

আজ বিকেলে সংবাদমাধ্যমে জাতীয় দলের কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন বলেছেন, 'পরিকল্পনা অনুযায়ী আমরা একটা ম্যাচ খেলেছি। মেয়েরা তাদের সামর্থ্য অনুযায়ী সর্বোচ্চটা দিয়েই খেলেছে এবং আমরা ভালোভাবেই জয়লাভ করেছি। এখন আমাদের সামনে আরেকটা ম্যাচ আছে, ম্যাচটা আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। মেয়েদের কাছে বার্তা থাকবে, যেহেতু আমরা তাদের (মালয়েশিয়া) বিপক্ষে একটা ম্যাচ খেলেছি, আমাদের সম্পর্কে তারা পুরো ধারণাটাই পেয়েছে। এ ম্যাচেও আমরা সর্বশক্তি প্রয়োগ করব, পরিকল্পনা অনুযায়ী খেলব। আগেও বলেছি আমরা ভালো খেলব, দর্শকদের আনন্দ দেব, ইনশাআল্লাহ জয় নিয়ে ফিরব। '

কোচ ছোটনের সুরেই সুর মিলিয়েছেন অধিনায়ক সাবিনা খাতুন। ভালো ফুটবল খেলে সমর্থকদের আনন্দ উপহার দিতে চান বাংলাদেশ অধিনায়ক, 'এর আগের ম্যাচটা যেহেতু আমরা ভালোভাবে শুরু করতে পেরেছিলাম, শেষ করেছিও ভালোভাবে। আগামীকাল (রবিবার) আমাদের লক্ষ্য থাকবে, দর্শকদের বিনোদন দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে বাংলাদেশের মানুষকে ভালো খেলা উপহার দেওয়া। দর্শক যখন মাঠে আসে, ভালো খেলা দেখার আশা নিয়েই আসে। আমাদের চেষ্টা করব, তারা যেন খুশি হয়ে বাড়ি ফিরতে পারে। '



সাতদিনের সেরা