kalerkantho

শনিবার । ২ জুলাই ২০২২ । ১৮ আষাঢ় ১৪২৯ । ২ জিলহজ ১৪৪৩

শ্যুটিংয়ে ৫০ বন্দুক!

ক্রীড়া প্রতিবেদক   

৭ জুন, ২০২২ ২৩:১১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শ্যুটিংয়ে ৫০ বন্দুক!

গুলশানে একসঙ্গে ৫০টি বন্দুক! এগুলো কোনো আগ্নেয়াস্ত্র নয়, ৫০টি এয়ার রাইফেল আনা হয়েছে শ্যুটারদের জন্য। জার্মানির ওয়ালতার কম্পানির কাছে থেকে এগুলো আমদানি করেছে বাংলাদেশ শ্যুটিং স্পোর্টস ফেডারেশন।  

ঢাকা এবং ঢাকার বাইরে বিভিন্ন ক্লাব থেকে দেওয়া চাহিদার ভিত্তিতে এই অস্ত্রগুলো কিনেছে ফেডারেশন। এখানে শিক্ষানবীশ শ্যুটার থেকে শুরু করে দেশের সেরা শ্যুটারদের মানের মোট চার ধরনের রাইফেল কেনা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

ফেডারেশনের মহাসচিব ইন্তেখাবুল হামিদ অপু মনে করেন, ‘আধুনিক রাইফেলগুলোর কারণে আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় আমাদের শ্যুটারদের ফল আরো ভালো হবে।  

আমাদের প্রথম সারির শ্যুটাররা সাধারণত ৮/৯ বছরের পুরনো অস্ত্র ব্যবহার করে। অথচ প্রতি দুই বছরে স্পোর্ট রাইফেলগুলোর মান সামান্য উন্নত হয়, তাতেই স্কোরের পার্থক্য হয়ে যায় অনেক। এবার সেই সুবিধা আমাদের শ্যুটাররাও নিতে পারবে আশা করি। ’

দুই বছর আগে অস্ত্র কেনায় শুল্ক ফাঁকির অভিযোগ উঠেছিল বেশ কয়েকজন নামি শ্যুটারের বিরুদ্ধে। তাদেরকে তলবও করেছিল জাতীয় রাজস্ব বোর্ড। এবার সরকার কিছু শুল্ক মওকুফ করেছে এবং বাকিটা ফেডারেশন পরিশোধ করেই নিয়ে এসেছে অস্ত্রগুলো। তবে মহাসচিব এয়ার রাইফেল ও এয়ার পিস্তলের ক্ষেত্রে আইন শিথিল করার অনুরোধ জানিয়েছেন, ‘এগুলো আগ্নেয়াস্ত্র নয়, স্পোর্ট এয়ার রাইফেল। এরপরও এসব আনতে গেলে নানা বাধার মুখোমুখি হই আমরা। বাইরে খেলতে গেলেও পোহাতে হয় নানা ঝামেলা, ছয় জায়গা থেকে অনুমতি নিতে হয়। অথচ ভারতে এত কিছু করতে হয় না। আশা করি, আমাদের দেশেও এয়ার রাইফেল ও এয়ার পিস্তলের ক্ষেত্রে নিয়ম-কানুন শিথিল করলে শ্যুটারদের সুবিধা হবে। ’



সাতদিনের সেরা