kalerkantho

শনিবার । ২ জুলাই ২০২২ । ১৮ আষাঢ় ১৪২৯ । ২ জিলহজ ১৪৪৩

মাহমুদ জানেন না সাকিবকে নিয়ে কেন বারবার কথাটা আসে!

ক্রীড়া প্রতিবেদক    

১ জুন, ২০২২ ২০:০৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মাহমুদ জানেন না সাকিবকে নিয়ে কেন বারবার কথাটা আসে!

নিয়মিত বিরতিতেই বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসানকে বলতে শোনা যায় কথাটি। সাকিব আল হাসান কখন খেলবেন আর কখন খেলবেন না, তা নিয়ে কখনোই নিশ্চিন্ত হতে না পারার অনিশ্চয়তা লুকান না এই ক্রিকেট প্রশাসক। নানা সময়েই ছুটি নিয়ে টেস্ট খেলা এড়িয়ে গেছেন সাকিব। তাতে এমন মতও এখন প্রকাশ্য যে এই অলরাউন্ডার টেস্ট খেলতে চান না।

বিজ্ঞাপন

ক্রিকেট প্রশাসন থেকে সাধারণ ক্রিকেটপ্রেমীদের মধ্যে এই ধারণার চর্চা এত বেশি যে বিসিবি পরিচালক ও জাতীয় দলের টিম ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদেরও তা অজানা নয়। তাঁকেও নানা সময়ে সাকিবের খেলতে না চাওয়া নিয়ে সোচ্চার হতে দেখা গেছে। এমনকি গত এপ্রিলে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের আগে যখন সাকিব যেতে চাইছিলেন না, তখন বাংলাদেশ দলের সাবেক অধিনায়ককে বেশ কড়া প্রতিক্রিয়াও ব্যক্ত করতে দেখা গেছে। অথচ সেই মাহমুদের মুখেই বুধবার শোনা গেল ভিন্ন কথা। সাকিব টেস্ট খেলতে চান না, এই কথাটি বারবার কেন হয়, তা নিয়ে উল্টো বিস্ময়ই প্রকাশ করতে দেখা গেল মাহমুদকে।

মমিনুল হক টেস্ট দলের নেতৃত্ব ছেড়ে দিতে চাওয়ায় এখন আরেকজন অধিনায়ক ঠিক করতে হচ্ছে বিসিবিকে। সম্ভাব্যদের মধ্যে অন্যতম নাম সাকিবের। কিন্তু তাঁকে টেস্টে সব সময় পাওয়া যাবে তো? নেতৃত্ব ইস্যুতে এমন প্রশ্ন সবার আগে চলে আসাও তাই বিচিত্র নয়, এলোও। তবে মাহমুদ মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে সংবাদমাধ্যমকে বললেন অন্য কথা।

এমনকি নেতৃত্ব দেওয়া হলে সাকিবের মধ্যে পরিবর্তন আসতে পারে বলেও মন্তব্য করলেন মাহমুদ, ‘সাকিব সব সময় টেস্ট খেলতে চায় এখন। আমি জানি না কেন কথাটি বারবার আসে যে সাকিব টেস্ট খেলতে চায় না। সাকিবের সঙ্গে যতবার কথা বলেছি, সে বলে আমি অন্য সংস্করণের চেয়ে টেস্টই বেশি উপভোগ করি। আমি সব সময় টেস্ট খেলতে চাই। যদি সাকিব খেলতে চায়, সাকিব দিতে চায়, আমি মনে করি তাতে সাকিবেরও একটা পরিবর্তন আসতে পারে। আমি বলছি না যে সাকিবই টেস্ট অধিনায়ক হবে বা তামিমও আছে। মাহমুদ উল্লাহ যেহেতু ছেড়ে দিয়েছে (টেস্ট খেলা), মুশফিকও আছে। তবে সে (সাকিব) নেবে কি না, সেটিও বড় ব্যাপার। ’



সাতদিনের সেরা