kalerkantho

সোমবার । ২৭ জুন ২০২২ । ১৩ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৬ জিলকদ ১৪৪৩

পরাজয় শঙ্কায় বাংলাদেশ; ভরসা সেই লিটন-মুশফিক

অনলাইন ডেস্ক   

২৬ মে, ২০২২ ১৭:১৬ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



পরাজয় শঙ্কায় বাংলাদেশ; ভরসা সেই লিটন-মুশফিক

ছবি : মীর ফরিদ

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ঢাকা টেস্টে চরম ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়েছে বাংলাদেশ। ২৩ রানের মধ্যে নেই হয়ে গেছে ৪ উইকেট! 'ডাক' মেরেছেন দুজন। ১৪১ রান পিছিয়ে দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করা বাংলাদেশ। শুরু থেকে দুই ওপেনারই নড়বড়ে ছিলেন।

বিজ্ঞাপন

দলের স্কোরবোর্ডে ১৫ রান যোগ হতেই বিপত্তি। আসিথা ফার্নান্দোর বলে বদলি ফিল্ডার কামিন্দু মেন্ডিসের তালুবন্দি হন তামিম। ১১ বল খেললেও তার নামের পাশে শূন্য রান। প্রথম ইনিংসেও তিনি এই আসিথার বলেই 'ডাক' মেরেছিলেন।

ক্যারিয়ারে এ প্রথমবার টেস্টের দুই ইনিংসেই 'ডাক' মারলেন তামিম। এরপর উইকেটে আসেন নাজমুল হোসেন শান্ত। প্রথম ইনিংসের মতো তিনিও ব্যর্থ। ২ রান করে জয়াবিক্রমার দারুণ থ্রোতে ফিরেন রান-আউট হয়ে। অধিনায়ক মমিনুল হক চার নেমে কিছুই করতে পারেননি। কাসুন রাজিথার বলে উইকেটকিপারের গ্লাভসে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন শূন্য রানে!  আম্পায়ার আউট না দেওয়ায় রিভিউ নিয়ে জিতে যায় শ্রীলঙ্কা।

স্কোরবোর্ডে আর ৪ রান যোগ হতেই বিদায় হন মাহমুদুল (১৫)। আসিথার বলে ক্যাচ নেন কুশল মেন্ডিস। চতুর্থ দিন শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৪ উইকেটে ৩৪ রান। তারা এখনো লঙ্কানদের থেকে ১০৭ রান পিছিয়ে। মুশফিকুর রহিম ১৪* এবং লিটন কুমার দাস ১* রানে অপরাজিত আছেন। আগামীকাল শুক্রবার ম্যাচের শেষদিনে প্রথম ইনিংসের জোড়া সেঞ্চুরিয়ান এই দুজনের ওপরই ভরসা রাখবে বাংলাদেশ। আজ আসিথা ফার্নান্দো নিয়েছেন ১২ রানে ২ উইকেট। কাসুন রাজিথা নিয়েছেন ১টি।

এর আগে আজ মঙ্গলবার ম্যাচের চতুর্থ দিনে ৫০৬ রানে নিজেদের প্রথম ইনিংসে অল আউট হয় শ্রীলঙ্কা। ৫ উইকেটে ২৮২ রান নিয়ে লঙ্কানরা আজ দিন শুরু করেছিল। দুই অপরাজিত ব্যাটার অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজ আর দিনেশ চান্দিমালের জুটি ভাঙা যাচ্ছিল না। দুজনই তুলে নেন সেঞ্চুরি। ম্যাথুজ ২৭৪ বলে আর চান্দিমাল ১৮১ বলে তিন অঙ্ক ছুঁয়ে ফেলেন। অবশেষে চা বিরতির পর চান্দিমালকে তামিম ইকবালের তালুবন্দি করে এই জুটি ভাঙেন এবাদত হোসেন। ২১৯ বলে ১২৪ রানের ইনিংসে চান্দিমাল হাঁকিয়েছেন ১১টি চার এবং ১টি ছক্কা। ম্যাথুজ-চান্দিমালের ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে এসেছে ১৯৯ রান।

এরপর দ্রুত শেষ হয়ে যায় শ্রীলঙ্কার প্রথম ইনিংস। উইকেটকিপার নিরোশান ডিকাভেলাকে (৯) লিটন দাসের গ্লাভসবন্দি করে চতুর্থ শিকার ধরেন সাকিব। এই অলরাউন্ডারের পঞ্চম শিকার প্রবীন জয়াবিক্রমা (০)। ক্যারিয়ারে ১৯তম বারের মতো পাঁচ বা ততোধিক উইকেট নিলেন সাকিব। পেসার এবাদতও কম যাননি। রমেশ মেন্ডিসকে (১০) বোল্ড করে ধরেন চতুর্থ শিকার। সাকিবের করা ১৬৬তম ওভারের প্রথম বলেই আসিথা ফার্নান্দো রান আউট হলে ৫০৬ রানে অল আউট হয় শ্রীলঙ্কা। তাদের লিড হয় ১৪১ রানের। ৪০.১ ওভার বল করে ১১ মেডেনসহ ৯৬ রানে সাকিব নেন ৫ উইকেট। আর ৩৮ ওভারে ৪ মেডেনসহ ১৪৮ রান দিয়ে এবাদতের শিকার ৪টি।



সাতদিনের সেরা