kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৮ জুন ২০২২ । ১৪ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৭ জিলকদ ১৪৪৩

চার ফুটবলারের জন্য অপেক্ষায় কাবরেরা

ক্রীড়া প্রতিবেদক   

২৬ মে, ২০২২ ১৬:৩০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



চার ফুটবলারের জন্য অপেক্ষায় কাবরেরা

এশিয়ান কাপ বাছাইয়ের চূড়ান্ত দল হবে ২৩ জনের কিন্তু হাভিয়ের কাবরেরা ঘোষণা করেছেন ২৭ জনের নাম। চোটে পড়া বসুন্ধরা কিংসের চার ফুটবলারকে দলে নেওয়ার জন্য শেষ পর্যন্ত অপেক্ষা করছেন এই স্প্যানিয়ার্ড। মেডিক্যাল পর্যেবক্ষণ করে চার ফুটবলার দলের সঙ্গে ইন্দোনেশিয়া যেতে পারবেন কি না সেটা সন্ধ্যার মধ্যে নিশ্চিত করবেন কাবরেরা।  

আজ সকালে এই চার ফুটবলার টিম হোটেলে গিয়ে নিজেদের বর্তমান অবস্থান তুলে ধরে ধরেছেন।

বিজ্ঞাপন

এরপর নিজেদের ক্লাবে ফিরে গেছেন তারা।  এর আগে বুধবার সন্ধ্যা কিংস ক্লাবে গিয়ে চার ফুটবলারের চোটের অবস্থা দেখে এসেছেন কাবরেরা ও দলের ফিজিও।

বৃহস্পতিবার রাত ৩টা ৪৫ মিনিটের ফ্লাইটে ইন্দোনেশিয়ার উদ্দেশ্যে দেশ ছাড়বে বাংলাদেশ দল। এর আগে আজ দুপুরে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনে আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে দলের সার্বিক অবস্থা তুলে ধরেন কাবরেরা। বসুন্ধরা কিংসের চার ফুটবলার; ফরোয়ার্ড সুমন রেজা ও মতিন মিয়া, মিডফিল্ডার মাশুক মিয়া জনি ও ডিফেন্ডার তারিক কাজীর চোটের ব্যাপারে কাবরেরা বলেন, 'তাদের পরীক্ষা করা হয়েছে। আমাদের চিকিৎসকরা চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে। তবে এই চার ফুটবলারের দলে ঢোকার সুযোগ খুবই, খুবই কম। আমি আপনাদের বলতে পারি তাদের দলে সুযোগ পাওয়ার সম্ভাবনা ৯৫ শতাংশ কম। ' ফুটবলাররাও ইনজুরি নিয়ে খেলতে চাইছে না বলে জানা গেছে।  

পর্যবেক্ষণ শেষে তবু শেষ পর্যন্ত যদি এই চারজনের মধ্যে এক বা দুজন ইন্দোনেশিয়া যাওয়ার জন্য ফিট থাকেন তখন এই ২৭ জন থেকে কে বা কারা বাদ পড়বেন এ ব্যাপারে কোচ সিদ্ধান্ত নেবেন। কোচের উত্তর, 'পজিশন অনুযায়ী খেলোয়াড় বাদ দেওয়া হবে। '

কাবরেরার ২৭ সদস্যের দলে একেবারেই নতুন শেখ জামালের গোলকিপার মোহাম্মদ নাঈম, উত্তর বারিধারার মিডফিল্ডার পাপন সিং ও সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবের মিডফিল্ডার সাজ্জাদ হোসেন। প্রাথমিক দল থেকে বাদ পড়েছেন চট্টগ্রাম আবাহনীর মিডফিল্ডার সোহেল রানা, আবাহনীর মিডফিল্ডার আবু সাইদ ও শেখ জামালের গোলকিপার মিতুল মারমা। এ ছাড়া ইনজুরির কারণে ক্যাম্প থেকে আগেই বাদ পড়েছেন হেমন্ত ভিনসেন্ট বিশ্বাস ও সাদ উদ্দিন।

কাবরেরার ২৭ সদস্যের দল :
গোলকিপার : আনিসুর রহমান জিকো (বসুন্ধরা কিংস), আশরাফুল রানা (শেখ রাসেল) ও মোহাম্মদ নাঈম (শেখ জামাল)।

ডিফেন্ডার : টুটুল হোসেন বাদশা ( আবাহনী লিমিটেড), রিয়াদুল হাসান রাফি (সাইফ স্পোর্টিং), রহমত মিয়া (শেখ রাসেল), রায়হান হাসান (শেখ জামাল), ইসা ফয়সাল (পুলিশ), ইয়াসিন আরাফাত (বসুন্ধরা কিংস), বিশ্বনাথ ঘোষ (বসুন্ধরা কিংস), রিমন হোসেন (বসুন্ধরা কিংস), তারিক কাজী ( বসুন্ধরা কিংস)।

মিডফিল্ডার : জামাল ভুঁইয়া (সাইফ স্পোর্টিং), মেরাজ হোসেন অপি (সাইফ স্পোর্টিং), পাপন সিং (উত্তর বারিধারা), সোহেল রানা (বসুন্ধরা কিংস), বিপলু আহমেদ (বসুন্ধরা কিংস), আতিকুর রহমান ফাহাদ (বসুন্ধরা কিংস), সাজ্জাদ হোসেন (সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব), মাশুক মিয়া জনি ( বসুন্ধরা কিংস)।

ফরোয়ার্ড : মোহাম্মদ ইব্রাহিম (বসুন্ধরা কিংস), রাকিব হোসাইন (আবাহনী লিমিটেড), জাফর ইকবাল (মোহামেডান), ফয়সাল আহমেদ ফাহিম (সাইফ স্পোর্টিং), মাহাবুবুর রহমান সুফিল (বসুন্ধরা কিংস), সুমন রেজা (বসুন্ধরা কিংস), মতিন মিয়া ( বসুন্ধরা কিংস)।



সাতদিনের সেরা