kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৩০ জুন ২০২২ । ১৬ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৯ জিলকদ ১৪৪৩

এএফসি কাপে মোহনবাগানের বিপক্ষে পরিসংখ্যান বদলে দিতে চায় বসুন্ধরা কিংস

ক্রীড়া প্রতিবেদক   

২০ মে, ২০২২ ১৫:৩৪ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



এএফসি কাপে মোহনবাগানের বিপক্ষে পরিসংখ্যান বদলে দিতে চায় বসুন্ধরা কিংস

এএফসি টুর্নামেন্টে মোহনবাগান ধাঁধা এখনো পার হতে পারেনি বাংলাদেশের কোনো ফুটবল ক্লাব। এশিয়ান ক্লাব চ্যাম্পিয়নশিপের পর  ২০০৪ সালে এএফসি কাপ শুরু হওয়ার পর থেকে এই দলটির বিপক্ষে জয় যেন অধরা হয়েই আছে বাংলাদেশি ক্লাবগুলোর কাছে। সেই অপেক্ষার অবসান ঘটাতে মরিয়া হয়ে আছে বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়ন বসুন্ধরা কিংস। শনিবার ভারতের কলকাতার সল্ট লেক স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হবে দুই বাংলার দুই জনপ্রিয় ক্লাব মোহনবাগান ও বসুন্ধরা কিংস।

বিজ্ঞাপন

এএফসি কাপ এবং এর আগের টুর্নামেন্ট এএফসি ক্লাব চ্যাম্পিয়নশিপ মিলিয়ে মোহনবাগানের বিপক্ষে এখন পর্যন্ত ছয়টি ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশের চারটি ক্লাব। এর মধ্যে হার ও ড্র সমান তিনটি করে। এএফসির বাইরের আসর আইএফএ শিল্ডে ২০১৪ সালে মোহনবাগানকে ১-০ গোলে হারিয়েছিল শেখ জামাল ধানমণ্ড ক্লাব। সাম্প্রতিক সময়ে সেটিই ছিল একমাত্র জয়।

১৯৮৭ সালে এশিয়ান ক্লাব চ্যাম্পিয়নশিপে প্রথমবারের মতো মোহনবাগানের বিপক্ষে মুখোমুখি হয়েছিল দেশের ঐতিহ্যবাহী দল মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব। সেবার ভারতের ক্লাবটির সঙ্গে ২-২ গোলে ড্র করেছিল সাদা-কালোরা। এরপর ১৯৯৯ সালে মোহনবাগানের কাছে ১-২ ব্যবধানে হেরে যায় আরেক ঐতিহ্যবাহী দল মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্র।

২০১৭ সালে এএফসি কাপে প্রথমবারের মতো মুখোমুখি হয়েছিল আবাহনী লিমিটেড ও মোহনবাগান। আবাহনীও পারেনি তাদেরকে হারের স্বাদ দিতে। সল্ট লেক স্টেডিয়ামে হওয়া প্রথম লেগের সে ম্যাচে মোহনবাগান ৩-১ ব্যবধানে জিতে নেয়। ফিরতি লেগে বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে ১-১ গোলে ড্র করে দুই দল। সর্বশেষ এ বছরের এপ্রিলে মোহনবাগানের বিপক্ষে আবারও মাঠে নামে আবাহনী। এবারও হতাশা উপহার দিয়েছে আকাশি-নীলরা। সল্ট লেকে ৩-১ ব্যবধানের হার নিয়ে ফিরতে হয়েছে বাংলাদেশের ক্লাবটির।

২০২১ সালে মোহনবাগানের সঙ্গে প্রথম দেখায় ১-১ গোলে ড্র করেছিল বাংলাদেশের আরেক ক্লাব বসুন্ধরা কিংস। আবারও কিংসের সামনে মোহনবাগান। এ ম্যাচে জয়েই চোখ বাংলাদেশের দলটির। আগামীকাল (শনিবার) তিন পয়েন্টের জন্যই মাঠে নামবে অস্কার ব্রুজোনের দল। এবারের আসরের প্রথম ম্যাচে মাজিয়া স্পোর্টসকে হারানোর জয়ের আত্মবিশ্বাস কাজে লাগাতে চান দলটির স্প্যানিশ কোচ।
ইনজুরি জর্জরিত স্কোয়াড নিয়ে কিংসের বিপক্ষে মাঠে নামবে মোহনবাগান। চোটে পড়ায় এ ম্যাচে থাকছেন না মোহনবাগানের দুই ডিফেন্ডার তিরি ও সন্দেশ জিঙ্গান। সেই সঙ্গে প্রথম ম্যাচে কেরালার কাছে ৪-২ গোলে হার খানিকটা ব্যাকফুটে ঠেলে দিয়েছে তাদেরকে। তাই মোহনবাগানকে হারানোর ভাল সুযোগ উঁকি দিচ্ছে কিংসের সামনে। এই সুযোগ কাজে লাগাতে পারলে মোহনবাগানের বিপক্ষে ইতিহাস গড়বে কিংস। নিজেদের পরিকল্পনা অনুযায়ী মাঠে পারফরম্যান্স করতে পারলে বাগানকে হারিয়ে দেওয়ার ক্ষমতা রাখে রোবিনহো-সোহেলরা।

সব কিছু ছাপিয়ে প্রশ্ন একটাই, এএফসির আসরে বাংলাদেশের ক্লাব হিসেবে মোহনবাগানের বিপক্ষে জয়ের খরা কাটাতে পারবে তো বসুন্ধরা কিংস? সে প্রশ্নের উত্তর জানা যাবে শনিবার সল্ট লেক স্টেডিয়ামে।



সাতদিনের সেরা