kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৮ জুন ২০২২ । ১৪ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৭ জিলকদ ১৪৪৩

সাইমন্ডসকে বাঁচানোর চেষ্টা করেছিলেন এক স্থানীয় ব্যক্তি

অনলাইন ডেস্ক   

১৬ মে, ২০২২ ২০:৫১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সাইমন্ডসকে বাঁচানোর চেষ্টা করেছিলেন এক স্থানীয় ব্যক্তি

গত ৩০ মার্চ শেন ওয়ার্নের স্মরণানুষ্ঠানে সাইমন্ডসের এই ছবিটি তোলা হয়। ছবি : এএফপি

গাড়ি দুর্ঘটনায় মাত্র ৪৬ বছর বয়সে না-ফেরার দেশে পাড়ি জমিয়েছেন অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস। গতকাল রাতে সাবেক অজি অলরাউন্ডারের এমন মৃত্যুর খবর বিশ্বকে চমকে দেয়। গাড়ি দুর্ঘটনার পর অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অলরাউন্ডার সাইমন্ডসকে বাঁচানোর চেষ্টা করেছিলেন কুইন্সল্যান্ডের নর্দার্ন সিটির এক বাসিন্দা। কিন্তু সাইমন্ডসের আঘাত অত্যন্ত গুরুতর হওয়ায় তার চেষ্টা সফল হয়নি।

বিজ্ঞাপন

সাবেক ক্রিকেটারের গাড়ি দুর্ঘটনার কবলে পড়ার সঙ্গে সঙ্গে ছুটে যান স্থানীয় বাসিন্দা ওয়েলন টাউনসন। দুইবারের বিশ্বকাপজয়ী দলের সদস্যের জীবন বাঁচানোর চেষ্টা করেন তিনি। এক অস্ট্রেলীয় সংবাদমাধ্যমকে টাউনসন বলেন, 'সাইমন্ডস গাড়ির ভিতরে আটকে ছিলেন। আমি তাকে টেনে বাইরে আনার চেষ্টা করি। তারপর তার পালস দেখি। সিপিআর দিয়েছি। কিন্তু তার থেকে তেমন কোনো সাড়া পাইনি। '

টাউনসন পেশায় একজন স্বাস্থ্যকর্মী। তার ধারণা, দুর্ঘটনার পরেই মারা যান সাইমন্ডস। তার গাড়ি ঠিক কিভাবে দুর্ঘটনার কবলে পড়ল তা জানতে তদন্ত চালাচ্ছে কুইন্সল্যান্ড পুলিশ। সাইমন্ডসের অকালমৃত্যু এখনো শোকাচ্ছন্ন করে রেখেছে ক্রিকেটাঙ্গনকে। অস্ট্রেলিয়ার সাবেক কোচ জন বুকানন বলেছেন, 'সাইমন্ডসের কাজকর্ম কখনোই সঠিক ছিল না। তবে একটা ব্যাপার সকলেই মানবে, কখনো কিছু ভুল করলে সব সময় স্বীকার করত। সেটা শুধরে নেওয়ার চেষ্টা করত এবং সে জন্য প্রচুর পরিশ্রম করত। '



সাতদিনের সেরা