kalerkantho

বুধবার ।  ১৮ মে ২০২২ । ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৬ শাওয়াল ১৪৪৩  

প্রথমার্ধের দুই গোল ম্যাচ থেকে ছিটকে দিয়েছে : লেমোস

ক্রীড়া প্রতিবেদক   

২০ এপ্রিল, ২০২২ ১৭:৩১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



প্রথমার্ধের দুই গোল ম্যাচ থেকে ছিটকে দিয়েছে : লেমোস

বাঁচা-মরার ম্যাচে নিজেদের মেলে ধরতে পারেনি মিলাদ শেখ-টুটুল হাসান বাদশারা। গতকাল যুব ভারতীয় মাঠে শুরুর ৪৫ মিনিটে মোহনবাগানের বিপক্ষে দাঁড়াতেই পারেনি আবাহনী। ৩০ মিনিটের মধ্যে দুই গোল হজম করে ম্যাচ থেকে ছিটকে যায় আকাশি-নীলরা। দুটি গোলেই ডিফেন্ডারদের ভুল দেখছেন আবাহনীর পর্তুগিজ কোচ মারিও লেমোস।

বিজ্ঞাপন

এএফসি কাপের প্লে অফের ম্যাচে উইলিয়ামসের হ্যাটট্রিকে এটিকে মোহনবাগানের কাছে ৩-১ গোলে হেরে গ্রুপ পর্বে খেলার স্বপ্ন ভঙ্গ হয়েছে আবাহনীর। প্রথমার্ধে মোহনবাগানের সামনে দাঁড়াতে না পারলেও দ্বিতীয়ার্ধে আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলে এক গোল শোধ করে ম্যাচে ফেরার আভাস দিলেও শেষ পর্যন্ত আর পেরে ওঠেননি কলিনদ্রেসরা। ম্যাচে ষষ্ঠ মিনিটে বাঁ দিক দিয়ে আক্রমণ উঠে গোল আদায় করে স্বাগতিক মোহনবাগান। ডাভিদ উইলিয়ামস যখন বক্সের দিকে ছুটছিলেন ঠিক তার সঙ্গেই লেগে ছিলেন মিলাদ শেখ। কিন্তু উইলিয়ামস যতক্ষণে বলের কাছে পৌঁছেছেন ততক্ষণে মিলাদ শেখ তার সঙ্গে আর পেরে ওঠেননি। দ্বিতীয় গোলেও ডিফেন্ডারের ভুল দেখছেন মারিও লেমোস। বক্সে ক্রস নেওয়ার আগে ডান প্রান্তে অনেক বেশি জায়গা ও সময় পেয়েছিলেন প্রবীর দাস। তার ক্রসে বক্সের ভেতর বাদশা দৌড়ে এসে পা বাড়িয়ে ক্লিয়ার করতে না পারায় সহজেই গোল করেন উইলিয়ামস।  

মারিও লেমোসও বলছেন প্রথমার্ধের দুই গোলই তাদেরকে ম্যাচ থেকে ছিটকে দিয়েছে। কলকাতায় বসে কালের কণ্ঠকে মারিও লেমোস বলেন, 'প্রথমার্ধে আমরা বিশ্রী ফুটবল খেলেছি। গোল দুটি না খেলে ম্যাচ অন্য রকম হতো। ডিফেন্ডারদের ভুলেই গোল খেয়েছি। যদিও দ্বিতীয়ার্ধে ছেলেরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছে' কিন্তু রেজাল্টের পরিবর্তন হয়নি। ' আজ রাতে ঢাকায় ফিরবে আবাহনী দল।



সাতদিনের সেরা