kalerkantho

মঙ্গলবার ।  ১৭ মে ২০২২ । ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৫ শাওয়াল ১৪৪৩  

সম্পদের তথ্য গোপন; নিজেকে দেউলিয়া ঘোষণা করেও জেলের মুখে বেকার!

অনলাইন ডেস্ক   

২১ মার্চ, ২০২২ ১৯:২৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সম্পদের তথ্য গোপন; নিজেকে দেউলিয়া ঘোষণা করেও জেলের মুখে বেকার!

টেনিস কিবদন্তি বরিস বেকার এখন জেলে যাওয়ার শংকায় আছেন। ২০১৭ সালে নিজেকে দেউলিয়া ঘোষণা করেন ৬টি গ্র্যান্ড স্লামের মালিক। তার সেই দাবি মিথ্যা প্রমাণিত হলে ৭ বছর পর্যন্ত কারাবাস হতে পারে এই সাবেক টেনিস খেলোয়াড়ের। স্থাবর, অস্থাবর মিলিয়ে বেকারের মোট সম্পত্তির পরিমাণ ২.৩ মিলিয়ন আমেরিকান ডলার।

বিজ্ঞাপন

অর্থাৎ প্রায় ১.৮ মিলিয়ন পাউন্ড। যে সময় বেকার নিজেকে দেউলিয়া ঘোষণা করেন, সে সময় তার ঋণের পরিমাণ ছিল প্রায় ৫০ মিলিয়ন পাউন্ড।

বেকারের দেউলিয়াত্বর দাবি নিয়ে শুনানি শুরু হয়েছে লন্ডনের সাউথার্ক ক্রাউন আদালতে। প্রাথমিক শুনানির পর বেশ কিছু তথ্য উঠে এসেছে। যে তথ্যগুলি জার্মানির এই সাবেক টেনিস খেলোয়াড়ের বিরুদ্ধে যেতে পারে। সম্প্রতি ৫৪ বছরের সাবেক ক্রীড়াবিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে যে, তিনি নাকি নিজের বেশ কিছু সম্পদের কথা গোপন করেছিলেন।   লন্ডনের চেলসির ফ্ল্যাট এবং জার্মানিতে থাকা আরও দুটি বহুমূল্য সম্পত্তির কথা তার দেওয়া হিসাবে নেই।

সাবেক টেনিস তারকার বিরুদ্ধে আরও অভিযোগ, বেশ কয়েক লক্ষ পাউন্ড নিজের অ্যাকাউন্ট থেকে সরিয়ে ফেলেছেন। সাবেক স্ত্রী বারবারা বেকার এবং বর্তমান স্ত্রী (এখনও আলাদা থাকেন) শার্লে বেকারের অ্যাকাউন্টে বিপুল অর্থ পাঠিয়ে দিয়েছেন। এছাড়াও একটি সংস্থার ৭৫ হাজার শেয়ারের কথা গোপন করেছেন। টেনিস জীবনে জেতা বেশ কিছু ট্রফি-সহ আরও সম্পত্তির কথাও গোপন করেছেন বেকার। এই সমস্ত অভিযোগ ভুল প্রমাণ করার জন্যই আইনি লড়াই করতে হবে বেকারকে।

শুনানি চলবে আগামী তিন সপ্তাহব্যাপী। এই শুনানির জন্য এক জন দোভাষী চেয়ে আবেদন করেছেন অধুনা লন্ডনবাসী জার্মান তারকা। যদিও তার আইনজীবী জানিয়েছেন, বেকার যথেষ্ট ভালো ইংরাজি বলতে পারেন। তা সত্ত্বেও কেন দোভাষীর মাধ্যমে তিনি শুনানিতে অংশগ্রহণ করবেন তা নিয়ে তৈরি হয়েছে নতুন জল্পনা। উল্লেখ্য, ১৯৮৫ সালে মাত্র ১৭ বছর বয়সে প্রথম অবাছাই এবং কনিষ্ঠতম হিসেবে উইম্বলডন জিতে বেকার টেনিস দুনিয়ায় আলোড়ন তুলেছিলেন।



সাতদিনের সেরা