kalerkantho

মঙ্গলবার ।  ২৪ মে ২০২২ । ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ২২ শাওয়াল ১৪৪৩  

'শাস্ত্রীকে সরাসরি বিদায় হতে বলেন সৌরভ'!

অনলাইন ডেস্ক   

২৯ জানুয়ারি, ২০২২ ১৫:১৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



'শাস্ত্রীকে সরাসরি বিদায় হতে বলেন সৌরভ'!

গত বছর অনুষ্ঠিত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পরে ভারতীয় ক্রিকেটে ব্যাপক পরিবর্তন এসেছে। একে একে তিন ফরম্যাটেই নেতৃত্ব ছেড়েছেন এবং হারিয়েছেন বিরাট কোহলি। প্রধান কোচ রবি শাস্ত্রীসহ পুরো কোচিং স্টাফ বদল করা হয়েছে। নতুন কোচ হিসেবে এসেছেন রাহুল দ্রাবিড়।

বিজ্ঞাপন

এমন যুগসন্ধিক্ষণে ভারতীয় দল যখন নিজেদের সেরাটা মেলে ধরার চেষ্টা করছে, তখনই বিসিসিআইকে আক্রমণ করে বসলেন রশিদ লতিফ।

ওয়ানডের নেতৃত্ব থেকে কোহলিকে সরিয়ে দেওয়ার পরে ভারতীয় ক্রিকেটে বিতর্কের ডামাডোল লেগেই রয়েছে। দক্ষিণ আফ্রিকায় গিয়ে টেস্ট এবং ওয়ানডে সিরিজে হার ক্রিকেটপ্রেমীদের ক্ষুব্ধ করে তুলেছে। এর মধ্যেই পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটার রশিদ লতিফ বলেছেন, রবি শাস্ত্রীকে জোর করে বোর্ড বের করে দিয়েছেন বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলী! এ কারণেই নাকি ভারতীয় ক্রিকেটে ঝামেলা শুরু হয়েছে। যদিও রবি শাস্ত্রী ঘোষণা করেছিলেন যে, তিনি স্বেচ্ছায় কোচের পদ ছাড়ছেন।

ইউটিউবে রশিদ লতিফ বলেছেন, 'সমস্ত কিছুই শুরু হয়েছিল অনিল কুম্বলেকে জখম ভুলভাবে সরিয়ে দেওয়া হয়। কোনো কোচিং ডিগ্রি না থাকা সত্ত্বেও রবি শাস্ত্রী সরাসরি ভারতীয় দলের কোচ হিসেবে সুযোগ পায়।  কুম্বলের ৬০০ র বেশি উইকেট আছে। সৌরভ গাঙ্গুলী এবং রাহুল দ্রাবিড়ও পরস্পরের বন্ধু। তাদের গ্রুপ খুব শক্তিশালী। সৌরভ শাস্ত্রীকে বলেছে,  বস এবার তো সরতে হবে! যদিও শাস্ত্রী কোচিং চালিয়ে যেতে রাজি ছিলেন। '

রশিদ আরও বলেছেন, 'টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে থেকেই এই বিষয়গুলো নিয়ে পরিকল্পনা চলছিল। এগুলো পুরোপুরি ব্যক্তি আক্রমণ। এতে ভারতীয় ক্রিকেট ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। নব্বইয়ের দশকের শুরুতে পাকিস্তান ক্রিকেটে যা ঘটত, সেটাই এখন ভারতীয় ক্রিকেটে ঘটছে। মাঠের বাইরের এই ঘটনা প্রভাব ফেলছে ভারতের পারফরম্যান্সে। ম্যাচের সময় ড্রেসিংরুমে কোহলির পাশে কারা বসেছিল? সিরাজ। ডানদিকে যারা ছিল, তাদের কেউই চেনে না। রাহুলের পক্ষে এই দল সামলানো সম্ভব না। '



সাতদিনের সেরা