kalerkantho

শনিবার । ১৫ মাঘ ১৪২৮। ২৯ জানুয়ারি ২০২২। ২৫ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

'এটা ভয় এবং কষ্টের একটা মিশ্র অনুভূতি ছিল'

অনলাইন ডেস্ক   

২ ডিসেম্বর, ২০২১ ১৮:৪৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



'এটা ভয় এবং কষ্টের একটা মিশ্র অনুভূতি ছিল'

চট্টগ্রাম টেস্টে মাথায় চোট পান ইয়াসির। ফাইল ছবি

চট্টগ্রাম টেস্টে অভিষেক হয়েছে ইয়াসির আলী রাব্বির। প্রথম ইনিংসে মাত্র ৪ রান করলেও দ্বিতীয় ইনিংসে বেশ ভালো ব্যাট করছিলেন। ৪৩ রানে ৫ উইকেট পতনের পর লিটন দাস আর ইয়াসিরের জুটিতে ঘুরে দাঁড়াচ্ছিল বাংলাদেশ। তখনই ছন্দপতন।

বিজ্ঞাপন

পাকিস্তানি পেস তারকা শাহিন শাহ আফ্রিদির বল গিয়ে লাগে ইয়াসিরের মাথায়। তাকে মাঠের বাইরে নেওয়া হয়। কনকাশন সাব হিসেবে ব্যাটিংয়ে নামেন নুরুল হাসান সোহান।

৭২ বলে ৬ চারে ৩৬ রান করা ইয়াসির আহত হওয়ার সাথে সাথে শেষ হয় ৬৯ বলে ৪৭* রানের অসম্পূর্ণ এক জুটি। এই জুটিটা টিকে গেলে বাংলাদেশ হয়তো ৮ উইকেটের হার এড়াতে পারত না, তবে চিত্রটা অন্যরকমও হতে পারত। মাথায় বল লাগার পর ইয়াসির ঠিক কী ভাবছিলেন? আজ বৃহস্পতিবার বিসিবির পাঠানো ভিডিওবার্তায় তরুণ ব্যাটার জানালেন সেই কথা, 'আসলে একটু ভয় পেয়েছিলাম। কারণ মাথায় আঘাত লেগেছিল আর পায়ে সমস্যা হচ্ছিল। সত্যি বলতে ভয়ও পাচ্ছিলাম আবার কষ্টও হচ্ছিল। এটা ছিল আমার ডেব্যু ম্যাচ, দলকে ভালো অবস্থার দিকে নিয়ে যাচ্ছিলাম, কিন্তু শেষ করতে পারিনি। এটা ভয় এবং কষ্টের একটা মিশ্র অনুভূতি ছিল। '

চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম তিনদিন ম্যাচের যে অবস্থা ছিল, তাতে বাংলাদেশ জিতেও যেতে পারত। কিন্তু চতুর্থ দিন থেকে ব্যাটিং ব্যর্থতায় ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয় পাকিস্তান। ইয়াসির জানালেন, তিনি আঘাত না পেলে ম্যাচের চিত্রটা অন্যকরম হতে পারত, 'মাথায় আঘাত পাওয়াটা খুব হতাশাজনক ছিল। কারণ আমি যেভাবে ব্যাট করছিলাম, সেভাবে করে যেতে পারলে দল হয়তো আরেকটু ভালো জায়গায় থাকতে পারত। দেখা যাচ্ছে, একজন নতুন ব্যাটারের জন্য ক্রিজে এসে ব্যাট করাটা কঠিন। এটা দেখে কষ্ট লেগেছে যে, আমি আউট হওয়ার পর ওরকমভাবে আমরা কেউ ব্যাটিং করতে পারিনি। '



সাতদিনের সেরা