kalerkantho

বুধবার । ৪ কার্তিক ১৪২৮। ২০ অক্টোবর ২০২১। ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

বুমরাহকে ‘উমর গুল’ বানাতে বললেন ভারতীয় ধারাভাষ্যকার

অনলাইন ডেস্ক   

২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ১৩:২৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বুমরাহকে ‘উমর গুল’ বানাতে বললেন ভারতীয় ধারাভাষ্যকার

টি-টোয়েন্টিতে পাকিস্তানের ইতিহাসে অন্যতম সেরা বোলার উমর গুল। ডেথ ওভারে পাকিস্তানের ভরসার পাত্র ছিলেন এই পেসার। ২০০৯ সালে পাকিস্তানের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জয়ের অন্যতম নায়ক ছিলেন তিনি। সেই গুল ইনিংসের যে সময়টায় বোলিং করতেন সেই সময়টাতে বুমরাহকে বোলিং করানোর পরামর্শ দিয়েছেন ভারতীয় ধারাভাষ্যকার মাঞ্জরেকার।

মাঞ্জরেকার চাওয়া বুমরাহকেও যেনো একইভাবে কাজে লাগানো হয়। বেশিরভাগ সময়েই ইনিংসের শেষভাগে আক্রমণে আনা হতো গুলকে। গতিময় বোলিংয়ের সঙ্গে বৈচিত্রের মিশেলে ডেথ ওভারে প্রতিপক্ষ দলকে খুব একটা রান তুলতে দিতেন না তিনি। বিশেষ করে ২০০৯ বিশ্বকাপের ফাইনালে ১২তম ওভারে আক্রমণে এসে নিজের ৪ ওভারে মাত্র ২৯ রান খরচ করেন গুল।

এখন আইপিএলের মুম্বাই ইন্ডিয়ানসকেও জসপ্রিত বুমরাহর ব্যাপারে একই পরামর্শ দিলেন মাঞ্জরেকার। তার মতে, বুমরাহকে শুরুতে বোলিং না করিয়ে শেষদিকে রেখে দেওয়াই ভালো হবে দলের জন্য। এতে প্রতিপক্ষ দল ডেথ ওভারগুলোতে চাপে থাকবে বলে মনে করেন প্রখ্যাত ধারাভাষ্যকার মাঞ্জরেকার।

ইএসপিএন ক্রিকইনফো’কে মাঞ্জরেকার বলেছেন, ‘আপনাদের যদি মনে থাকে, পাকিস্তানের হয়ে উমর গুল একদম শেষদিকে নিজের পুরো ৪ ওভার বোলিং করতেন। এতে সে সফলও ছিলো। আমি মনে করি, মুম্বাইয়েরও শেষ দশ ওভারের জন্য বুমরাহকে রেখে দেওয়া উচিত।’

তিনি আরও বলেন, ‘যদি কখনো এমন হয় যে দল চাপে আছে এবং প্রতিপক্ষ খুব সহজে রান করছে, তাহলে হয়তো এক-দুই ওভার করানো যায়। অন্যথায় বুমরাহকে শেষদিকের জন্য রেখে দিন। যখন দলের ওপর চাপ বাড়ে এবং ব্যাটসম্যানরা বাউন্ডারি মারতে মরিয়া হয়ে ওঠে, তখন বুমরাহকে বোলিং করান।’

সূত্র: ইন্ডিয়া টুডে



সাতদিনের সেরা