kalerkantho

সোমবার । ৯ কার্তিক ১৪২৮। ২৫ অক্টোবর ২০২১। ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

'পানিপড়া'য় করোনা ভালো করা টেন্ডুলকারের সেই ওঝা মারা গেলেন করোনায়

অনলাইন ডেস্ক   

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ১৯:৩৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



'পানিপড়া'য় করোনা ভালো করা টেন্ডুলকারের সেই ওঝা মারা গেলেন করোনায়

শ্রীলঙ্কার সেই ওঝা এলিয়ান্থা হোয়াইটের বড় ভক্তদের অন্যতম শচীন টেন্ডুলকার। ছবি : ইন্টারনেট

ওঝা হিসেবে তার ব্যাপক নামডাক। দেশের গন্ডি ছাড়িয়ে বিদেশেও পৌঁছে গেছে। ভারতের কিংবদন্তি ব্যাটসম্যান শচীন টেন্ডুলকারের হাঁটুর ইনজুরি সারিয়ে তুলেছেন বলে তার দাবি। টেন্ডুলকারও তাকে ধন্যবাদ দিয়েছিলেন। এছাড়া নিজ দেশ শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপক্ষের তিনি ব্যক্তিগত চিকিৎসক! দেশটির অনেক হেভিওয়েট রাজনীতিবিদই নাকি তার খদ্দের। শ্রীলঙ্কার সেই ওঝা এলিয়ান্থা হোয়াইট এবার করোনাভাইরাসের শিকার হলেন!

২০১০ সালে এলিয়ান্থা হোয়াইট প্রথম আলোচনায় আসেন। তখন হাঁটুর ইনজুরিতে ভূগছিলেন টেন্ডুলকার। তখন টেন্ডুলকার দাবি করেছিলেন, তার হাঁটুর সমস্যা সারাতে ভূমিকা রেখেছেন শ্রীলঙ্কান এই ওঝা। এতেই নাকি তিনি ওয়ানডে ইতিহাসের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি করেছিলেন। তখন তাকে প্রকাশ্যে ধন্যবাদ দিয়েছিলেন টেন্ডুলকার। ওই বছরই তিনি দাবি করেন যে, ইংলিংশ কিংবদন্তি ফুটবলার ডেভিড ব্যাকহ্যামের হাঁটুর চোট নাকি সারিয়ে তুলেছেন। যদিও এর প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

পরের বছর ২০১১ সালে এলিয়ান্থা হোয়াইটের চিকিৎসা নেওয়ার পর উপুল থারাঙ্গা আইসিসির ডোপ টেস্টে ধরা পড়েন! তখনকার প্রেসিডেন্ট রাজাপক্ষের অনুরোধে নাকি ইয়ান বোথামের হাড়ের ব্যথাও সারিয়ে দিয়েছিলেন হোয়াইট। করোনাভাইরাসের আগ্রাসনের সময় তিনি দাবি করেছিলেন, তার 'পবিত্র জল' বা পানিপড়ায় নাকি পৃথিবী থেকে করোনা পালাবে। অবশেষে গতকাল বুধবার সেই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েই হোয়াইট পৃথিবীর মায়া কাটিয়েছেন।

শ্রীলঙ্কা ও ভারতের মূলধারার চিকিৎসকেরা হোয়াইটকে ভণ্ড বলতেন। হোয়াইট দাবি করতেন, তিন হাজার বছরের পুরোনো আয়ুর্বেদশাস্ত্র ব্যবহার করে তিনি এসব করেন। কিন্তু আয়ুর্বেদিক চিকিৎসকেরাও তার চিকিৎসাকে ভিত্তিহীন বলেছিলেন। গত নভেম্বরে হোয়াইট ঘোষণা করেন যে, পবিত্র জল দিয়ে ভারত ও শ্রীলঙ্কার করোনা তাড়াবেন। শ্রীলঙ্কার সে সময়কার স্বাস্থ্যমন্ত্রী পবিত্র বান্নিয়ারাচ্চি এই প্রস্তাবে সমর্থন দেন। কিন্তু তিনি নিজেই করোনায় আক্রান্ত হয়ে দুই মাস হাসপাতালে ঘুরে পদ হারান। হোয়াইটের পানিপড়া কর্মসূচিও ভেস্তে যায়।



সাতদিনের সেরা