kalerkantho

রবিবার । ১১ আশ্বিন ১৪২৮। ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৮ সফর ১৪৪৩

শোয়েবের আশঙ্কা- 'বুমরাহ এক বছরের মধ্যেই ফুরিয়ে যাবে'!

অনলাইন ডেস্ক   

২৯ জুলাই, ২০২১ ১৭:৩০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শোয়েবের আশঙ্কা- 'বুমরাহ এক বছরের মধ্যেই ফুরিয়ে যাবে'!

নিঃসন্দেহে ভারতের পেসারদের মাঝে সবচেয়ে বড় অস্ত্রটির নাম জসপ্রিত বুমরাহ। অন্যদের মত এই তরুণ পেসারের বড় শত্রু হলো ইনজুরি। ঠিকমতো পরিচর্যা না করা হলে এক বছরের মধ্যেই বুমরাহর সব অস্ত্র শেষ হয়ে যাবে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন পাকিস্তানের সাবেক স্পিডস্টার শোয়েব আকতার। বুমরাহর অদ্ভুত বোলিং অ্যাকশন নিয়ে এর আগে একাধিকবার আলোচনা করা হয়েছে। এমন বোলিং অ্যাকশনের কারণেই কাঁধে অতিরিক্ত চাপ পড়ে।

২০১৯ সালে পিঠে চোট পাওয়ার পর সুস্থ হয়ে বুমরাহ আবারও জাতীয় দলে ফিরেছেন। তবে তার সেই পুরোনো ছন্দে ফিরতে পারেননি। রোটেশন পদ্ধতিতে তাকে বিশ্রাম দিয়েই খেলানো হয়। আপাতত তিনি জাতীয় দলের সঙ্গে ইংল্যান্ড সফর করছেন। ৪ তারিখ থেকে শুরু হতে যাওয়া  পাঁচ টেস্টের সিরিজে বুমরাহকে দেখা যাবে। তবে শোয়েব আখতার বলছেন, বুমরাহর ওপর থেকে আরো চাপ কমাতে হবে।

'স্পোর্টস টক'-এ শোয়েব বলেন, 'বুমরাহর বোলিং পুরোটাই ফ্রন্টাল অ্যাকশন। এমন বোলাররা কাঁধ এবং পিঠের ওপর অতিরিক্ত চাপ দিয়েই বোলিং করেন। আমাদের অ্যাকশন ছিল সাইড-অন। যে কারণে আমরা অনেকটাই ম্যানেজ করতে পারতাম। তবে ফ্রন্টাল অ্যাকশনের ক্ষেত্রে কাঁধের চোট এড়ানোর যতই চেষ্টা করা হোক। তা সম্ভব নয়। ইয়ান বিশপ হোক বা শ্যেন বন্ড-দুজনেরই ফ্রন্টাল অ্যাকশন ছিল।'

জাতীয় দলের হয়ে ২০ টেস্ট, ৬৭ ওয়ানডে এবং ৫০টি টি-টোয়েন্টি খেলা বুমরাহকে নিয়ে শোয়েব আখতার আরও বলেন, 'বুমরাহকে এখন ভাবতে হবে যে, "একটা ম্যাচ খেললাম এবার একটা বিশ্রাম নেব। রিহ্যাব করব"। এটা ম্যানেজ করতে হবে। যদি সে প্রত্যেক ম্যাচ খেলার চেষ্টা করে। তাহলে সে পুরোপুরি ভেঙে পড়বে। পাঁচ ম্যাচের সিরিজে তিনটেতে খেলিয়ে বাকিগুলোতে বিশ্রামে পাঠানো হোক। যদি সে দীর্ঘদিন খেলতে চায় এভাবে ম্যানেজ করতেই হবে।'



সাতদিনের সেরা