kalerkantho

শনিবার । ১৬ শ্রাবণ ১৪২৮। ৩১ জুলাই ২০২১। ২০ জিলহজ ১৪৪২

টেস্ট হারের প্রতিশোধ টি-টোয়েন্টিতে নিতে চায় বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা

অনলাইন ডেস্ক   

২৫ জুন, ২০২১ ২১:৫৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



টেস্ট হারের প্রতিশোধ টি-টোয়েন্টিতে নিতে চায় বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা

নিজ মাঠে  দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে দুই ম্যাচের টেস্টে হোয়াইটওয়াশ হয় স্বাগতিক ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এবার টি-টোয়েন্টি লড়াইয়ে তারা  দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে টেস্ট হারের প্রতিশোধ নিতে চায়। ২৭ জুন থেকে পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরু করছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও দক্ষিণ আফ্রিকা। গ্রেনাডায় সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টি হবে বাংলাদেশ সময় ২৭ জুন রাত ১২টায়।

আগামী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপকে সামনে রেখে ছোট ফরম্যাটে নিজেদের প্রস্তুতি সাড়ার লক্ষ্য ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও দক্ষিণ আফ্রিকা। দলকে গুছিয়ে নিতে দুই দলের জন্য এই সিরিজ অনেক বেশি কাজে দেবে। তবে সম্প্রতি টেস্ট হারের ক্ষত এই টি-টোয়েন্টি দিয়ে ভুলতে চায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। আর দক্ষিণ আফ্রিকা লক্ষ্য, টেস্টের মত টি-টোয়েন্টিতেও ভালো পারফরমেন্স করা।

টেস্ট সিরিজে ক্যারিবীয়রা যাচ্ছেতাই পারফরমেন্স করেছে। দক্ষিণ আফ্রিকার সামনে দাঁড়াতেই পারেনি। প্রথম টেস্টে হারতে হয়েছে ইনিংস ও ৬৩ রানের বিশাল ব্যবধানে। আর দ্বিতীয় টেস্টে হারে ১৫৮ রানে। ফলে ২-০ ব্যবধানে সিরিজ জিতে নেয় দক্ষিণ আফ্রিকা।ক্যারিবীয় অধিনায়ক কাইরন পোলার্ড বলেন, 'টেস্ট সিরিজে দল ভালো করতে পারেনি। তবে টি-টোয়েন্টিতে আমরা ভালো খেলে সিরিজ জিততে চাই। সেই সামর্থ্য আমাদের রয়েছে। বিশ্বকাপের প্রস্তুতি হিসেবে এই সিরিজটি গুরুত্বপূর্ণ। দল নিয়ে পরীক্ষা-নিরিক্ষা করা যাবে।'

অন্যদিকে দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক তেম্বা বাভুমা বলেন, 'টেস্ট সিরিজ জিতে আমরা ফুরফুরে মেজাজেই আছি। টি-টোয়েন্টি সিরিজেও দল ভালো করতে চায়। টি-টোয়েন্টিতে ভালো করতে আমাদের কঠোর পরিশ্রম করতে হবে এবং নিজেদের সেরাটা দিতে হবে। কারণ ওয়েস্ট ইন্ডিজ বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন। এই ফরম্যাটে ওরা ভয়ংকর দল।'

২০১৬ সালে ভারতে হওয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সর্বশেষ মুখোমুখি হয়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও দক্ষিণ আফ্রিকা। নাগপুরের সুপার টেনের ওই ম্যাচে ৩ উইকেটে জিতেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। আর ২০১৫ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে সর্বশেষ দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলে দুই দল। তিন ম্যাচের সিরিজ ২-১ ব্যবধানে জিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এখন পর্যন্ত টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে ১০বার মুখোমুখি হয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও দক্ষিণ আফ্রিকা। ৬ ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকা ও ৪ ম্যাচে জয় পায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ।



সাতদিনের সেরা