kalerkantho

রবিবার । ১০ শ্রাবণ ১৪২৮। ২৫ জুলাই ২০২১। ১৪ জিলহজ ১৪৪২

ফ্রান্স ম্যাচের আগে জটিল অংকের মুখোমুখি রোনালদোর পর্তুগাল

অনলাইন ডেস্ক   

২২ জুন, ২০২১ ২১:১৮ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ফ্রান্স ম্যাচের আগে জটিল অংকের মুখোমুখি রোনালদোর পর্তুগাল

ফ্রান্স ম্যাচের আগে নিজেকে ঝালিয়ে নিচ্ছেন সিআর সেভেন। ছবি : এএফপি

চোখ ধাঁধানো পারফর্মেন্সে জমে উঠেছে ইউরো কাপের আসর। গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন কিংবা রানার্স হয়ে ইতিমধ্যেই ৬টি দল পৌঁছে গেছে নক আউট পর্বে। এই দলগুলোর মধ্যে আছে- ইতালি, হল্যান্ড, বেলজিয়াম, ডেনমার্ক অস্ট্রিয়া, সুইজারল্যান্ড। গ্রুপের তৃতীয় সেরা দল হিসেবে সুইজারল্যান্ড শেষ ষোলর ছাড়পত্র পেয়েছে। ইংল্যান্ড, সুইডেন, ফ্রান্স, চেক প্রজাতন্ত্রও নক আউটে খেলা প্রায় নিশ্চিত করে ফেলেছে। স্পেন, পর্তুগাল, জার্মানি এখনও শেষ ষোলোর ছাড়পত্র পায়নি।

গ্রুপ অফ ডেথ 'এফ'–এ লড়াইটা পর্তুগাল ও জার্মানির মধ্যে। পর্তুগাল কি পারবে ফ্রান্সকে হারিয়ে গ্রুপে রানার্স হয়ে নক আউটে পৌঁছতে?‌ কিংবা তৃতীয় সেরা দল হিসেবে ছাড়পত্র পাবে?‌ এই নিয়েই বড় অনিশ্চয়তার মধ্যে পড়ে রয়েছে গতবারের ইউরো চ্যাম্পিয়নরা। ৬টি গ্রুপ থেকে চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সরা সরাসরি নক আউটে পৌঁছবে। বাকি চারটি জায়গার জন্য লড়াই করবে ৬টি গ্রুপে তৃতীয় স্থানে থাকা দলগুলো। ইতিমধ্যেই তিন ম্যাচে ৪ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ 'এ' থেকে শেষ ষোলতে পৌঁছে গেছে সুইজারল্যান্ড। 'এফ' গ্রুপে ২ ম্যাচে ৩ পয়েন্ট পর্তুগালের। 'সি' গ্রুপে ৩ ম্যাচে ৩ পয়েন্ট ইউক্রেনের। একই অবস্থা 'বি' গ্রুপে ফিনল্যান্ডের। 'ই' গ্রুপে ২ ম্যাচে ২ পয়েন্ট স্পেনের।

বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ফ্রান্সের বিপক্ষে মাঠে নামার আগে গভীর সঙ্কটে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোরা। জিতলে তো কোনো কথাই নেই। সরাসরি নক আউটের ছাড়পত্র মিলবে। কিন্তু যদি হেরে যায়?‌ সেক্ষেত্রেও শেষ ষোলোতে যাওয়ার সুযোগ থাকবে। কারণ ইউক্রেন ও ফিনল্যান্ডের থেকে পর্তুগালের গোল পার্থক্য। দুটি দলই ইতিমধ্যে গ্রুপ লিগে শেষ ম্যাচ খেলে ফেলেছে। সুতরাং গোল সংখ্যা বাড়ানোর সুযোগ নেই। তবে নক আউটে যেতে গেলে পর্তুগালকে ফ্রান্সের কাছে ২ গোলের বেশি ব্যবধানে হারা যাবে না। যদি ২ গোল কিংবা তার কম ব্যবধানে ফ্রান্সের কাছে হারে, তখন 'ডি' ও 'ই' গ্রুপের ম্যাচে যাই ফলাফল হোক না কেন, নক আউটে পৌঁছে যাবেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোরা।

তবে ৩ কিংবা তার বেশি গোলের ব্যবধানে হারলে গ্রুপ 'ডি' এবং 'ই'–র ম্যাচের ফলাফলের ওপর নির্ভর করতে হবে। গ্রুপ লিগের সেরা চারটি তৃতীয় দল বেছে নেওয়ার ক্ষেত্রে প্রথমে বিচার করা হবে পয়েন্ট। পয়েন্ট সমান হলে গোল পার্থক্য। সেখানেও যদি দেখা যায় দলগুলি সম সংখ্যক গোল করেছে তাহলে কোন দল বেশি গোল করেছে, তা দেখা হবে। তারপর দেখা হবে কোন দল বেশি জিতেছে। এইসব জটিল অঙ্ক এড়াতে পর্তুগালকে জিততে হবে। তবে বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের বিপক্ষে সেটা যে সহজ হবে তা সবারই জানা।



সাতদিনের সেরা