kalerkantho

রবিবার । ১০ শ্রাবণ ১৪২৮। ২৫ জুলাই ২০২১। ১৪ জিলহজ ১৪৪২

কেউ স্কুল পাস, কেউ ইঞ্জিনিয়ার : জানুন ভারতীয় ক্রিকেটারদের শিক্ষাগত যোগ্যতা

অনলাইন ডেস্ক   

২২ জুন, ২০২১ ২০:০৫ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



কেউ স্কুল পাস, কেউ ইঞ্জিনিয়ার : জানুন ভারতীয় ক্রিকেটারদের শিক্ষাগত যোগ্যতা

জীবনে বড় কিছু অর্জন করতে পুঁথিগত শিক্ষা যে গুরুত্বপূর্ণ নয়, তার ভুরিভুরি প্রমাণ আছে। ক্রিকেটের দিকেই নজর দেওয়া যাক। বাংলাদেশের অনেক ক্রিকেট সুপারস্টার বেশি পড়াশোনা করতে পারেননি। আবার মুশফিকুর রহিমের মতো কেউ কেউ ক্রিকেটের পাশাপাশি সমানতালে পড়াশোনাও চালিয়ে গেছেন। বেশিরভাগ ক্রিকেটারই খেলায় মনযোগ দেওয়ার জন্য পড়াশোনার পাট চুকিয়েছেন। তবে আজকের আলোচনা বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের নিয়ে নয়, বরং ভারতীয় সুপারস্টারদের নিয়ে।

শচীন টেন্ডুলকার : মাত্র ১৬ বছর বয়সে আন্তর্জাতিক মঞ্চে ব্যাট হাতে নেমে পড়েছিলেন শচীন টেন্ডুলকার। ওয়াসিম আকরাম, ইমরান খানদের সামলাতে গিয়ে দ্বাদশ শ্রেণির পর আর পড়াশোনা করতে পারেননি তিনি।

বিরাট কোহলি : বিরাট কোহলিকে মনে করা হয় ভারতীয় ক্রিকেটে শচীনের উত্তরসূরি। মাস্টার ব্লাস্টারের রেকর্ড একমাত্র তিনিই ভাঙতে পারেন বলে মনে করা হচ্ছে। পড়াশোনার দিকেও কোহলি যেন শচীনের ভাবশিষ্য। দ্বাদশের পর আর পড়াশোনা করতে পারেননি তিনি।

মহেন্দ্র সিং ধোনি : ভারতের বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি রেলের টিকিট পরিক্ষক হিসেবেও কাজ করেছিলেন। বাণিজ্য শাখায় স্নাতক এই ভারতীয় ক্রিকেটার পড়াশোনার দিকেও দিয়েছিলেন সমান নজর দিয়েছেন।

যুবরাজ সিং : ধোনির সতীর্থ যুবরাজ সিং অবশ্য উচ্চশিক্ষিত নন। ভারতীয় অনূর্ধ্ব-১৯ দলের দায়িত্ব সামলে শচীন, সৌরভদের ড্রেসিংরুমে পা রাখা এই অল-রাউন্ডার দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত পড়াশোনা করেছেন।

রোহিত শর্মা : ক্রিকেটবিশ্বে তার নাম হয়ে গেছে 'হিটম্যান'। তিনি ব্যাট করতে নামলে তটস্থ থাকেন বোলাররা। ছক্কার বন্যা বইয়ে দিতে রোহিতের জুড়ি নেই। সেই রোহিত শর্মাও দ্বাদশ শ্রেণির পর পড়াশোনা ছেড়ে ক্রিকেটে মন দিয়েছিলেন।

অনিল কুম্বলে : খেলার পাশাপাশি ক্রিকেট চালিয়ে যাওয়া বিরল ক্রিকেটারদের একজন অনিল কুম্বলে। ভারতের হয়ে টেস্টে সবচেয়ে বেশি উইকেট নেওয়া অনিল কুম্বলে ক্রিকেটের সঙ্গে পড়াশোনাও সমান তালে চালিয়ে গেছেন। তাই ক্রিকেটারের পাশাপাশি তিনি মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার। ছবি তোলার নেশার জন্যও অনিল কুম্বলে পরিচিত।

শিখর ধাওয়ান : ভারতের নতুন অধিনায়ক শিখর ধাওয়ানও ক্রিকেটকে প্রাধান্য দিয়েছিলেন। কোহলির অবর্তমানে শ্রীলঙ্কা সফরে গুরুদায়িত্ব শিখর ধাওয়ানের কাঁধে। দ্বাদশ শ্রেণির পর আর পড়াশোনা চালিয়ে যাননি এই ওপেনার।

জহির খান : দ্বাদশ শ্রেণির পড়াশোনা শেষ করে ইঞ্জিনিয়ার হওয়ার আশায় কলেজে ভর্তি হয়েছিলেন ভারতের সাবেক পেস তারকা জাহির খান। তবে দেশের হয়ে বল হাতে উইকেট নেওয়ার দায়িত্ব সামলে সেই পড়াশোনা আর শেষ করতে পারেননি।

বীরেন্দ্র শেবাগ : বিশ্ব ক্রিকেটে তাকে ভিভ রিচার্ডসের সঙ্গে তুলনা করা হতো। ভারতের সেই ভয়ংকর ওপেনার বীরেন্দ্র শেবাগ ক্রিকেটের সঙ্গে পড়াশোনাও চালিয়ে গেছেন। দিল্লির জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তিনি স্নাতক পাস করেছেন।

সৌরভ গাঙ্গুলী : ভারতের সাবেক সফলতম অধিনায়ক তথা বর্তমানে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান সৌরভ গাঙ্গুলী সেন্ট জেভিয়ার্স কলেজ থেকে স্নাতক সম্পন্ন করেছেন। দুর্দান্ত নেতৃত্ব, অসাধারণ ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি পড়াশোনার দিকটা ভুললেননি 'দাদা' নামে বিখ্যাত এই ক্রিকেটার।



সাতদিনের সেরা