kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৪ শ্রাবণ ১৪২৮। ২৯ জুলাই ২০২১। ১৮ জিলহজ ১৪৪২

জৈব বলয়ে করোনার হানা; যা বললেন পাপন

অনলাইন ডেস্ক   

২৩ মে, ২০২১ ২১:২৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জৈব বলয়ে করোনার হানা; যা বললেন পাপন

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচটি আজ ৩৩ রানে জিতে নিয়েছে বাংলাদেশ। অথচ এই ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হওয়া নিয়েই আজ সকাল থেকে শঙ্কা দেখা দিয়েছিল। কারণ শ্রীলঙ্কান শিবিরে হানা দিয়েছে করোনা। গতকালের পরীক্ষায় তিনজন পজিটিভ হলেও আজ পুনঃপরীক্ষায় জানা যায় একজন পজিটিভ। তাকে আইসোলেশনে রেখে ম্যাচ মাঠে গড়ায়। জৈব-সুরক্ষা বলয়ের মধ্যে কারও কোভিড আক্রান্ত হওয়ার কারণ দেখেন না বিসিবি সভাপতি নাজমুল হোসেন পাপন। এটা 'ফলস নেগেটিভ'ও হতে পারে।

ম্যাচের প্রথম ইনিংস শেষে আজ সাংবাদিকদের পাপন বলেন, 'শ্রীলঙ্কার তিন জনের পজিটিভ এসেছে, আগের টেস্টগুলোতে নেগেটিভ ছিল। আমাদের জানা মতে, বায়ো-বাবলে গিয়ে নেগেটিভ কারও পজিটিভ হওয়াটা অস্বাভাবিক। এমন কিছু হওয়ার কোনো সুযোগ নেই। তারপরও হতে তো পারেই। তিন জন পজিটিভ হওয়ার পর তাদের আইসোলেট করা হয়। তারপর যখন টেস্ট করতে দিলাম, কারণ তাদের কোনো সিম্পটম নাই। সেকেন্ড টেস্ট যখন করল, তখন নেগেটিভ। কিন্তু একজনের পজিটিভ।'

কঠোর জৈব সুরক্ষা বলয়ে থেকে কেন ক্রিকেটাররা পজিটিভ হচ্ছেন, সে বিষয়ে বিসিবি বস বলেন, 'কেন পজিটিভ এলো, সেটি দেখতে গিয়ে আমাদের ধারণা, যেহেতু সে (শিরান) কিছু দিন আগেই কোভিড থেকে রিকভার করেছে, অনেক সময় ডেড আরএনএ ডিটেক্ট করে পিসিআর, তার ক্ষেত্রেও এটা হতে পারে। অনেকের কিন্তু ২৮ দিন পর্যন্ত পাওয়া যায়। যেহেতু ওর ২৮ দিন হয়নি, তাই পেতে পারে। এজন্য আমরা আবার টেস্ট করতে পাঠিয়েছি।'

করোনা পজিটিভ আসা জাতীয় দলের 'টিম লিডার' খালেদ মাহমুদ সুজনের উদাহরণ টেনে বিসিবি বস বলেন, 'একই জিনিস কিন্তু হয়েছে আমাদের খালেদ মাহমুদ সুজনকে নিয়ে। সুজন বায়ো-বাবলে ঢোকার আগে টেস্ট করেছে, নেগেটিভ। তারপর লাস্ট টেস্ট করতে গিয়ে এসেছে পজিটিভ। কিন্তু ও বলে, ‘আমার তো কিছু হয় নাই।’ তারপর আমরা আবার টেস্ট করালাম, আসে নেগেটিভ। আজকে আবার করালাম, নেগেটিভ। মাঝেমধ্যে এরকম আসতে পারে, কিন্তু তার জন্য প্রোটোকল করা আছে, একবার পজিটিভ হলে কী করতে হবে, কতবার টেস্ট করে শিওর হতে হবে, আমরা তা অনুসরণ করছি।'



সাতদিনের সেরা