kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৩ আষাঢ় ১৪২৮। ১৭ জুন ২০২১। ৫ জিলকদ ১৪৪২

'ড্রেসিংরুমে রাজনীতি করত শোয়েব'- আফ্রিদি 'অন ফায়ার'!

অনলাইন ডেস্ক   

১৬ মে, ২০২১ ২১:৪৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



'ড্রেসিংরুমে রাজনীতি করত শোয়েব'- আফ্রিদি 'অন ফায়ার'!

পাকিস্তানের ক্রিকেটে চলছে কাদাছোড়াছুড়ি। দেশটির সাবেক ক্রিকেটাররা একে অন্যের দিকে আঙুল তুলতে একেবারে সিদ্ধহস্ত। এবার শোয়েব মালিকের বিরুদ্ধে রাজনীতি করার অভিযোগ তুললেন শাহিদ আফ্রিদি। সাবেক এই হার্ডহিটারের অভিযোগ, শোয়েব মালিক নাকি অধিনায়ক হওয়ার পর থেকে দলের ভেতর রাজনীতি শুরু করেন। শোয়েবের জ্বালায় অতিষ্ঠ হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ছাড়তে চেয়েছিলেন আফ্রিদি!

আফ্রিদি বলেন, 'শোয়েব মালিক দলকে একজোট করার বদলে প্যাভিলিয়নে রাজনীতি করত। সিনিয়র-জুনিয়র কারও সঙ্গে ওর সদ্ভাব ছিল না। সবাই ওর ওপর রেগে ছিল। ও দলে থাকলে আমি খেলব না, এটা ঠিক করে ফেলেছিলাম। এটা বোর্ডকে জানিয়ে দিয়েছিলাম। কিন্তু অবস্থার বদল না হওয়ার জন্য খেলা ছেড়ে দেওয়ার কথাও ভেবেছিলাম। কিন্তু পরিবারের বড়দের কথা শুনে নিজের সিদ্ধান্ত থেকে সরে দাঁড়াই'।

২০০৭ সালের বিশ্বকাপের পর অধিনায়কত্ব ছেড়ে দেন ইনজামাম-উল হক। পাকিস্তান দলের তৎকালীন কোচ প্রয়াত বব উলমারের পরামর্শে শোয়েব মালিককে অধিনায়কত্ব দেয় পিসিবি। যদিও আফ্রিদির দাবি, শোয়েব সতীর্থদের সঙ্গে রাজনীতি করতেন বলেই নেতৃত্বে কোনো সাফল্য পায়নি। এদিকে আফ্রিদির বক্তব্যের আগে শোয়েব পিসিবিকে তুলোধুনো করে বক্তব্য দিয়েছেন। তার দাবি, পাকিস্তান বোর্ডে ভয়াবহ স্বজনপ্রীতি চলে। তাই দলটিতে প্রতিভা উঠে আসছে না।



সাতদিনের সেরা