kalerkantho

শুক্রবার । ২৪ বৈশাখ ১৪২৮। ৭ মে ২০২১। ২৪ রমজান ১৪৪২

হারপ্রিত নৈপুণ্যে বেঙ্গালুরুকে হারিয়ে পাঞ্জাবের জয়

অনলাইন ডেস্ক   

১ মে, ২০২১ ০২:১৮ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



হারপ্রিত নৈপুণ্যে বেঙ্গালুরুকে হারিয়ে পাঞ্জাবের জয়

হারপ্রিত ব্রার অলরাউন্ডিং পারফরম্যান্স, সঙ্গে অধিনায়ক লোকেশ রাহুলের ৯১ রানের দুর্ধর্ষ অপরাজিত ইনিংস। সব মিলিয়ে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে শুক্রবার রাতের ম্যাচে দুরন্ত রূপে দেখা মিলল পাঞ্জাব কিংসের। শিরোপা প্রত্যাশী রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুকে ৩৪ রানে হারিয়েছে পাঞ্জাব।

আহমেদাবাদে শুক্রবার দিনের একমাত্র ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেটে ১৭৯ রান করে দলটি। জবাবে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেটে ১৪৫ রানের বেশি করতে পারেনি বেঙ্গালুরু।

সাত ম্যাচে এটা পাঞ্জাবের তৃতীয় জয়। অন্যদিকে সমান ম্যাচে দ্বিতীয় হারের স্বাদ পেল বিরাট কোহলির দল।

লক্ষ্য তাড়ায় দলীয় ১৯ রানে দেবদুত পাডিক্কালকে হারালেও অধিনায়ক বিরাট কোহলি ও রজত পাতিদারের ব্যাটে এগিয়ে যাচ্ছিল বেঙ্গালুরু। ৪৩ রানের জুটিও গড়েন তারা। কিন্তু এরপর হারপ্রিতের ঘূর্ণি জালে পড়ে দলটি। ৮ রানের ব্যবধানে তুলে নেন তিনটি উইকেট। বর্তমান সময়ের অন্যতম সেরা দুই তারকা ব্যাটসম্যান বিরাট কোহলি ও গ্লেন ম্যাক্সওয়েলকে বোল্ড করে দেন হারপ্রিত। এরপর রাহুলের ক্যাচে পরিণত করে তুলে নেন সময়ের আরেক সেরা ব্যাটসম্যান এবি ডি ভিলিয়ার্সকে।

আর হারপ্রিতের এমন দুর্দান্ত বোলিংয়ে উজ্জীবিত হয়ে ওঠেন দলের বাকী বোলাররাও। দারুণ বোলিং করেন রবি বিশ্নইও। দলীয় ৯৬ রানেই ৭টি উইকেট তুলে নেয় তারা। তবে এরপর হার্শাল প্যাটেল ও কাইল জেমিসন ঝড়ো ব্যাটিংয়ে চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু তা কেবল হারের ব্যবধানই কমিয়েছে।

দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩৫ রানের ইনিংস খেলেন কোহলি। ৩৪ বলে ৩টি চার ও ১টি ছক্কায় এ রান করেন তিনি। ৩০ বলে ২টি চার ও ১টি ছক্কায় রজত করেন ৩১ রান। শেষ দিকে মাত্র ১৩ বলে ৩টি চার ও ২টি ছক্কায় ৩১ রান করেন হার্শাল। জেমিসন ১৬ রান করে অপরাজিত থাকেন।

পাঞ্জাবের পক্ষে ৪ ওভার বল করে ১৯ রানের খরচায় ৩টি উইকেট পান হারপ্রিত। ৪ ওভার বল করে ১৭ রানের বিনিময়ে ২টি উইকেট পান রবি।

এর আগে টস হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নামা পাঞ্জাব দলীয় ১৯ রানেই ওপেনার প্রভসিমরান সিংকে হারায়। তবে দ্বিতীয় উইকেটে ক্রিস গেইলের সঙ্গে দলের হাল ধরেন অধিনায়ক লোকেশ রাহুল। গড়েন ৮০ রানের জুটি। এরপর অবশ্য স্কোরবোর্ডে ১৯ রান যোগ করতে ৪টি উইকেট হারায় দলটি। তবে ষষ্ঠ উইকেটে হারপ্রিতের সঙ্গে ৬১ রানের জুটিতে লড়াকু সংগ্রহই পায় তারা।

দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৯১ রান তুলে অপরাজিত থাকেন অধিনায়ক রাহুল। ৫৭ বলে ৭টি চার ও ৫টি ছক্কায় এ রান করেন অধিনায়ক। গেইলের ব্যাট থেকে আসে ৪৬ রান। ২৪ বলে ৬টি চার ও ২টি ছক্কায় এ রান করেন এ ক্যারিবিয়ান তারকা। ১৭ বলে ১টি চার ও ২টি ছক্কায় হারপ্রিতের করেন অপরাজিত ২৫ রান। 



সাতদিনের সেরা