kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৮ বৈশাখ ১৪২৮। ১১ মে ২০২১। ২৮ রমজান ১৪৪২

ছন্দে ফিরছেন ‘চ্যাম্পিয়ন’ রোমান

সনৎ বাবলা    

১৭ এপ্রিল, ২০২১ ০৪:২৩ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ছন্দে ফিরছেন ‘চ্যাম্পিয়ন’ রোমান

খানিকটা বিচ্যুতির পর আবার পথে ফিরছেন রোমান সানা। তারকার ছন্দে ফেরা দেখে দারুণ খুশি কোচ মার্টিন ফ্রেডরিখ, ‘বাংলাদেশ গেমসে স্কোর খারাপ হয়েছে বলে তাকে বাতিল করে দেওয়া যাবে না। রোমানই দেশের এক নম্বর তীরন্দাজ। তাকে সব সময় গোনায় ধরতে হবে। বিশ্বকাপের ট্রায়ালে সে-ই তো সবাইকে টপকে সেরা হয়েছে।’

রোমান সানা তো আর যেনতেন তারকা নয়। দেশের আর্চারিকে অলিম্পিকে নিয়ে যাওয়া এই তীরন্দাজের নিশানা একটু এদিক-ওদিক হলেই দেশে গেল গেল রব ওঠে। জাতীয় আর্চারি চ্যাম্পিয়নশিপে ভালো ছিল না তাঁর পারফরম্যান্স। সদ্যঃসমাপ্ত বাংলাদেশ গেমসেও দেখা যায়নি তাঁর দাপুটে উপস্থিতি। দেশসেরা তীরন্দাজের পারফরম্যান্সে এমন অধোগতি ভাবিয়ে তুলেছিল সংশ্লিষ্ট সবাইকে। অত্যুৎসাহীরা ‘রোমান সাম্রাজ্য’র পতন পর্যন্ত ভেবে ফেলেছিলেন! কিন্তু তিল তিল করে গড়ে তোলা সাম্রাজ্য কি এত সহজেই হাতছাড়া হবে। সেটা তিনি হতে দেবেন না। বিশ্বকাপের ট্রায়ালে নিন্দুকের সব ভাবনা উড়িয়ে রোমান আবার ফিরেছেন সেরার সরণিতে। তাঁর জার্মান কোচ মার্টিন বলছেন কঠিন পরীক্ষার কথা, ‘তিন দিনের এই ট্রায়ালে আমরা তীরন্দাজদের বিভিন্ন ধরনের পরীক্ষা-নিরীক্ষা নিয়েছি। বিভিন্নভাবে তাদের স্কোর দেখা হয়েছে, পারফরম্যান্স বিশ্লেষণ করা হয়েছে। সেখানে বাকিদের ঠিক পেছনে ফেলে রোমান এগিয়ে। সেরারা এমনই হয়, খারাপ সময়ে নিজেদের তৈরি করে। কিভাবে সেরা ফর্মে ফিরতে হয়, সেটা তারা জানে।’

সুইজারল্যান্ডে আগামী মাসে হবে বিশ্বকাপ আর্চারির স্টেজ-টু এর প্রতিদ্বন্দ্বিতা। ঠিক পরের মাসে প্যারিসে স্টেজ-থ্রি এর লড়াই। দুটি আসরের জন্য দল নির্বাচন প্রক্রিয়া শুরু হয় গত ১৩ এপ্রিল। টঙ্গীতে শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার স্টেডিয়ামে তিন দিনব্যাপী নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় রিকার্ভ ইভেন্টে সেরা হয়েছেন রোমান সানা। বিশ্বকাপে ব্রোঞ্জজয়ী তীরন্দাজের পেছনে এবার জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপের সেরা আলিফ বাংলাদেশ গেমসের সোনাজয়ী রামকৃষ্ণরা। ট্রায়ালের রেজাল্ট অনুযায়ী রিকার্ভে রোমান সানা প্রথম, এরপর রুবেল, রামকৃষ্ণ ও আলিফ। তালিকায় আছে আরো চারজনের নাম। তাঁদের মধ্যে তুলনা করতে গিয়ে কোচ বলছেন, ‘ট্রায়ালে অন্যদের তুলনায় রোমান অনেক এগিয়ে। রোমানের রেকর্ড স্কোর ৬৮৬। সেটা এখনো ছুঁতে না পারলেও তার উন্নতি দৃশ্যমান। ট্রায়ালে বিভিন্ন রকমের পরীক্ষায় সে ৬৭০-৬৭২ স্কোর করেছে। উন্নতির এই ধারা বজায় থাকলে অবলীলায় ফিরবে তার আত্মবিশ্বাস।’ মাঝে খারাপ করায় তাঁর অলিম্পিক যাওয়া নিয়েও যে খানিকটা সংশয় তৈরি হয়েছিল। তবে মার্টিনের মনে কোনো সংশয় নেই, ‘নিয়মানুযায়ী সে দেশের জন্য অলিম্পিক প্লেস জিতেছে, তবে এখনো পর্যন্ত তার মানের কেউ নেই। রোমান ইজ দ্য চ্যাম্পিয়ন।’

আসলে তারকার একটু বিচ্যুতি হলেই শোরগোল পড়ে। তাই ছন্দে ফেরাটাও আসে দারুণ সুখবর হয়ে। তিনি ফিরছেন, সঙ্গী-সাথিরা সেভাবে ফিরলে আরেকটি সুখবর পেতে পারে বাংলাদেশ। রিকার্ভ দলগতে কোটা প্লেসের সুখবর! বিশ্বকাপে যাওয়ার মূল উদ্দেশ্যই হলো এটা। এ জন্য জার্মান কোচ তালিকা জমা দিয়েছেন ফেডারেশনের কাছে। অর্থসংগতি বিবেচনায় নিয়ে ফেডারেশনই চূড়ান্ত দল ঘোষণা করবে। রিকার্ভ টিম ইভেন্ট তিন তীরন্দাজের খেলা হলেও কোচ চান চারজনের দল, অর্থাৎ একজন বাড়তি চান। তবে এই অলিম্পিক কোটা সহজ হবে বলে মনে করেন না কোচ, ‘অলিম্পিকে পদকজয়ী আমেরিকা, ইতালি, জার্মানি এখনো অলিম্পিকের কোটা পায়নি। তাই আমাদের জন্য এটা মোটেও সহজ লড়াই হবে না। এর পরও লড়তে হবে। অভিজ্ঞতা বাড়বে ও বড় মঞ্চে খেলার সাহস তৈরি হবে।’

এমন অভিজ্ঞতা ও সাহসের জোরেই রোমান সানা বাংলাদেশ আর্চারিকে নিয়ে গেছেন অলিম্পিকের মঞ্চে।



সাতদিনের সেরা