kalerkantho

শুক্রবার। ৩১ বৈশাখ ১৪২৮। ১৪ মে ২০২১। ০২ শাওয়াল ১৪৪২

উইকেটশূন্য মুস্তাফিজ; পাঞ্জাবের বড় সংগ্রহ

অনলাইন ডেস্ক   

১২ এপ্রিল, ২০২১ ২১:৫৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



উইকেটশূন্য মুস্তাফিজ; পাঞ্জাবের বড় সংগ্রহ

রাজস্থান রয়্যালসের প্রথম ম্যাচে আজ মাঠে নেমেছেন মুস্তাফিজুর রহমান। দ্বিতীয় বোলার হিসেবে তিনি বোলিং করেছেন। প্রথম ওভারে দারুণ বোলিং করলেও পরে বেশ রান দিয়েছেন। অবশ্য, মুস্তাফিজ কম রান দেওয়া বোলারদের কাতারেই আছেন। তার চেয়েও বেশি রান দিয়েছেন রাহুল তেওয়াটিয়া, বেন স্টোকস, শ্রেয়স গোপালরা। রাহুল-গেইল-দীপকের দাপটে পাঞ্জাবের সংগ্রহ দাঁড়িয়েছে ৬ উইকেটে ২২১ রান।

মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে টস জিতে ফিল্ডিং বেছে নেয় রাজস্থান রয়্যালস। ইনিংসের দ্বিতীয় তথা নিজের প্রথম ওভারের দ্বিতীয় বলেই মায়াঙ্ক আগরওয়ালকে এলবিডাব্লিউয়ের ফাঁদে ফেলেন মুস্তাফিজ। কিন্তু আম্পায়ার আবেদনে সাড়া দেননি। রাজস্থান রিভিউও নেয়নি। পরে টিভি রিপ্লেতে স্পষ্ট দেখা যায়, সেটি আউট ছিল। শেষ বলে মিসফিল্ডিংয়ের দরুণ একটি বাউন্ডারি হজম করতে হয় দ্য ফিজকে।

প্রথম ওভারে মুস্তাফিজ রান দিয়েছেন ১১। এর মাঝে একটি ওয়াইড বলও ছিল। ইনিংসের তৃতীয় ওভার সাফল্য পায় রাজস্থান। চেতনের বলে উইকেটের পেছনে অধিনায়ক সঞ্জু স্যামনের তালুবন্দি হন ৯ বলে ১৪ রান করা মায়াঙ্ক আগরওয়াল। এরপরেই ক্যারিবিয়ান দানব ক্রিস গেইলকে নিয়ে দ্বিতীয় উইকেটে ৪৫ বলে ৬৭ রানের জুটি উপহার দেন অধিনায়ক লোকেশ রাহুল। ২৮ বলে ৪ বাউন্ডারি আর ২ ওভার বাউন্ডারিতে ৪০ রান করা গেইলকে ফিরিয়ে জুটি ভাঙেন রায়ান পরাগ।

দ্য ইউনিভার্স বসের বিদায়ের পর জমে উঠে তৃতীয় উইকেট জুটি। রাহুলের সঙ্গে যোগ দেন দীপক হুদা। ৩০ বলে ফিফটি করে ফেলেন রাহুল। এরপর দীপক ফিফটি করেন মাত্র ২০ বলে। ২৮ বলে ৪ বাউন্ডারি আর ৬ ওভার বাউন্ডারিতে ৬৪ রান করা দীপককে ফিরিয়ে ১০৫ রানের তৃতীয় উইকেট জুটি ভাঙেন ক্রিস মরিস। একই ওভারে তিনি ফিরিয়ে দেন নিকোলাস পুরানকে (০)।

অপরপ্রান্তে লোকেশ রাহুলকে কেউ থামাতে পারছিলেন না। শেষ ওভারে মুস্তাফিজ দেন ১৫ রান। ফলে ৪ ওভারে ৪৫ রান দিয়ে তিনি উইকেটশূন্য। চারটি বাউন্ডারির পাশাপাশি লোকেশ রাহুলের থেকে একটা ছক্কাও হজম করেছেন। ৩টি ওয়াইডের সঙ্গে করেছেন ১টি নো বল। ফ্রি হিটে একটা বাউন্ডারিও খেয়েছেন। অধিনায়ক রাহুল ৫০ বলে ৭ চার ৫ ছক্কায় ৯১ রান করে শেষ ওভারে আউট হন। কিংসদের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৬ উইকেটে ২২১ রান।



সাতদিনের সেরা