kalerkantho

শুক্রবার। ৩১ বৈশাখ ১৪২৮। ১৪ মে ২০২১। ০২ শাওয়াল ১৪৪২

পৃথ্বী-ধাওয়ানের তাণ্ডব, উড়ে গেল ধোনির চেন্নাই

অনলাইন ডেস্ক   

১১ এপ্রিল, ২০২১ ০১:২৭ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



পৃথ্বী-ধাওয়ানের তাণ্ডব, উড়ে গেল ধোনির চেন্নাই

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ-আইপিএলে চেন্নাই সুপার কিংসকে হারিয়ে শুভ সূচনা করেছে দিল্লি ক্যাপিটালস। পৃথ্বী-ধাওয়ানের তাণ্ডবে নিজেদের প্রথম ম্যাচ অনায়াসে জিতেছে গত আসরের ফাইনালিস্ট দিল্লি ক্যাপিটালস। শনিবার (১০ এপ্রিল) মুম্বাইর ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে চেন্নাইকে ৭ উইকেটে হারাল দিল্লি।

চেন্নাইর ১৮৮ রান ৮ বল আগেই পেরিয়ে যায় রিশভ পান্তের দল। দলের জয়ে দুই ওপেনারই সহজ করে দেন খেলা। ৫৪ বলে ৮৫ আসে ধাওয়ানের ব্যাট থেকে। মাত্র ৩৮ বলে ৭২ করেছেন পৃথ্বী।

১৮৯ রান তাড়া করতে নেমে উড়ন্ত সূচনা আনেন দুই ওপেনার পৃথ্বী আর ধাওয়ান। সম্প্রতি দুজনেই ছিলে দারুণ ছন্দে। আইপিএলের আগে বিজয় হাজারে ট্রফিতে রানের বন্যা বইয়ে দিয়েছেন পৃথ্বী। ধাওয়ান রান পেয়েছেন ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে। সেই ছন্দ বহাল থাকল আইপিএলেও।

চার-ছয়ের উৎসব চলে দুই প্রান্ত থেকেই। তাদের তোপে কোনো বোলারই থিতু হতে পারছিলেন না। অনেকটা অসহায় দেখাচ্ছিল চেন্নাই অধিনায়ক মাহেন্দ্র সিং ধোনিকে। রান আসছিল ওভারপ্রতি ১০ করে। মনে হচ্ছিল তারাই শেষ করে দেবেন ম্যাচ। ১৪তম ওভারে গিয়ে দুজনকে আলগা করা গেলেও ম্যাচ ততক্ষণে দিল্লির পকেটে। বোর্ডে এসে গেছে ১৩৮ রান।

ডোয়াইন ব্র্যাভোর বলে ফেরার আগে ৩৮ বলে ৯ চার, ৩ ছক্কায় ৭২ করে যান পৃথ্বী। এরপর অধিনায়ক পান্তকে এক পাশে রেখে তড়িঘড়ি কাজ সমাধা করতে থাকেন ধাওয়ান। সেঞ্চুরির আভাস দিচ্ছিলেন। তবে ধাওয়ান থেমেছেন আশি ছাড়িয়ে। ৫৪ বলে ৮৫ করা অভিজ্ঞ বাঁহাতিকে আউট করেন শার্দুল ঠাকুর। শেষ দিকে আরেক উইকেট ফেলা গেলেও চেন্নাইর পক্ষে ম্যাচের ফলে কোনো প্রভাব আনা সম্ভব হয়নি।

ওয়াংখেড়ের রানে ভরা পিচে টস জিতে চেন্নাইকে ব্যাট করতে পাঠিয়েই চেপে ধরে দিল্লি। দলের ৭ রানেই দুই ওপেনার রতুরাজ গায়কোয়াড় আর ফাফ দু প্লে ফিরে যান। ধুঁকতে থাকা চেন্নাই এরপর খেলায় ফেরে মঈন আলি-সুরেশ রায়নার ব্যাটে। তৃতীয় উইকেটে দুজনে আনেন ৫৩ রান। ২৪ বলে ৩৬ করে রবীচন্দ্রন অশ্বিনের শিকার হন মঈন। এরপর আম্বাতি রাইডুর সঙ্গে আরেক জুটি পান গেল আসরে না খেলা রায়না। দুজনে আনেন আরো ৬৩ রান। ১৬ বলে ২৬ করে রাইডু আউটে ভাঙ্গে এই জুটি।

৩২ বলে ফিফটি তুলে রায়না ফিরেছেন ৩৬ বলে ৫৪ করে। অধিনায়ক ধোনি শেষ ৫ ওভারের ঝড়ের জন্য নেমেই বোল্ড হয়ে যান। পরের দিকে দলকে ভালো অবস্থায় নিয়ে যাওয়ার কৃতিত্ব রবীন্দ্র জাদেজা আর স্যাম কারানের। দুজনের জুটিতে আসে আরো ৫১ রান। স্যাম মাত্র ১৫ বলে করেন ৩৪, জাদেজা ২৬ আনেন ১৭ বলে। দু শ'র কাছে গিয়েও অবশ্য লাভ হয়নি। দ্বিতীয় ইনিংসে উইকেট ব্যাটসম্যানদের জন্য হয়ে যায় আরো সহজ। দিল্লির ছন্দে থাকা দুই ওপেনারের দিনে ম্যাচ হয়ে যায় একপেশে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর
চেন্নাই সুপার কিংস: ২০ ওভারে ১৮৮/৭ (গায়কোয়াড় ৫, দু প্লেসি ০, মঈন ৩৬, রায়না ৫৪, রাইডু ২৩, জাদেজা ২৬*, ধোনি ০, স্যাম ৩৪* ; ওকস ২/১৮ , আবেশ ২/২৩,  অশ্বিন ১/৪৭, টম ১/৪০ , মিশ্র ০/২৭, স্টয়নিস ০/২৬)

দিল্লি ক্যাপিটালস: ১৮.৪ ওভারে ১৯০  (পৃথ্বি ৭২, ধাওয়ান ৮৫, পান্ত  ১৪*, স্টয়নিস ১৪, হেটমায়ার ০* ; চাহার ০/৩৬, স্যাম ০/২৪, শার্দুল ২/৫৩, জাদেজা ০/১৬ , মঈন  ০/৩৩, ব্র্যাভো ১/২৮)

ফল: দিল্লি ক্যাপিটালস ৭ উইকেটে জয়ী।
ম্যাচ সেরা: শেখর ধাওয়ান। 



সাতদিনের সেরা