kalerkantho

শুক্রবার। ৩১ বৈশাখ ১৪২৮। ১৪ মে ২০২১। ০২ শাওয়াল ১৪৪২

রোহিতের জুতায় কী লেখা ছিল? কেনই-বা লেখা ছিল?

অনলাইন ডেস্ক   

১০ এপ্রিল, ২০২১ ১৯:৪৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রোহিতের জুতায় কী লেখা ছিল? কেনই-বা লেখা ছিল?

শুরু হয়ে গেছে আইপিএল। গতকাল উদ্বোধনী ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল বর্তমান চ্যাম্পিয়ন মুম্বাই আর বিরাট কোহলির ব্যাঙ্গালোর। এই ম্যাচে মুম্বাই অধিনায়ক রোহিত শর্মাকে অন্যরকম একজোড়া জুতা পরে মাঠে নামতে দেখা যায়। ব্যাটিংয়ে সেভাবে নজর কাড়তে না পারলেও হিটম্যানের স্পোর্টস শু আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে। যে স্পোর্টস শু'য়ে লেখা 'সেভ দ্য রাইনো'।

রোহিতের বহুদিনের স্বপ্ন ছিল, ক্রিকেট মাঠে বিলুপ্তপ্রায় একশৃঙ্গ গণ্ডারদের নিয়ে বিশ্ববাসীকে সচেতন করবেন। এর জন্য আইপিএলের চেয়ে ভালো মঞ্চ এই মুহূর্তে নেই। একশৃঙ্গ গণ্ডারের সংরক্ষণ নিয়ে অনেক আগে থেকেই কাজ করে আসছেন ভারতের এই তারকা ব্যাটসম্যান। ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বরে ডাব্লিউডাব্লিউএফ ইন্ডিয়া এবং এনিম্যাল প্ল্যানেটের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়ে তিনি 'রোহিত ফর রাইনোস' ক্যাম্পেইন শুরু করেন।

ম্যাচ শেষে টুইটারে জুতার ছবি শেয়ার করে রোহিত লিখেছেন, 'যে খেলাটাকে সবচেয়ে বেশি ভালোবাসি, সেই খেলার মঞ্চে কিছু বার্তা দেওয়ার বিষয়টি সব সময় আমার কাছে স্পেশাল। প্রতিটা পদক্ষেপ আসলে মূল্যবান'। রোহিতের এই বন্যপ্রাণী সংরক্ষণের বার্তা বিশেষ প্রশংসা আদায় করে নিয়েছে কেভিন পিটারসেনের। তিনিও রোহিতের ছবি শেয়ার করে লিখেছেন, 'গ্রেট রোহিত শর্মার বুট। যে সব সময় কিছু না কিছু উদ্দেশ্য নিয়ে খেলে- সেভিং রাইনোস'।

উল্লেখ্য, সারাবিশ্বে বিলুপ্তপ্রায় প্রজাতির একশৃঙ্গ ভারতীয় গণ্ডার আছে মাত্র ৩৫০০টি। এর মধ্যে ৮০ শতাংশই আছে ভারতে। সিন্ধু, গঙ্গা, ব্রহ্মপুত্র নদীর উপত্যকায় একসময় পর্যাপ্ত সংখ্যায় এই প্রজাতির গণ্ডার পাওয়া যেত। এখন পশ্চিমবঙ্গ, আসাম, উত্তর প্রদেশ, বিহারের নির্দিষ্ট কিছু অঞ্চলেই দেখতে পাওয়া যায় এই গণ্ডারদের। নির্বিচারে চোরাশিকার, অরণ্য ধ্বংস এবং রোগ সংক্রমণজনিত মৃত্যুর কারণে আসামের একশৃঙ্গ প্রজাতির গণ্ডার বিলুপ্ত হয়ে যাচ্ছে।



সাতদিনের সেরা