kalerkantho

শুক্রবার । ৩ বৈশাখ ১৪২৮। ১৬ এপ্রিল ২০২১। ৩ রমজান ১৪৪২

নিউজিল্যান্ডের মিডিয়ায় তামিম

'আমাদের প্রধানমন্ত্রী অগ্রণী ভূমিকা নিয়ে টিকার ব্যবস্থা করেছেন'

অনলাইন ডেস্ক   

১০ মার্চ, ২০২১ ১৫:৪৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



'আমাদের প্রধানমন্ত্রী অগ্রণী ভূমিকা নিয়ে টিকার ব্যবস্থা করেছেন'

নিউজিল্যান্ডে সাংবাদিকদের মুখোমুখি তামিম। ছবি : সংগৃহীত

নিউজিল্যান্ড সফরে গিয়ে ১৪ দিন কোয়ারেন্টিন থেকে মুক্তি পেয়েছে বাংলাদেশ দল। সবাই নিয়ম মানায় নিউজিল্যান্ডের সরকারও খুব খুশি। কোয়ারেন্টিন থেকে মুক্ত হয়েই করোনাভাইরাসের টিকা পাওয়ার ক্ষেত্রে দূরদর্শী ভূমিকার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবাল। তিনি বলেছেন, দেশবাসীকে টিকা দেওয়ার ব্যবস্থা প্রধানমন্ত্রী অনেক আগেই করে রেখেছিলেন।

করোনাভাইরাস মোকাবেলায় সবচেয়ে সফল দেশটির নাম নিউজিল্যান্ড। সেখানে আইন যেমন কড়া, তেমনই নাগরিকরা সবাই আইন মানে। এমন একটি দেশের সঙ্গে বাংলাদেশের তুলনাই চলে না। গত ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে বাংলাদেশে টিকা দেওয়া শুরু হয়। নিউ জিল্যান্ডে শুরু হয়েছে ২০ ফেব্রুয়ারি থেকে। তামিমরা টিকা নিয়েই বিমানে উঠেছিলেন। এবার নিউজিল্যান্ডের সংবাদমাধ্যমে দেশের সফলতম ব্যাটসম্যান তামিম বলেন, টিকার ক্ষেত্রে বাংলাদেশ জাতি হিসেবে গর্ব করতে পারে।

ক্রাইস্টচার্চ ছাড়ার আগে স্থানীয় গণমাধ্যমকে দেশসেরা ওপেনার বলেন, 'কোনো একটা পর্যায়ে সবাইকেই নিতে হবে। আমাদের দেশ অসাধারণ কাজ করেছে। আমাদের প্রধানমন্ত্রী অগ্রণী ভূমিকা নিয়ে আগে থেকেই সব ব্যবস্থা করেছেন। দারুণ কাজ করেছেন তিনি।জাতি হিসেবে আমরা খুবই সৌভাগ্যবান। শুধু আমরা ক্রিকেটাররাই নয়, সাধারণ মানুষও ভ্যাকসিন পাচ্ছে এবং সবচেয়ে ভালো ব্যাপার হলো, সবার জন্য ফ্রি। জাতি হিসেবে আমরা যা করেছি, বাংলাদেশকে নিয়ে আমি গর্বিত।'

টিকার প্রথম ডোজ নিয়ে গেলেও অবশ্য নিউ জিল্যান্ডে নিয়ম মেনে ১৪ দিন কোয়ারেন্টিনে থাকতে হয়েছে তামিমদের। তিনি আশা করেন, অন্য আরও অনেক দেশই বাংলাদেশে অনুসরণ করে টিকা নেওয়ার পথে হাঁটবে। তামিমের ভাষায়, 'আমি নিশ্চিত অন্যান্যও দেশও এটা অনুসরণ করবে এবং আগে হোক বা পরে, সবাইকে নিতেই হবে। আমি নিজেও প্রথম ডোজ নিয়েছি। খারাপ লাগেনি, কোনো কিছু অনুভব করিনি। দারুণ ছিল সবকিছু।'

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা