kalerkantho

শনিবার । ২৭ চৈত্র ১৪২৭। ১০ এপ্রিল ২০২১। ২৬ শাবান ১৪৪২

নতুন পথচলার শুরু মোহামেডানের

ক্রীড়া প্রতিবেদক   

৭ মার্চ, ২০২১ ০৩:০৪ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



নতুন পথচলার শুরু মোহামেডানের

অনেক দিন পর ঐতিহ্যের পতাকা উড়িয়ে মোহামেডান লা মেরিডিয়ান হোটেলে। এমন ক্লাবের সাধারণ সভা তো পাঁচতারা হোটেলেই মানায়। নির্বাচনী সাধারণ সভা উপলক্ষে হওয়ায় উত্সবের মেজাজ থাকার কথা, সেটাও হাজির। সঙ্গে সাবেক খেলোয়াড়-কোচ-সংগঠকদের উপস্থিতিতে এটা রূপ নেয় সাদা-কালোর পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে। গত এক দশকে ক্লাবের ভেতর-বাইরে কোথাও এমন সম্মিলনীর কথা মনে পড়ে না। সাদা-কালোয় যে এত অনুরাগ, সেটাও প্রকাশ্যে আসে অনেক দিন পর।

এক দশক কেন, গত ২৫ বছরে ঐতিহ্যবাহী ক্লাবটি একটু একটু করে ক্ষয়ে গেছে। সেই ২০০২ সালের পর ফুটবলে লিগ জেতে না। অন্যান্য খেলায়ও নেই উচ্ছ্বসিত হওয়ার মতো নৈপুণ্য। এর সঙ্গে ক্যাসিনো কেলেঙ্কারির যোগে সব হারিয়ে সাদা-কালোর দীনহীন অবস্থা। এ রকম প্রেক্ষাপটে ক্লাবের একদল সংগঠক ক্লাবটির চেহারা বদলে ঐতিহ্যের পরম্পরায় ফিরিয়ে আনার দাবিতে মরিয়া হয়ে ওঠেন। সে অনুযায়ী ক্লাবের অন্তর্বর্তীকালীন প্রেসিডেন্ট অ্যাটর্নি জেনারেল অ্যাডভোকেট এ এম আমিন উদ্দিনের নেতৃত্বে একদল সংগঠকের শুভ উদ্যোগে দীর্ঘদিনের জঞ্জাল পেরিয়ে শেষ পর্যন্ত কালকের আশাব্যঞ্জক নির্বাচন পেয়েছে মোহামেডান। আশাব্যঞ্জক, কারণ নির্বাচনের আবহ তৈরি হলেই একদল সব সময় আদালতে দৌড়ায়। এটা ছিল নিত্য ঘটনা এবং মোহামেডানের দুর্ভাগ্য। এই পাঁকচক্র থেকে বেরিয়ে তারা যে সুন্দর আগামীর ভোট করতে পেরেছে, এটাও কম সৌভাগ্যের নয়। 

ভোটের আগেই সভাপতি পদে সাবেক সেনাপ্রধান আব্দুল মুবীন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। পরিচালনা পরিষদের বাকি ১৬ জনের ভাগ্য নির্ধারণ হয়েছে কালকের ভোটে। ভোটাভুটির আগেই সাধারণ সভায় পুরনো ভয়ের কথা মনে করিয়ে দেন ক্লাবের সাধারণ সদস্য ও সাবেক তারকা জসিম উদ্দিন জোসি, ‘আমরা আগের মতো দেখতে চাই না মোহামেডানকে। যারা নির্বাচিত হয়ে আসবেন, তারা কেউ ক্লাবের নাম ভাঙিয়ে ব্যবসা করবেন না দয়া করে। এসব অপকর্মেই ক্লাবটির আজ এই অবস্থা। এর চেহারা বদলের জন্য টাকার দরকার। পরিচালকরা টাকার সংস্থান করতে পারলে মোহামেডান আবার সগৌরবে ফিরবে।’ আরেক সাধারণ সদস্য নীলুফার মনি বলেন, ‘রাজনীতির ভিত্তিতে এই ক্লাব গঠিত নয়। তাই কে কোন দল করে, সেসব ভুলে গিয়ে আমরা শুধু মোহামেডানের কথাই ভাবি।’

দীর্ঘদিন প্রিয় ক্লাবের চত্বর না মাড়ালেও মিনহাজুল আবেদীন নান্নু গতকাল গিয়েছিলেন সাধারণ সভায়। সাবেক এই তারকা ক্রিকেটারের কাছে এই ক্লাবটি সেকেন্ড হোম, ‘এখনো ক্লাবের ফুটবল দলের খবর রাখি। কুমিল্লায় মোহামেডান-আবাহনী ম্যাচটি দেখেছি। আমি উপভোগ করেছি, মোহামেডান তো খারাপ খেলেনি। আশা করি এই নির্বাচনের সুবাদে সাদা-কালোর জৌলুস আবার ফিরবে।’

শুধু নান্নু নন, অনেক পুরনো তারকা হাজির হয়ে রাঙিয়েছেন সাদা-কালোর এই নির্বাচনী পুনর্মিলনী। ক্লাবের সাবেক ফুটবলার শফিকুল ইসলাম মানিক ও মোহামেডানের কোচ শন লেন বসে যান দ্বিপক্ষীয় আড্ডায়। মানিক ক্লাবের সাধারণ সদস্য হলেও এখন শেখ জামালের কোচ, মোহামেডানের বিপক্ষে সামনের ম্যাচ নিয়েই হয়তো কথা বলছিলেন শনের সঙ্গে। সভায় এক সদস্য তোলেন মোহামেডানের ২৫ একর জমির গল্প। এটাও দীর্ঘদিনের গল্প, সাভারের ওই জমিতে এটা হবে, সেটা হবে—এসব গল্প বহুবার শোনা গেছে ক্লাবের সাবেক অ্যাডমিন ইনচার্জ লোকমান হোসেন ভূঁইয়ার মুখে। গল্পের গরু আগে গাছে চড়িয়ে দিলেও গতকাল অন্তর্বর্তীকালীন সভাপতি আমিন উদ্দিন নিচে নামিয়ে এনেছেন, ‘ওই জায়গা নিয়ে বন বিভাগের আপত্তি আছে। কিছু করার আগে তাদের সঙ্গে বসে আলাপ-আলোচনা করে একটা সমাধানে পৌঁছাতে হবে। এর পরই সম্ভব। আশা করি, নতুন পরিষদ এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবেন।’ 

নতুন পরিষদে ১৬ পরিচালক পদে ২০ জন লড়াই করেছেন। ভোটার ৩৩৭ জন হলেও ভোট দিয়েছেন ২৩৯ জন। এই ভোটে বড় প্রভাব থাকার কথা ক্লাবের দীর্ঘদিনের অ্যাডমিন ইনচার্জ লোকমান হোসেন ভূঁইয়ার। তিনি সাধারণ সভায় হাজির না হলেও বেলা ১টার পরে আসেন সদলবলে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা