kalerkantho

মঙ্গলবার । ৩০ চৈত্র ১৪২৭। ১৩ এপ্রিল ২০২১। ২৯ শাবান ১৪৪২

শেষদিকে মদ-গাঁজায় বুঁদ হয়ে থাকতেন ম্যারাডোনা!

অনলাইন ডেস্ক   

২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ২০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শেষদিকে মদ-গাঁজায় বুঁদ হয়ে থাকতেন ম্যারাডোনা!

তিন মাস হয়ে গেছে আর্জেন্টাইন কিংবদন্তি দিয়াগো ম্যারাডোনার প্রায়াণের। এতদিন পরেও তাকে নিয়ে আলোচনা থামছে না। তাঁর পরিবার এই মৃত্যুকে সন্দেহজনক বলছেন। চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে উঠেছে অবহেলার অভিযোগ। আজীবন বেপরোয়া ম্যারাডোনা শেষ জীবনেও ইচ্ছামতো থেকেছেন, নেশার জগতে ডুব দিয়েছেন। এবার তাঁর দুই মেয়ে জিয়ান্নিনা ও ইয়ানা জানিয়েছেন, মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচারের আগে গাঁজা-মদের নেশায় বুঁদ হয়ে থাকতেন 'ফুটবল ঈশ্বর'।

আর্জেন্টাইন সংবাদমাধ্যম টিওয়াইসি স্পোর্টস জানিয়েছে, গত অক্টোবরে মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণজনিত অস্ত্রোপচারের আগে নিজের বাসায় ছিলেন ম্যারাডোনা। বাসায় থাকাকালীন তিনি নিয়মিত মদ্যপান এবং 'গাঁজা' সেবন করতেন। এই তথ্য দিয়েছে তার দুই মেয়ে। চিকিৎসকেরা নাকি এ বিষয়ে জানতেন। কিন্তু তিগ্রের বিচারিক বিভাগ থেকে এর আগে জানানো হয়েছিল ম্যারাডোনা 'কোনো রকম নেশাদ্রব্য গ্রহণ করেননি'। এসব পাল্টাপাল্টি মন্তব্যের কারণে ম্যারাডোনার মৃত্যু ঘিরে একের পর এক রহস্য দান বাঁধছে।

আদালতে ম্যারাডোনার দুই মেয়েকে আইনজীবী বাকু জিজ্ঞাসা করেন যে, তাদের বাবাকে কখনো নেশাদ্রব্য গ্রহণ করতে দেখেছেন কি না? এর উত্তরে ইয়ানা বলেন, 'চার্লির (গাঁজার সরবরাহকারী কার্লোস ইবনেজ) সঙ্গে তাকে গাঁজা খেতে দেখেছেন। গন্ধের কারণে সেটা গাঁজা বলেই মনে হয়েছে।' ম্যারাডোনাকে মদ খেতে দেখেছেন কি না- এ প্রশ্নে দুই মেয়েই 'হ্যাঁ' সূচক উত্তর দেন। শুনানির শেষে আইনজীবী বাকু বলেন, 'সবাই জানে যে, ম্যারাডোনা মদ্যপান করতেন ও গাঁজা সেবন করতেন। কিন্তু তিগ্রেতে (যেখানে তিনি মারা গেছেন) তিনি কোনো ধরনের নেশাদ্রব্য গ্রহণ করেননি।'

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা