kalerkantho

সোমবার । ১৬ ফাল্গুন ১৪২৭। ১ মার্চ ২০২১। ১৬ রজব ১৪৪২

আমরা সমালোচকদের ভুল প্রমাণ করেছি : উইন্ডিজ অধিনায়ক

অনলাইন ডেস্ক   

১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৯:৪৯ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



আমরা সমালোচকদের ভুল প্রমাণ করেছি : উইন্ডিজ অধিনায়ক

ট্রফি হাতে গর্বিত উইন্ডিজ অধিনায়ক। ছবি : এএফপি

২০১২ সালের পর এশিয়ার মাটিতে প্রথম টেস্ট সিরিজ জয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক ক্রেইগ ব্রাফেট বলেছেন, এই সিরিজ জয়ই প্রমাণ করে- দল নিয়ে যে সব সমালোচনা করা হচ্ছিল, তা সঠিক নয়। এশিয়ার মাটিতে এর আগে বাংলাদেশের বিপক্ষেই সর্বশেষ টেস্ট সিরিজ জিতেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এবারও তাই ঘটল। নিয়মিত অধিনায়ক জেসন হোল্ডারসহ প্রথম সারির ক্রিকেটারদের অনুপুস্থিতিতে ক্যারিবীয় দলটিকে 'আন্ডার ডগ' হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছিল।

২০১৮ সালে পূর্ণশক্তির ক্যারিবীয় ক্রিকেট দল বাংলাদেশ সফরে এসেও হোয়াট ওয়াশ হয়েছিল টাইগারদের কাছে। যে কারণে খর্ব শক্তির ওয়েস্ট ইন্ডিজ যে এখানে এসে সিরিজ জয় করবে সেটি কেউ চিন্তা করেনি। কিন্তু তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে হোয়াইট ওয়াশ হবার পরও ব্রাফেট বার বার বলেছেন, দলটির উপর তার পুরো আস্থা রয়েছে। তারা টেস্ট সিরিজ জয় করতে পারবে।

আজ ১৭ রানে দ্বিতীয় টেস্ট জয়ের মাধ্যমে ২-০ ব্যবধানে সিরিজ নিশ্চিতের পর ক্যারিবীয় অধিনায়ক বলেন, 'আমাদের কাছে ক্রিকেটই সবকিছু। আমাদের ভক্ত সমর্থকরা গর্বিত হবে। আমাদের বিপক্ষে সবাই লিখে গেছে। তবে আমরা সেটিকে আমলে নেইনি। বরং উপভোগ করেছি। আমরা প্রমাণ করেছি তাদের ধারণা ঠিক ছিলনা।'

চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত সিরিজের প্রথম টেস্টে ৩৯৫ রানের বিশাল টার্গেট তাড়া করে ৩ উইকেটে জয়লাভ করেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এটিকে দলীয় সামর্থ্যের ফসল বলে বর্ণনা করেন অধিনায়ক ব্রাথওয়েট। সফরকারী দলনেতা বলেন, 'আমি বলতে চাই, এটি দলগত সফলতা। ওয়ানডে দল ভালো করেনি। কিন্তু এখানে আমরা (ভালো করতে) চেয়েছি। আমাদের একটি পরিকল্পনা ছিল। সেটি আমরা উপভোগ করেছি এবং সিরিজটি জয় করেছি।'

ব্রাফেট বলেন, '২০১২ সালের পর প্রথমবারের মতো এশিয়ার মাটিতে সিরিজ জয় করাটা দারুন ব্যাপার। আমরা অনেক খেলোয়াড়কে রেখে এসেছি, অতিক্রম করেছি করোনা প্রটোকল। ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের নেতৃত্ব দেয়ার সুযোগ পাওয়ায় আমি সৃষ্টিকর্তাকে ধন্যবাদ জানাই। ছেলেরা পরিকল্পনার প্রতি অবিচল ছিল, সুশৃঙ্খলভাবে খেলেছে। এদেরকে নিয়ে আমি গর্বিত।'

প্রথম টেস্টে কাইল মায়ার্সের অপরাজিত ২১০ রানের দানবীয় ইনিংসে জয়লাভ করেছিল ওয়েস্ট ইন্ডজ। পাশাপাশি গোটা সিরিজে ধারবাহিক খেলে ২৩১ রান করেছেন সতীর্থ এনক্রুমা বোনার। দুইজনেরই আলাদা প্রশংসা করে ব্রাফেট বলেন, 'প্রথম টেস্টে মায়ার্সের পারফর্মেন্স বিস্ময়কর কিছু ছিল না। প্রথমিক বিদ্যালয়ে পড়ার সময় থেকে আমি তাকে চিনি। বোনার ও অন্যরা সবাই এই সফরে এগিয়ে যেতে চেয়েছিল। মোসেলে অবশ্য রান পাচ্ছিলেন না। শেষ পর্যন্ত তিনিও খরা কাটিয়ে উঠেছেন।'

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা