kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৯ ফাল্গুন ১৪২৭। ৪ মার্চ ২০২১। ১৯ রজব ১৪৪২

'সাকিব-মুশফিক ভাইয়েরা তরুণদের চেয়েও বেশি পরিশ্রম করেন'

অনলাইন ডেস্ক   

২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ২০:৫৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



'সাকিব-মুশফিক ভাইয়েরা তরুণদের চেয়েও বেশি পরিশ্রম করেন'

মানসিক ও কৌশলগত উন্নতি লাভের পর লম্বা ভার্সনের ক্রিকেটে খেলার জন্য প্রস্তুত বাংলাদেশ দলের তরুণ ব্যাটসম্যান ইয়াসির আলী চৌধুরী রাব্বি। বাংলাদেশের ক্রিকেটে তার মধ্যে দারুন সম্ভাবনা দেখা দিলেও ওই দুটি বিষয়ে তার মধ্যে ঘাটতি দেখা দিয়েছিল।জাতীয় দলের প্রাইমারি ক্যাম্পে বেশ কিছুদিন ধরে থাকলেও কখনো মুল দলে জায়গা পাননি ইয়াসির। এবার তিনি সেই বাঁধা অতিক্রম করেছেন। উইন্ডিজের বিপক্ষে দুই ম্যাচের প্রথমটি অনুষ্ঠিত হবে তার নিজ শহর চট্টগ্রামে। এখন তিনি অভিষেকের আশায় আছেন।

আজ মঙ্গলবার সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে রাব্বি বলেন, 'চট্টগ্রাম টেস্ট আয়োজন করছে এটি স্থানীয় হিসেবে আমাদের জন্য গৌরবের বিষয়। টেস্ট দলের অংশ হতে পেরে আমি সত্যি উচ্ছ্বসিত। মানসিক দৃঢ়তা নিয়ে গত এক বছরে আমি আল্লাহর রহমতে উন্নতি করেছি। আসলে আগের এক দুইটি খারাপ ইনিংস খেলে আমি মানসিকভাবে কিছুটা বিধ্বস্ত হয়েছিলাম। ওই সময় আমি মানসিক ভাবে ভেঙ্গে পড়েছিলাম। তবে এখন আমার মানসিকতার উন্নতি হয়েছে। আমার মনে হয় মানসিক দিক থেকে আমি এখন অনেক বেশি এগিয়েছি।’

তরুণ এই ব্যাটসম্যান আরো বলেন, 'একই সঙ্গে আমি কৌশলগত দিকেও উন্নতি লাভ করেছি। নেইল ম্যাকেঞ্জির (সাবেক ব্যাটিং কোচ) সঙ্গে কাজ করার সময় আমি অনেক কিছু শিখেছি। কৌশলগত কিছু ভুল তিনি আমাকে শুধরে দিয়েছেন। এখন জাতীয় দলে ডাক পেয়ে আমি ব্যাটিং কোচ হিসেবে জন লুইসকে পেয়েছি। আমি নিজের আরো উন্নতির জন্য তার সঙ্গে কাজ করতে মুখিয়ে আছি। এখনো জানিনা মুল একাদশে জায়গা পাব কিনা। তবে তাদের সঙ্গে থাকতে পারাটাও গৌরবের বিষয়।'

উৎফুল্ল ইয়াসির বলেন, তামিম ইকবাল, সাকিব আল হাসান ও মুশফিকুর রহিমদের সঙ্গে ড্রেসিং রুম ভাগ করতে পেরে তিনি উচ্ছ্বসিত. 'জাতীয় দলে যোগ দিয়েই আমি বাংলাদেশি গ্রেটদের সঙ্গে ড্রেসিং রুম ভাগ করতে পেরে দারুন রোমঞ্চিত। আমি তাদের দেখে, তাদের আইডল মেনেই বড় হয়েছি। আর আজ আমি এখানে তাদের সঙ্গে। এটি দারুন এক রোমঞ্চকর ব্যাপার। আমি তাদের কাছ থেকে শিখতে চাই। তাদের যতই দেখছি ততই মুগ্ধ হচ্ছি। এই পর্যায়ে এসেও দলে জায়গা নিশ্চিত থাকার পরও তারা প্রচুর পরিশ্রম করছেন। যে কোনো তরুণের চেয়েও বেশি পরিশ্রম করছেন। এটা আমাদের জন্য শিক্ষণীয়।'

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা