kalerkantho

শনিবার । ১৪ ফাল্গুন ১৪২৭। ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১। ১৪ রজব ১৪৪২

আম্পায়ারের ভুলে ওয়ানডেতে ১০ ওভারের বেশি বোলিং করেছিলেন রফিক

অনলাইন ডেস্ক   

২৩ জানুয়ারি, ২০২১ ১৬:১১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আম্পায়ারের ভুলে ওয়ানডেতে ১০ ওভারের বেশি বোলিং করেছিলেন রফিক

ছবি: আইসিসি

মিরপুরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে আম্পায়ারের ভুলে একটি ওভারে একটি বল কম করেছিলেন বাংলাদেশের বোলার মুস্তাফিজুর রহমান।

ক্যারিবীয় ইনিংসের ৪০তম ওভারে পাঁচটি বৈধ বল করার পর আম্পায়ার ওভার ঘোষণা করেন। এমন ঘঠনা ক্রিকেট খুব একটা দেখা যায় না। তবে আজ থেকে প্রায় ১৭ বছর আগে বাংলাদেশের ম্যাচে আম্পায়ারের প্রায় এমনই একটি ভুল দেখা গিয়েছিল। ম্যাচটি ছিল বাঁহাতি স্পিনার আব্দুর রাজ্জাকের অভিষেক ম্যাচ। সেদিন আম্পায়ার ছিলেন অশোকা ডি সিলভা ও তাইরন উইজের্বধনে। 

এশিয়া কাপের সে ম্যাচে আম্পায়ারের ভুলে ১০ ওভারের চেয়ে বেশি বল করেছিলেন তখনকার দেশসেরা স্পিনার মোহাম্মদ রফিক। একটা সময় ওয়ানডে ছিল ৬০ ওভারের। তখন একজন বোলার সর্বোচ্চ ১২ ওভার বোলিং করতে পারতো। তবে ৫০ ওভারের ওয়ানডে শুরু হওয়ার পর একজন বোলার সর্বোচ্চ ১০ ওভার বোলিং করতে পারেন। এর চেয়ে বেশি বল করার সুযোগ নেই।

ঘটনাটি ২০০৪ সালের। এশিয়া কাপের ম্যাচে বাংলাদেশের দেওয়া ২২২ রানের টার্গেটে ব্যাট করছিল হংকং। হংকং ইনিংসের ৪৪তম ওভারে নিজের দশম ওভার করতে আসেন মোহাম্মদ রফিক। ওভার শেষে হংকংয়ের রান ছিল ৯ উইকেটে ১০১ রান। তখন রফিকের বোলিং ফিগার ছিল ১০-৩-১৯-১। তবে  ৪৬তম ওভারের শুরুতে আম্পায়ার জানান রফিক আরো এক ওভার করতে পারবেন। আম্পায়ারের ভুলে একাদশ তম ওভার শুরু করেন রফিক। ওই ওভারের দ্বিতীয় বলেই আউট হয়ে যান হংকংয়ের শেষ ব্যাটসম্যান, ১০৫ রানে শেষ হয় হংকংয়ের ইনিংস। বাংলাদেশ জয় পায় ১১৬ রানে। এ ম্যাচে রফিকের বোলিং ফিগার ছিল ১০.২-৩-১৯-২। আম্পায়ারের এই ভুলটি নিয়ে সেসময় ব্যাপক সমালোচনা হয়েছিল। 

 

 

সূত্র: ক্রিকইনফো/ক্রিকটেকার

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা