kalerkantho

বুধবার । ১৮ ফাল্গুন ১৪২৭। ৩ মার্চ ২০২১। ১৮ রজব ১৪৪২

৩ টি ডাবল সেঞ্চুরি করেও দশক সেরা একাদশে নেই মুশফিক!

অনলাইন ডেস্ক   

২৭ ডিসেম্বর, ২০২০ ১৯:৪৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



৩ টি ডাবল সেঞ্চুরি করেও দশক সেরা একাদশে নেই মুশফিক!

গত এক দশকে বিশ্ব ক্রিকেটের তিন ফরম্যাটের সেরা একাদশ ঘোষণা করেছে বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। ওয়ানডে একাদশে বাংলাদেশের সেরা অল-রাউন্ডার সাকিব আল হাসান থাকলেও, টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি একাদশে বাংলাদেশের কারও জায়গা হয়নি। অথচ গত এক দশকে তিনটি ডাবল সেঞ্চুরি করেছেন টাইগারদের সাবেক অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। সাদা পোশাকে তার অসাধারণ ধারাবাহিকতা দেখা গেছে।

ওয়ানডের মতো টি-টোয়েন্টিতে একাদশের অধিনায়ক ভারতের সাবেক খেলোয়াড় মহেন্দ্র সিং ধোনি। আর টেস্টের অধিনায়ক মনোনীত হয়েছেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি। আইসিসির টেস্ট একাদশে সবচেয়ে বেশি খেলোয়াড় সুযোগ পেয়েছে ইংল্যান্ডের। একাদশে থাকা ইংল্যান্ডের চার খেলোয়াড় হলেন- অ্যালিস্টার কুক, বেন স্টোকস, স্টুয়ার্ট ব্রড ও জেমস এন্ডারসন।অস্ট্রেলিয়া ও ভারতের ২ জন করে এবং দক্ষিণ আফ্রিকা, নিউজিল্যান্ড এবং শ্রীলঙ্কা থেকে ১ জন করে ক্রিকেটার একাদশে আছেন।

অস্ট্রেলিয়ার ডেভিড ওয়ার্নারের সাথে আছেন স্টিভেন স্মিথ। ভারতের কোহলির সাথে আছেন স্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বিন। নিউজিল্যান্ড থেকে আছেন কেন উইলিয়ামসন, দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে ডেল স্টেইন আর শ্রীলঙ্কা থেকে একাদশের জায়গা পেয়েছেন সাবেক অধিনায়ক কুমার সাঙ্গাকারা। বাংলাদেশের মতো টেস্ট একাদশে পাকিস্তান ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের কোনো ক্রিকেটারের সুযোগ হয়নি। আর টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের পাশাপাশি ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ড এবং পাকিস্তানের কোনো ক্রিকেটারের সুযোগ হয়নি।

দশক সেরা টি-টোয়েন্টি একাদশে ভারতীয়দের দাপট। এতে সর্বোচ্চ চারজন ভারতীয় ক্রিকেটার আছেন- মহেন্দ্র সিং ধোনি, বিরাট কোহলি, রোহিত শর্মা এবং জসপ্রিত বুমরাহ। ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং অস্ট্রেলিয়ার ২ জন করে ক্রিকেটার জায়গা পেয়েছেন। ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিস গেইল ও কাইরন পোলার্ড। অস্ট্রেলিয়ার অ্যারন ফিঞ্চ ও গ্লেন ম্যাক্সওয়েল আছেন। এছাড়া দক্ষিণ আফ্রিকার এবি ডি ভিলিয়ার্স, শ্রীলঙ্কার লাসিথ মালিঙ্গা ও আফগানিস্তানের রশিদ খান আছেন। ২০১১ সালের পহেলা জানুয়ারি থেকে চলতি বছরের ৭ অক্টোবর পর্যন্ত পারফরমেন্স বিবেচনায় দশক সেরা একাদশ গঠন করেছে আইসিসি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা