kalerkantho

রবিবার । ১৫ ফাল্গুন ১৪২৭। ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১। ১৫ রজব ১৪৪২

প্রথম দিনেই জমে গেছে অস্ট্রেলিয়া-ভারত টেস্ট

অনলাইন ডেস্ক   

১৭ ডিসেম্বর, ২০২০ ২০:৫০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



প্রথম দিনেই জমে গেছে অস্ট্রেলিয়া-ভারত টেস্ট

আজিঙ্কা রাহানের বিদায়, অজিদের উল্লাস। ছবি : এএফপি

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দিবা-রাত্রির টেস্টের প্রথম দিন শেষে ৮৯ ওভারে ৬ উইকেটে ২৩৩ রান তুলেছে সফরকারী ভারত। সিরিজের প্রথম টেস্টে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্বান্ত নেন ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলি। গতকালই এই টেস্টের একাদশ ঘোষণা করেছিল ভারত। মায়াঙ্ক আগরওয়ালের সাথে ইনিংস শুরু করেন পৃথ্বী শ। প্রথম ওভারের দ্বিতীয় বলে রানের খাতা খোলার আগে পৃথ্বীকে বোল্ড করেন অস্ট্রেলিয়ার পেসার মিচেল স্টার্ক। শুরুতেই উইকেট হারানোর ধাক্কা সামলে উঠার চেষ্টা করেছেন মায়াঙ্ক আগরওয়াল ও তিন নম্বরে নামা চেতেশ্বর পূজারা।

ইনিংসের প্রথম বাউন্ডারি আসে দশম ওভারের শেষ বলে। অস্ট্রেলিয়ার পেসার জশ হ্যাজলেউডকে মিড-অফ দিয়ে চার মারেন মায়াঙ্ক আগরওয়াল। ১৬তম ওভারের প্রথম বলে ইনিংসের দ্বিতীয় বাউন্ডারিও আসে মায়াঙ্ক আগরওয়ালের ব্যাট থেকে। এবার বোলার ছিলেন স্টার্ক। তবে প্যাট কামিন্সের করা ১৯তম ওভারে থামতে হয় মায়াঙ্ক আগরওয়ালকে। ৪০ বলে ১৭ রান করা মায়াঙ্ক আগরওয়াল বোল্ড হয়ে যান। দলীয় ৩২ রানে মায়াঙ্কের বিদায়ের পর স্কোরবোর্ড সচল রাখেন পূজারা ও অধিনায়ক বিরাট কোহলি।

৫০ রানে পৌঁছাতে ৩০ ওভার লেগে যায় ভারতের। তখন ওভারপ্রতি রান রেট ১.৭০। ৪৯.৩ ওভারে ভারতের স্কোর একশো ছাড়ায়।  অস্ট্রেলিয়ার স্পিনার নাথান লিঁও’র বলে ২ রান নিয়ে দলকে শতরানে পৌঁছে দেন পূজারা। তবে পরের বলেই তিনি আউট হয়ে যান। গালিতে লিঁওর বলে পূজারার ক্যাচ নিয়েছিলেন মানার্স লাবুশানে। তবে প্রথম দফায় আউট দেননি আম্পায়ার। রিভিউর সহায়তা নিয়ে পূজারার বিদায় নিশ্চিত করে অস্ট্রেলিয়া। ২১৮ মিনিট ক্রিজে থেকে ১৬০ বল খেলে মাত্র ২টি চারে ৪৩ রান করেন পূজারা। তার স্ট্রাইক রেট ছিল ২৬.৮৮। ১৪৮তম বলে এই ইনিংসে নিজের প্রথম বাউন্ডারি মারেন পূজারা।

কোহলি-পুজারা ১৯১ বলে ৬৮ রানের জুটি গড়েন । এরপর ক্রিজে কোহলির সঙ্গী হন আজিঙ্কা রাহানে। এই জুটিও রানের পেছনে না দৌঁড়ে, উইকেট বাঁচিয়ে খেলায় মনোযোগি হন। এই পরিকল্পনা সফল হয়ে রয়ে-সয়ে স্কোরকে বড় করছিলেন কোহলি-রাহানে। এর মধ্যে ১২৩ বলে টেস্ট ক্যারিয়ারের ২৩তম হাফ-সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন কোহলি। হাফ-সেঞ্চুরির পর ইনিংস বড় করছিলেন তিনি। সাথে ভারতের স্কোরও বাড়ছিল। একসময় কোহলি-রাহানের উপর ভর করে অবিচ্ছিন্ন থেকে প্রথম দিন শেষ করার স্বপ্ন দেখছিল ভারত।

কোহলির রান আউটে ভারতের স্বপ্ন পূরণ হয়নি। ২৪৫ মিনিটে ১৮০ বল খেলে ৮টি চারে ৭৪ রান করে ফিরেন কোহলি। চতুর্থ উইকেটে কোহলি-রাহানে ১৬৮ বলে ৮৮ রানের জুটি গড়েন। কোহলির পর থামেন রাহানে। স্টার্কের বলে লেগ বিফোর হওয়ার আগে তার সংগ্রহ ৯২ বলে ৩ চার ১ ছক্কায় ৪২ রান। ভারতের ইনিংসে আজ এটাই একমাত্র ছক্কা। কোহলি-রাহানের পর দ্রুত আউট হন হনুমা বিহারি। পেসার জশ হ্যাজেলউডের শিকার হওয়া হনুমা বিহারি ২৫ বলে ২টি চারে ১৬ রান করেন।

১৮ রানের মধ্যে কোহলি-রাহানে-বিহারিকে হারিয়ে হঠাৎই দিনের শেষভাগে চাপে পড়ে যায় ভারত। তবে দিনের বাকি সময়ে ভারতকে বিপদমুক্ত রাখেন উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান ঋদ্ধিমান সাহা ও রবিচন্দ্রন অশ্বিন। এই দুজন ২৭ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়ে দিন শেষ করেন। ঋদ্ধিমান ৯ ও অশ্বিন ১৫ রানে অপরাজিত আছেন। অস্ট্রেলিয়ার স্টার্ক ২টি, হ্যাজেলউড-কামিন্স-লিঁও ১টি করে উইকেট নেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা