kalerkantho

রবিবার। ৩ মাঘ ১৪২৭। ১৭ জানুয়ারি ২০২১। ৩ জমাদিউস সানি ১৪৪২

ইংল্যান্ডে বর্ণবিদ্বেষের শিকার পূজারা!

অনলাইন ডেস্ক   

৫ ডিসেম্বর, ২০২০ ১৬:৫৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ইংল্যান্ডে বর্ণবিদ্বেষের শিকার পূজারা!

আবারও ক্রিকেটে উঠল বর্ণবাদের অভিযোগ! বর্ণবৈষম্যের অভিযোগে বিদ্ধ ইংল্যান্ডের কাউন্টি দল ইয়র্কশায়ার। আর সেই বিতর্কে জড়িয়ে গেছে চেতেশ্বর পূজারার মতো তারকার নাম। কাউন্টি ক্রিকেট খেলতে গিয়ে বর্ণবিদ্বেষের শিকার হয়েছিলেন আজিম রফিক। তিনি সেই বিতর্ক নিয়েই সম্প্রতি মুখ খুলেছেন। সেখানেই উঠে এসেছে পূজারার প্রসঙ্গ।

রফিকের অভিযোগের পর তদন্তে নেমেছে ইয়র্কশায়ার। সেই তদন্তেই রফিকের পক্ষে প্রমাণ জমা দিয়েছেন পাকিস্তান তারকা নাভেদ উল হাসান এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেটার টিনো বেস্ট। ক্রিকইনফোর প্রতিবেদন অনুযায়ী, ইয়র্কশায়ারের দুই সাবেক কর্মী তাজ বাট এবং টনি বাউড়িও এই অভিযোগের সমর্থনে বক্তব্য এবং প্রমাণ উপস্থাপন করেছেন।

তাজ বাট বলেছেন, 'এশিয়ানদের ক্ষেত্রে ট্যাক্সি ড্রাইভার এবং রেস্তোরাঁ কর্মী বলে অপমান করা হতো। চেতেশ্বর পূজারার নাম উচ্চারণ করতে পারত না বলে সবাই তাকে স্টিভ বলে ডাকত।' এমন পরিবেশে ৬ সপ্তাহের মধ্যেই পদত্যাগ করেন তাজ বাট। টনি বাউড়ি ১৯৯৬ সাল পর্যন্ত কোচ হিসেবে কাজ করেছেন। তিনি বলেছেন, 'সাদা বাদে অন্য চামড়ার ক্রিকেটারদের সঙ্গে বিশ্রী ব্যবহার করা হতো। ড্রেসিংরুমেও এই নিয়ে সমস্যা ছিল। এতে পারফরম্যান্সে প্রভাব পড়ত।'

নিজের অভিজ্ঞতার কথা জানাতে গিয়ে সম্প্রতি রফিক বলেন, 'এতটাই খারাপ ব্যবহার করা হয় যে আত্মহত্যা করতেও গিয়েছিলাম।' তারপরেই ক্লাবের পক্ষে তদন্ত চালানোর কথা বলা হয়। রফিকের বক্তব্য সমর্থন করেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং পাকিস্তানের ফাস্ট বোলার টিনো বেস্ট এবং রানা নাভেদ।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা