kalerkantho

বুধবার। ৬ মাঘ ১৪২৭। ২০ জানুয়ারি ২০২১। ৬ জমাদিউস সানি ১৪৪২

ভারত নিয়মের অপব্যবহার করেছে! অভিযোগ অজি তারকার

অনলাইন ডেস্ক   

৪ ডিসেম্বর, ২০২০ ২১:৫৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভারত নিয়মের অপব্যবহার করেছে! অভিযোগ অজি তারকার

ছবি : এএফপি

ওয়ানডেতে দাপট দেখালেও হার দিয়ে টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরু করেছে অস্ট্রেলিয়া। সফরকারী ভারতের কাছে তারা হেরেছে ১১ রানে। তবে জয়-পরাজয় ছাপিয়ে এই ম্যাচে আলোচনায় চলে এসেছে ভারতের 'কনকাশন সাব' নামানো। ভারতীয় ইনিংসের শেষ ওভারে জাদেজার হেলমেটে বল লাগে। ব্যাট হাতে ইনিংস শেষ করলেও ফিল্ডিং করতে নামেননি তিনি। তার কনকাশন সাব হিসেবে খেলতে নামেন যুজবেন্দ্র চাহাল। এতে নিয়মের ব্যত্যয় ঘটেছে বলে দাবি অজিদের।

জাদেজার মাথায় যখন বল লাগে তখন মাঠে কোনো ফিজিও আসেননি। তাই ধরে নেওয়া হয় যে, জাদেজার খুব একটা লাগেনি। এরপর ব্যাটিং করতে করতে জাদেজার হ্যামস্ট্রিংয়ে টান লাগে। সেটার জন্য অবশ্য ফিজিও মাঠে আসেন। সামান্য শুশ্রুষার পর ওই অবস্থায় ব্যাটিং চালিয়ে যান জাদেজা। তবে হ্যামস্ট্রিংয়ের চোটের জন্য তার পক্ষে বোলিং করা সম্ভব ছিল না। এই সুযোগটাও কাজে লাগায় ভারত। 'কনকাশন সাব' হিসেবে চাহালকে নামানো হয়।

এই চাহালই ৪ ওভারে ২৫ রানের বিনিময়ে ৩ উইকেট নিয়ে ভারতকে ম্যাচ জেতান। তবে মাইকেল ভন, হর্ষ ভোগলে সহ অনেক বিশেষজ্ঞ টুইটারে প্রশ্ন তোলেন। ধারাভাষ্যে মাঞ্জরেকার বলেন, কনকাশন সাবের আইন বদলানো দরকার। এই নিয়ে বিরতিতে ম্যাচ রেফারি ডেভিড বুনের সঙ্গে অজি কোচ ল্যাঙ্গারকে তর্কাতর্কি করতেও দেখা গেছে। অন্যদিকে ম্যাচ শেষে ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি বলেন যে, মাঠ ছাড়ার পর ড্রেসিংরুমে গিয়ে জাদেজার মাথা ঘুরছিল। ম্যাচ শেষেও নাকি তার একই অবস্থা।

ম্যাচ শেষে অজি অল-রাউন্ডার হেনরিকসও ভারতীয় দলের বিরুদ্ধে 'কনকাশন সাব' নিয়মের অপব্যবহারের অভিযোগ তুলেছেন। তিনি বলেছেন, 'হেলমেটে বল লাগায় জাদেজার কনকাশন সাব নামানো যেতেই পারে। তবে জাদেজা একজন অল-রাউন্ডার। চাহাল একজন বিশেষজ্ঞ স্পিনার। কনকাশনের ক্ষেত্রে একই রকম ক্রিকেটারদের সাব হিসেবে নামানো যায়। এক্ষেত্রে জাদেজা আর চাহাল কীভাবে একই রকম ক্রিকেটার হলো সেটা বুঝতে পারছি না।'

অজি কোচ জাস্টিন ল্যাঙ্গার জাদেজার কনকাশন সাব নিয়ে প্রশ্ন তুললেও অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ অবশ্য কৌশলী বক্তব্য দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, 'ওরা আমাদের জানায় যে, ওদের ডাক্তার জাদেজাকে কনকাশনের জন্য ম্যাচ থেকে দূরে থাকার নির্দেশ দিয়েছেন। সুতরাং এই বিষয়ে মেডিক্যাল বিশেষজ্ঞদের সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ জানানো উচিত নয়। শেষের দিকে আমরা বেশ কিছু রান উপহার দিয়েছি। তারপর মাঝের ওভারগুলোয় আমরা বাউন্ডারি মারতে পারিনি।'

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা