kalerkantho

রবিবার । ১০ মাঘ ১৪২৭। ২৪ জানুয়ারি ২০২১। ১০ জমাদিউস সানি ১৪৪২

নিষ্প্রভ সাকিব; খুলনার সহজ জয়

অনলাইন ডেস্ক   

৪ ডিসেম্বর, ২০২০ ১৬:০৮ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



নিষ্প্রভ সাকিব; খুলনার সহজ জয়

ছবি : বিসিবি

নিষেধাজ্ঞা শেষে প্রথম টুর্নামেন্ট খেলতে নেমে এখনো নিজেকে ফিরে পাননি বিশ্বসেরা অল-রাউন্ডার সাকিব আল হাসান। বল হাতে কয়েকটি উইকেট নিলেও ব্যাটিংয়ে সুবিধা করতে পারছেন না। আজ ফরচুন বরিশালের বিপক্ষে তিনি করেছেন ১০ বলে মাত্র ১৪ রান। তবে তার দল জেমকন খুলনা জয় পেয়েছে ৪৮ রানের বড় ব্যবধানে। হাফ সেঞ্চুরি করে ম্যাচসেরা হয়েছেন খুলনার জাকির হাসান।

আজ শুক্রবার মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে ৬ উইকেটে ১৭৩ রান তোলে জেমকন খুলনা। সাকিব আজ আর ওপেন করতে নামেননি। একাদশ থেকে বাদ দেয়া হয়েছে এনামুল হক বিজয়কে। ফলে নতুন উদ্বোধনী জুটি হিসেবে খুলনার ইনিংস সূচনা করেন জহুরুল ইসলাম ও বিজয়ের জায়গায় সুযোগ পাওয়া জাকির হাসান। এতে খুব একটা লাভ হয়নি। উদ্বোধনী জুটিতে আসে মাত্র ১৯ রান। ১০ বলে মাত্র ২ রান করে তাসকিন আহমেদের বলে বোল্ড হন জহুরুল।

তবে অপরপ্রান্ত ধরে রাখেন বাঁহাতি উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান জাকির হাসান। তাসকিনের করা তৃতীয় ওভারে হাঁকান জোড়া বাউন্ডারি। তার সঙ্গী হন ইমরুল কায়েস। উইকেটে দুই বাঁহাতি থাকায় দুইপ্রান্ত থেকে দুই অফস্পিনার মেহেদি হাসান মিরাজ ও আফিফ হোসেন ধ্রুবকে আক্রমণে লাগিয়ে দেন অধিনায়ক তামিম। ৩৩ বলে ৮ বাউন্ডারিতে ফিফটি পূরণ করেন জাকির। ইনিংসের ১৫তম ওভারে রাব্বির বলে ৩৪ বলে ৩৭ রান করা ইমরুল কায়েস তামিম ইকবালের হাতে ধরা পড়লে ভাঙে জাকিরের সঙ্গে তার জুটি।

উইকেটে এসেই দ্বিতীয় বলে কাভার ড্রাইভে চার মারেন সাকিব। কিন্তু বাঁহাতি স্পিনার তানভীর ইসলামের বলে তৌহিদ হৃদয়ের তালুবন্দি হয়ে ১৪ বলে ১০ রানেই তার ইনিংস থামে। তার আগে জাকিরকে ফেরান তাসকিন। দুর্দান্ত ব্যাটিং করা জাকির খেলেন ১০ চারের মারে ৪২ বলে ৬৩ রানের ইনিংস। এরপর ইনিংসে বাকিটা সাজান ১৪ বলে ২৪ রান করা অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। শেষ ৩ ওভারে খুলনা পায় ৪২ রান। শেষ বলে ছক্কা মেরে দলকে ১৭৩ রান এনে দেন আরিফুল।

জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে আজ বেশ মারমুখী ভঙ্গিতেই শুরু করেন তামিম ইকবাল। প্রথম ৭ ওভারে বিনা উইকেটে ৫৭ রান করে ফেলার পর মাত্র ৩ রানের ব্যবধানে তিন উইকেট হারায় বরিশাল। শুভাগত হোমের করা অষ্টম ওভারেই সাজঘরে ফিরে যান দুই ওপেনার তামিম (২১ বলে ৩২) ও পারভেজ (২৬ বলে ১৯)। পরের ওভারে দ্রুত সিঙ্গেল নিতে গিয়ে রানআউটে কাঁটা পড়েন ৩ বলে ৩ রান করা আফিফ হোসেন ধ্রুব। এরপর আর ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি বরিশাল। তৌহিদ হৃদয়ের ২৭ বলে ৩৩ রানের ইনিংসটি কেবল পরাজয়ের ব্যবধানই কমায়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা