kalerkantho

শনিবার । ৯ মাঘ ১৪২৭। ২৩ জানুয়ারি ২০২১। ৯ জমাদিউস সানি ১৪৪২

মৃত্যুর আগে ১২ ঘণ্টা কোনো চিকিৎসক পাননি ম্যারাডোনা- গুরুতর অভিযোগ!

অনলাইন ডেস্ক   

২৭ নভেম্বর, ২০২০ ১৬:৪৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মৃত্যুর আগে ১২ ঘণ্টা কোনো চিকিৎসক পাননি ম্যারাডোনা- গুরুতর অভিযোগ!

পৃথিবী থেকে চিরবিদায় নিয়েছে আর্জেন্টাইন কিংবদন্তি দিয়াগো ম্যারাডোনা। তাঁর শেষকৃত্যও সম্পন্ন হয়ে গেছে।  বৃহস্পতিবার (২৬ নভেম্বর) প্রেসিডেন্সিয়াল প্যালেসে দেশের সর্বোচ্চ মরণোত্তর সম্মান প্রদর্শনের পর স্থানীয় সময় সন্ধ্যায় সমাহিত করা হয়েছে ফুটবল ঈশ্বর ম্যারাডোনার মরদেহ। এর মাঝেই তাঁর আইনজীবী মাতিয়াস মোরলা কিংবদন্তির মৃত্যুর জন্য তাঁর চিকিৎসকদের দিকে আঙুল তুলেছেন। যা নিয়ে শুরু হয়েছে তোলপাড়!

গত ৩ নভেম্বর মস্তিষ্কে রক্ত জমাট বাঁধায় ম্যারাডোনাকে অস্ত্রোপচার টেবিলে যেতে হয়েছিল। এরপর তার মাদকাসক্তি কাটানোর জন্য বেশ কিছুদিন হাসপাতালে রেখে দেওয়া হয়। রিলিজ দেওয়ার পর তাকে বুয়েনস এইরেসের সান আন্দ্রেসে এক প্রাইভেট ক্লিনিকে রাখা হয়। সেখানকার চিকিৎসক আর দুই-একজন আত্মীয় ছিলেন ম্যারাডোনার শেষ দিনগুলোর সঙ্গী। তাদের বিরুদ্ধেই এবার অভিযোগের আঙুল তুলেছেন মাতিয়াস মোরলা।

মোরলা বলেছেন, 'দিনটা অনেক কষ্টকর আর স্মৃতিকাতর। আমার বন্ধুর বিদায়ের কষ্টটা অনুভব করছি। শেষ দিন পর্যন্ত যার প্রতি আমার সমর্থন ও বিশ্বস্ততা অটুট ছিল। এটা অবিশ্বাস্য যে ১২ ঘণ্টা আমার বন্ধুকে কেউ দেখতে যায়নি। কিংবা কোনো স্বাস্থ্য কর্মকর্তা তাঁর আশপাশে ছিল না। অ্যাম্বুলেন্স আসতেও আধা ঘণ্টার বেশি সময় লেগেছে, যেটা শাস্তিযোগ্য নির্বুদ্ধিতা। এই দিকটা অগ্রাহ্য করা উচিত হবে না। আমি কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ করব শেষ পর্যন্ত এটার তদন্ত করার জন্য। ডিয়েগো আমাকে যেমনটা বলতেন, "বন্ধু, অন্যায় দেখলে দয়া দেখাবে না।"

অথচ এই মোরলার সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরেই ম্যারাডোনার কোনো সম্পর্ক নেই। কারণ ২০১৮ সালে ম্যারাডোনার সাবেক স্ত্রী ক্লদিয়া ভিয়াফোন ও দুই মেয়ে দালমা ও জিয়ান্নিনার বিরুদ্ধে ম্যারাডোনার সম্পত্তি চুরির অভিযোগ এনেছিলেন এই মোরলা। এতে তার ওপর চটে যানা ম্যারাডোনা। প্রেসিডেন্ট হাউজে ম্যারাডোনার মরদেহ দেখতে আসা ভক্তদের অনেকেই 'মোরলা হত্যাকারী' বলে স্লোগান দিয়েছেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা