kalerkantho

শুক্রবার । ৮ মাঘ ১৪২৭। ২২ জানুয়ারি ২০২১। ৮ জমাদিউস সানি ১৪৪২

আফগানিস্তানকে প্রথমবার সফরের আমন্ত্রণ জানাচ্ছে পাকিস্তান

অনলাইন ডেস্ক   

২৬ নভেম্বর, ২০২০ ১৫:১৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আফগানিস্তানকে প্রথমবার সফরের আমন্ত্রণ জানাচ্ছে পাকিস্তান

সম্প্রতি আফগানিস্তানের কাবুলে সফর করেছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। ঐ সফরের পর আফগানিস্তান ক্রিকেট দলকে নিজ দেশে প্রথম আনুষ্ঠানিক সফরের জন্য আমন্ত্রন জানাচ্ছে পাকিস্তান, এমনটাই জানিয়েছেন পিসিবি কর্মকতারা। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) প্রধান নির্বাহি ওয়াসিম খান বলেন, 'আমরা এই সফরের জন্য একটি সম্ভাব্য সময় খুঁজে বের করব। যদি ২০২১ সালে না হয়, তবে অবশ্যই ২০২২ সালে সিরিজ আয়োজনের পরিকল্পনা করবো।'

বার্তা সংস্থা এএফপিকে তিনি আরও বলেন, 'পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের মধ্যকার ক্রিকেট সিরিজ দুই দেশের মধ্যে ভালোবাসা ও শান্তির স্থল হতে পারে।'

২০১১ সালে পাকিস্তান সফর করেছিল আফগানিস্তানের জাতীয় দল। তবে সেই দলটি ছিল দ্বিতীয় সারির। আর ঐ সফরের ম্যাচগুলোকে প্রথম শ্রেনির মর্যাদা দেয়া হয়নি। বৃহস্পতিবার আফগানিস্তান সফর করেছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান। সেখানে সহিংসতা কমাতে সহায়তা করার প্রতিশ্রতি ও তালেবান ও আফগান বাহিনীর মধ্যে যুদ্ধবিরতির আহওয়ান জানান তিনি।

রাজনীতিতে প্রবেশের আগে বিশ্ব ক্রিকেটের অন্যতম শীর্ষস্থানীয় ক্রিকেটার ছিলেন অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করা ইমরান। বল হাতে জ্বলে উঠা ও বিধ্বংসী রুপে প্রকিপক্ষের বোলিং লাইনকে চুরমার করার দক্ষতা ছিল এই অলরাউন্ডারের। বিশ্ব ক্রিকেটের দ্বিতীয় স্তরের দল আফগানিস্তানের প্রতিপক্ষরা ছিল আয়ারল্যান্ড, স্কটল্যান্ড এবং হংকংয়ের মতো দল।

কিন্তু গত বছর ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের আগে একটি প্রীতি ম্যাচে পাকিস্তানকে হারিয়েছিল আফগানিস্তান। পরে কাবুলে রাতের আকাশে মেশিনগানের গুলি করে আনন্দ উদযাপন করে ভক্তরা। ১৯৮০এর দশক থেকেই ক্রিকেটের সাথে নিজেদের পরিচিতি করে বেশিরভাগ আফগানরা। যখন লাখ-লাখ মানুষ সীমান্ত থেকে মাত্র ৫০ কিলোমিটার (৩৬ মাইল) পাকিস্তানের শহর পেশোয়ারের কাছে শরণার্থী হিসাবে নির্বাসিত হয়েছিল।

সংযুক্ত আরব আমিরাত-আফগানিস্তান, এই দু'টি দেশ একমাত্র অফিসিয়াল ওয়ানডে ম্যাচ এবং একটি টি-টুয়েন্টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছে। এতে দু'টি জাতীয় ক্রিকেট বোর্ডের মধ্যে সম্পর্ক আরও জোড়দার হবে। ওয়াসিম বলেন, 'একটি শক্তিশালী আফগানিস্তান মানে এশিয়ার একটি দল। তাই পাকিস্তান নিজেদের ভূমিকা অব্যাহত রাখবে এবং আফগান ক্রিকেটকে সহায়তা করবে।'

বিশ্বকাপ ২০২৩ সুপার লিগের অংশ হিসাবে পাকিস্তানের সাথে তিনটি ওয়ানডের জন্য আফগানিস্তানের স্বাগতিক হওয়ার কথা রয়েছে। যা সংযুক্ত আরব আমিরাতে অনুষ্ঠিত হতে পারে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা