kalerkantho

রবিবার। ৩ মাঘ ১৪২৭। ১৭ জানুয়ারি ২০২১। ৩ জমাদিউস সানি ১৪৪২

সাকিব ফিরছেন নিজের ‘বড় দিনে’

ক্রীড়া প্রতিবেদক    

২৪ নভেম্বর, ২০২০ ০২:৩১ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সাকিব ফিরছেন নিজের ‘বড় দিনে’

নিষেধাজ্ঞা শেষে মাঠে ফেরার প্রস্তুতি-অনুশীলন চলছিলই। তবে গত ৬ নভেম্বর যুক্তরাষ্ট্র থেকে দেশে ফেরার পর মাঠের বাইরের ঘটনায় একের পর এক বিতর্কে জর্জর সাকিব আল হাসানের সামনে এবার সব কিছুকে পেছনে ফেলার উপলক্ষ এসে উপস্থিত। আজ থেকে শুরু হচ্ছে বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ আর সন্ধ্যায় মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে ফরচুন বরিশালের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়েই জেমকন খুলনার হয়ে খেলায় ফিরছেন ওয়ানডের এ বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারও। গত বছরের ২১ সেপ্টেম্বর নিজের সব শেষ ম্যাচটি খেলেছিলেন আফগানিস্তানের বিপক্ষে।

আন্তর্জাতিক সেই টি-টোয়েন্টির মাসখানেক পর ক্রিকেটারদের আন্দোলনে নেতৃত্ব দেওয়ার সপ্তাহখানেকের মধ্যেই আসে জুয়াড়ির প্রস্তাব গোপন করে তাঁর নিষিদ্ধ হওয়ার ঘোষণা। নিষেধাজ্ঞা শেষ হওয়ার আগেই গত সেপ্টেম্বরে দেশে ফিরেছিলেন ক্রিকেটে ফেরার প্রস্তুতি নিতে। সব কিছু ঠিক থাকলে এ মাসের প্রথম সপ্তাহেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট দিয়ে ফেরার কথা ছিল তাঁর। শ্রীলঙ্কা সফর হলে

সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টেই খেলতেন তিনি। কিন্তু কোয়ারেন্টিন জটিলতায় সেই সফর ভেস্তে যাওয়ায় বিকেএসপিতে নিজের নিবিড় অনুশীলন পর্ব স্থগিত করে যুক্তরাষ্ট্রে পরিবারের কাছে ফিরে যান আবার। সেখান থেকে ফেরার পর বিতর্ক পিছু ছাড়ছিল না।

তবে সব কিছুকে পেছনে ফেলতে দরকার যে পারফরম্যান্স, সেটি দ্রুতই সাকিবের ব্যাটে-বলে দৃশ্যমান হবে বলে বিশ্বাস জেমকন খুলনায় তাঁর অধিনায়ক মাহমুদ উল্লাহর। অনুশীলনে সাকিবকে দেখে ক্রিকেটের সঙ্গে তাঁর বছরখানেকের বিচ্ছিন্নতার বিষয়টি যে ধরতেই পারেননি মাহমুদ, ‘আমরা সবাই জানি, সাকিব কতটা গুরুত্বপূর্ণ। আমরা সবাই খুশি যে ও ফিরেছে এবং আমাদের দলেই খেলছে। ওকে পাওয়াটা দারুণ ব্যাপার। আমি বিশ্বাস করি, ও প্রথম ম্যাচেই নিজেকে মেলে ধরতে পারবে। ওর মধ্যে কোনো জড়তাও দেখছি না। মনে হচ্ছে, ভালো খেলতে খুব মুখিয়ে আছে ও।’

ফেরার দিনই সাকিব ঝলসে উঠুন, সেটি নিশ্চিতভাবেই চান না ফরচুন বরিশালের অধিনায়ক তামিম ইকবাল। তবে বাংলাদেশের ক্রিকেটের দৃষ্টিকোণ থেকে এই দিনটিকে ভীষণ তাৎপর্যপূর্ণ বলেও মনে করছেন তিনি, ‘আমি নিশ্চিত সাকিবের জন্য এটি অনেক বড় একটি দিন। এক বছর পর মাঠে ফিরছে। ওর জন্য যেমন বড় দিন, তেমনি বাংলাদেশ ক্রিকেটের জন্যও একটি গুরুত্বপূর্ণ দিন। কারণ ওর মাপের ক্রিকেটার ফিরে এসেছে। আমি নিশ্চিত, ওর ভক্তরাও ওকে দেখার জন্য মুখিয়ে আছে। আমি চেষ্টা করব, যেন সে কম প্রভাব ফেলতে পারে (নিজের দলের বিপক্ষে)। তবে দিনের শেষে আমি খুশি যে সে ফিরছে। আমি নিশ্চিত ও কাল (আজ) থেকে আরো ভালোভাবে এগিয়ে যাবে।’

বেক্সিমকো ঢাকার অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমের মনে হচ্ছে, সাকিবের ফেরাটা বিশ্ব ক্রিকেটেরই বড় ঘটনা, ‘শুধু আমি নই, আমার মনে হয় ক্রিকেটবিশ্বই এ জন্য অপেক্ষা করছে। সে ১ নম্বর অলরাউন্ডার, আমাদের শীর্ষ ক্রিকেটারও। আশা করছি, আমাদের বিপক্ষে ছাড়া অন্য সবার সঙ্গেই ভালো খেলুক।’ ফিরে আসা সাকিবের কাছ থেকে তরুণ ক্রিকেটারদের অনেক কিছু শেখারও দেখছেন তিনি, ‘তরুণ ক্রিকেটার যারা ওর সঙ্গে ও বিপক্ষে খেলবে, তারা অনেক কিছু শিখতে পারবে। এটি ভবিষ্যতেও খুব কাজে দেবে। যেহেতু এবার কোনো বিদেশি খেলোয়াড় নেই, তাই স্থানীয় তরুণ ক্রিকেটারদের জন্য এটি দারুণ সুযোগ। সাকিবের সঙ্গে অনেক কিছু ভাগাভাগি করার ও অনেক কিছু শেখার।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা