kalerkantho

মঙ্গলবার । ৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৪ নভেম্বর ২০২০। ৮ রবিউস সানি ১৪৪২

বার্তামেউ ক্লাব ছাড়তেই চাকরি নিয়ে টানাটানি কোম্যানের

অনলাইন ডেস্ক   

৩০ অক্টোবর, ২০২০ ১৪:১৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বার্তামেউ ক্লাব ছাড়তেই চাকরি নিয়ে টানাটানি কোম্যানের

বার্সেলোনা কোচ রোনাল্ড কোম্যান, ফাইল ছবি।

অনেক জল ঘোলা করে পদত্যাগ করেছেন বার্সেলোনা প্রেসিডেন্ট জোসেপ মারিও বার্তামেউ। তিনি দায়িত্ব ছাড়তেই অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে বার্সা কোচ রোনাল্ড কোম্যানের চাকরি। নেদারল্যান্ডস জাতীয় দলের দায়িত্ব ছেড়ে ক্যাম্প ন্যুতে এসেছেন কোম্যান। এখন তিনি একটা মৌসুম শেষ করতে পারবেন কি না সেটাই বড় প্রশ্ন।

কারণ বার্সার নতুন প্রেসিডেন্ট হওয়ার দৌড়ে যাঁরা আছেন, তাঁরা রাখবেন না কোম্যানকে। বরং তাঁরা এরই মধ্যে সাবেক বার্সা ডিফেন্ডার কোম্যানের বিকল্প নিয়ে ভাবনা-চিন্তা শুরু করে দিয়েছেন। বার্তামেউ পদত্যাগ করায় নিয়ম অনুযায়ী, তিন মাসের মধ্যে হতে হবে বোর্ড প্রেসিডেন্টের নির্বাচন।

ওই নির্বাচনে শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বী ভিক্টর ফন্ট। তিনি এরই মধ্যে জানিয়ে দিয়েছেন, দায়িত্ব পেলে বার্সার কিংবদন্তিদের ক্যাম্প ন্যুতে ফিরিয়ে আনবেন।

সংবাদমাধ্যম স্কাই স্পোর্টসকে ফন্ট বলেছেন, ‘আমাদের লক্ষ্য শক্ত এবং প্রতিযোগিতাপূর্ণ একটি প্রজেক্ট দাঁড় করানো। বার্সেলোনা খুবই ভাগ্যবান যে, ইয়োহান ক্রুইফ আমাদের খেলার একটি ধরন দাঁড় করিয়ে দিয়ে গেছেন। যাঁরা এ ধরনের সঙ্গে পরিচিত, তাঁরা এই ক্লাবের ভক্ত এবং ক্লাবকে ভালোবাসেন। যেমন- গার্দিওলা, জাভি, ইনিয়েস্তা ও কার্লোস পুয়েলরা। আমরা তাঁদের আবার ক্যাম্প ন্যুতে ফিরিয়ে আনতে চাই।'

বার্তামেউয়ের সঙ্গে বিরোধে কাতালান শিবির ছাড়তে মুখিয়ে ছিলেন দলের প্রাণভোমরা লিওনেল মেসি। বার্তামেউ পদত্যাগ করায় এখন মেসি নিশ্চয়ই খুশি। তার পরও আর্জেন্টাইন তারকার আগামী মৌসুমে বার্সায় থাকার নিশ্চয়তা পাওয়া যায়নি। তবে ফন্ট তার প্রজেক্টের অংশ করতে চান মেসিকে। সামনের চ্যাম্পিয়নস লিগ বার্সার সর্বকালের সেরা তারকা মেসিকে নিয়েই জিততে চান দায়িত্ব পেলে।

তিনি বলেছেন, ‘আমরা যদি বার্সার সম্মান ফিরিয়ে আনতে পারি, মেসি ক্যাম্প ন্যুতে তাঁর খেলা চালিয়ে যাবেন। ফুটবলের সেরা প্রজন্মের উত্তরসূরি দাঁড় করানো কঠিন। বিশেষ করে অন্য দলগুলো যখন প্রতিযোগিতা করছে এবং ফুটবলে অর্থ ঢালছে। তবে বার্সেলোনা সোনালি প্রজন্মের বিকল্প দাঁড় করাতে পারবে। তাঁর জন্য বিনিয়োগ করতে হবে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা