kalerkantho

মঙ্গলবার । ৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৪ নভেম্বর ২০২০। ৮ রবিউস সানি ১৪৪২

সাকিব নিষিদ্ধ! হতবাক ক্রিকেটপ্রেমীরা পেয়েছিলেন ষড়যন্ত্রের গন্ধ!

অনলাইন ডেস্ক   

২৮ অক্টোবর, ২০২০ ১৮:২৪ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সাকিব নিষিদ্ধ! হতবাক ক্রিকেটপ্রেমীরা পেয়েছিলেন ষড়যন্ত্রের গন্ধ!

বিশ্বসেরা অল-রাউন্ডার সেদিনের সংবাদ সম্মেলনে ভেঙে পড়েছিলেন। ফাইল ছবি

ঠিক ১ বছর আগে ২৯ অক্টোবর বাংলাদেশের ক্রিকেটাঙ্গনে যেন অ্যাটম বোমা ফেলা হলো। সদ্য ক্রিকেটারদের ধর্মঘট থেকে মুক্ত হওয়া ক্রিকেটাঙ্গন জানতে পারল, জুয়াড়ির প্রস্তাব গোপন করার অপরাধে নিষিদ্ধ হয়েছেন বিশ্বসেরা অল-রাউন্ডার সাকিব আল হাসান! যে সাকিব আল হাসান 'বাংলাদেশের জান' হিসেবে ভক্তদের কাছে পরিচিত। যে সাকিব আল হাসান বাংলাদেশের ক্রিকেটের 'পোস্টার বয়'; সেই সাকিবকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে! মানতেই পারছিলেন না কেউ। এ নিয়ে প্রতিবাদ-বিক্ষোভও হয়েছিল।

সিংহভাগ ক্রিকেটপ্রেমীরা সাকিবের এই নিষেধাজ্ঞার পেছনে 'ষড়যন্ত্র' খুঁজে পান। কারণ এর মাত্র ৭ দিন আগে ২১ অক্টোবর ২০১৯- ১১ দফা দাবিতে ধর্মঘটে নেমেছিল দেশের ক্রিকেটাররা। সেই ধর্মঘটে ছিলেন না জনপ্রিয় ক্যাপ্টেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। পুরো আন্দোলনের নেতৃত্বের পুরোভাগে ছিলেন সাকিব আল হাসান। একদিন পর সংবাদ সম্মেলন করে ক্ষোভের বিস্ফোরণ ঘটান বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। তিনি এই আন্দোলনকে 'ষড়যন্ত্র' হিসেবে আখ্যা দেন। সেইসঙ্গে ক্ষুব্ধ সুরে বলেন, 'দলের মধ্যে কেউ যদি থেকে থাকে, যে বাংলাদেশ ক্রিকেটকে ধ্বংস করে দিতে চাইছে- তাকে আমরা অবশ্যই খুঁজে বের করতে হবে। পুরো প্ল্যান জানে এক-দুজন। খুব শিগগির সব প্রকাশ হবে।'

এসব কারণে সাধারণ ক্রিকেটপ্রেমীরা দুয়ে দুয়ে চার মিলিয়ে ফেলেন। তাদের মাঝে ধারণা তৈরি হয় যে, সাকিব ক্রিকেটারদের ধর্মঘটের নেতৃত্ব দেওয়ায় ক্ষুব্ধ হয়ে বিসিবি সভাপতি আইসিসিকে দিয়ে এটা করিয়েছেন। যদিও বিসিবি সভাপতি শুরু থেকেই দাবি করে আসছিলেন, তিনি এসবের কিছুই জানেন না। সম্প্রতি একটি সাক্ষাতকারে নাজমুল হাসান পাপন বলেছেন, ক্রিকেটারদের ধর্মঘট শুরুর পরদিন তার অফিসে এসে সাকিব বলেন, 'আমি তো ভারতে যেতে পারব না'। ওই সময় সাকিবের মুখে এই তথ্য শুনে নাকি বিসিবি সভাপতির মাথায় আকাশ ভেঙে পড়ে।

প্রকৃতপক্ষে আইসিসির দুর্নীতি দমন কমিশন কঠোর গোপনীয়তা বজায় রেখে তদন্ত কাজ চালিয়ে যায়। অভিযুক্ত ক্রিকেটারের ওপরেও কাউকে না জানানোর নিষেধাজ্ঞা থাকে। সাকিবের ক্ষেত্রে সেটাই হয়েছিল। ২৯ অক্টোবর সন্ধ্যায় সাকিব ৪ নম্বর গেট দিয়ে আসেন মিরপুর স্টেডিয়ামে। তার মুখে যেন রাজ্যের অন্ধকার নেমে এসেছিল। বিসিবি প্রধানকে পাশে নিয়ে মিডিয়ার সামনে নিজের ভুল স্বীকার করেন। সেই সাকিবের নিষেধাজ্ঞা শেষ হচ্ছে আজ। আগামীকাল ২৯ অক্টোবর থেকে তিনি চাইলেই ক্রিকেট খেলতে পারবেন। ক্রিকেটপ্রেমীরা আবারও মাঠে দেখতে পাবে তদের প্রিয় অল-রাউন্ডারকে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা